বৃহস্পিতবার, ১৮ আগস্ট ২০২২, ০৩ ভাদ্র ১৪২৯, ১৯ মুহাররম ১৪৪৪

খেলাধুলা

‘প্রেরণা’ বাংলাদেশ

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৪ নভেম্বর, ২০২১, ১২:০০ এএম

বিষয়টা আর বিদ্রুপের পর্যায়ে থাকলো না। খোদ অস্ট্রেলিয়ার প্রধান কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গারই স্বীকার করে নিলেন বিষয়টা। মাত্র দুই মাস আগে বাংলাদেশে এসে টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলে হেরে যাওয়া দুটি দলই এখন বিশ্বকাপের ফাইনালে। আজ শিরোপা জয়ের লড়াইয়ে নামবে তারা। বিষয়টা নিয়ে যখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে হাসি-ঠাট্টা চলছিল, তখনই দৃশ্যপটে হাজির হলেন অস্ট্রেলিয়ার কোচ ল্যাঙ্গার। এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি স্বীকার করে নিয়ে জানালেন, বাংলাদেশের কাছে হেরে যাওয়ার ফলেই দলের মধ্যে গভীরতা বেড়েছে এবং যে কারণে আজ এতদূর পৌঁছে যেতে পেরেছে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল।
আগস্টের প্রথম সপ্তাহে বাংলাদেশে ৫ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে আসে অস্ট্রেলিয়া। সিরিজে প্রথমবারেরমত টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের কাছে পরাজিত হয় তারা। শুধু তাই নয়, সিরিজেও পরাজিত হয়। শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশের কাছে ৪-১ ব্যবধানে বিধ্বস্ত হয়ে দেশে ফিরে যায় অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল।
শুধু বাংলাদেশের কাছেই নয়, বিশ্বকাপের আগে টানা ৫টি টি-টোয়েন্টি সিরিজে পরাজিত হয়েছে অস্ট্রেলিয়া। যার মধ্যে ছিল বাংলাদেশ এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে পরাজয়। বাংলাদেশের বিপক্ষে ছিল সর্বশেষ টি-টোয়েন্টি সিরিজ। ল্যাঙ্গার মনে করেন, বিশ্বকাপের আগে তাদের যে বাজে পরিস্থিতি গেছে, তা থেকেই তারা উত্তরণের রাস্তা খুঁজে পেয়েছে, ‘এটাও (বিশ্বকাপের আগে টানা ৫ সিরিজে পরাজয়) একটা বড় কারণ যে, আমরা যেমনটা পছন্দ করি, সে ধরনের পারফরম্যান্স মাঠে প্রদর্শন করতে পারিনি। স্কোয়াডের ওপর আমাদের অনেক বেশি বিশ্বাস ছিল। একই সঙ্গে বিশ্বকাপের জন্য যে প্রস্তুতি নিয়েছি তার ওপরও বিশ্বাস ছিল। বিশেষ করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং বাংলাদেশ সফর ছিল আমাদের জন্য অনেক বড় শিক্ষা। ওই দুটি সফর থেকেই আমাদের দলের গভীরতা অনেক বেশি বেড়েছে এবং অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেটের গভীরতাও বেড়েছে।’
জাস্টিন ল্যাঙ্গার জানিয়েছেন, তাদের পেসার জস হ্যাজেলউড বাংলাদেশ এবং অস্ট্রেলিয়া সফর থেকে দারুণ ম্যাচ প্র্যাকটিস করে গেছেন, যা এখন বিশ্বকাপে এসে কাজে লাগাচ্ছেন। একই সঙ্গে অলরাউন্ডার মিচেল মার্শ নিজেদের দারুণভাবে গড়ে নিতে পেরেছেন, যে কারণে বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়া দলের একজন নিধারকের ভূমিকায় অবতীর্ণ হওয়া ক্রিকেটারে পরিণত হয়েছেন।
আজকের ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার প্রতিপক্ষ আরেক ট্রান্স-তাসমানিয়ান দেশ, তাদেরই প্রতিবেশি নিউজিল্যান্ড। দুবাই ইন্টারন্যাশনাল স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে বিশ্বকাপের ফাইনাল। যেখানে রান তাড়া করতে পারলেই অনেকটা এগিয়ে থাকা যায়। জাস্টিন ল্যাঙ্গার তাই মনে করেন, টস জয়ই ম্যাচের ভাগ্য অনেকাংশেই নির্ধারণ করে দেয়। তবে, অস্ট্রেলিয়া এখন থেকেই প্রস্তুতি নিচ্ছে, যে কোনো পরিস্থিতিতেই যেন ম্যাচ জিততে পারে। টস জিততে পারবে কি না সেটা তো ভাগ্যের ব্যাপার। সুতরাং, আগে ব্যাট করা কিংবা ফিল্ডিং করা- যে কোনো পরিস্থিতিতেই জিততে চান ল্যাঙ্গার, ‘দেখুন, আপনি তো পরিসংখ্যানকে কোনোভাবেই এড়িয়ে যেতে পারেন না। এটা নিয়ে প্রশ্ন করারও দরকার নেই। এটা গুরুত্বপূর্ণ যে, আমরা মানসিকভাবে প্রস্তুত আগে ব্যাটিং কিংবা বোলিং- যাই করি, জিততেই হবে। এই মাইন্ডসেটটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।’

যেভাবে ফাইনালে
তারিখ প্রতিপক্ষ ব্যবধান
২৩ অক্টোবর দ.আফ্রিকা ৫ উইকেটে জয়ী
২৮ অক্টোবর শ্রীলঙ্কা ৭ উইকেটে জয়ী
৩০ অক্টোবর ইংল্যান্ড ৮ উইকেটে হার
৪ নভেম্বর বাংলাদেশ ৮ উইকেটে জয়ী
৬ নভেম্বর উইন্ডিজ ৮ উইকেটে জয়ী
১১ নভেম্বর পাকিস্তান ৫ উইকেটে জয়ী

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন