শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২২, ১৪ মাঘ ১৪২৮, ২৪ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

‘মানুষ হত্যার নির্বাচন ভয়ঙ্কর ও মর্মান্তিক’

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৪ নভেম্বর, ২০২১, ১২:০০ এএম

ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে তৃতীয় ধাপ পর্যন্ত ৩৯ জন সাধারণ নাগরিক নিহত হওয়ায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জেএসডির সভাপতি আ স ম আবদুর রব। সেই সাথে দ্রুত মানুষ হত্যার ভয়ঙ্কর ও মর্মান্তিক নির্বাচন বন্ধ করারও তিনি দাবি জানিয়েছেন। গতকাল গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এ দাবি জানান।
আ স ম রব বলেন, জনগণের ভোটাধিকার নিশ্চিত না করে নির্বাচনী নাটকের নামে সহিংসতায় ৩৯ জন সাধারণ নাগরিকের প্রাণহানি প্রজাতন্ত্রের জন্য খুবই ভয়ঙ্কর ও মর্মান্তিক। এ ছাড়া প্রার্থী ও রাজনৈতিক দলের কর্মীসহ এ পর্যন্ত ৯২ জন নির্বাচনী সহিংসতায় নিহত হয়েছেন। এসবই শাসকদলের অন্তঃকোন্দল ও গণতন্ত্র বিহীন হিংস্র রাজনীতির কুফল।
প্রতিটি নাগরিক হত্যার দায় সরকারের এবং নির্বাচন কমিশনকে বহন করতে হবে উল্লেখ করে জাতীয় সংসদের সাবেক এই বিরোধী দলীয় নেতা বলেন, নাগরিকের জীবন সুরক্ষার দায়িত্ব রাষ্ট্রের। নির্বাচনী প্রহসনে দিনের পর দিন প্রজাতন্ত্রের নাগরিক হত্যার পরও সরকার এবং ইসি তথাকথিত ‘উৎসবমুখর’ পরিবেশে নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে বলে আত্মতৃপ্তি প্রকাশ করবে তা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। নাগরিক সুরক্ষায় সরকারের ব্যর্থতা ক্ষমার অযোগ্য অপরাধ।
তিনি বলেন, ভোট কেন্দ্র দখল, ব্যালট পেপার ছিনতাই, সংঘর্ষ, গুলি, ককটেল বিস্ফোরণ, বিদ্রোহী প্রার্থীদের নমিনেশন সাবমিট করতে না দেওয়ার মাধ্যমে নির্বাচনী পরিবেশ চরমভাবে ধ্বংস হওয়ার পরও সরকারদলীয় প্রার্থীদের বিজয়ী দেখানের জন্য ‘নির্বাচনী আয়োজন’ জাতির কাছে তামাশায় পরিণত হয়েছে। প্রতিটি নির্বাচন রক্তের হলি খেলায় রূপ নিয়েছে। প্রজাতন্ত্রের নাগরিক হত্যা বা নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেওয়ায় অরাজকতা ও সংঘাত এবং জিঘাংসার সংস্কৃতি ক্রমাগত বাড়ছে। আ স ম রব বলেন, সরকারকে অতিসত্ত্বর মানুষ হত্যা এবং ভোটারবিহীন নির্বাচনের নাটক বন্ধ করতে হবে। সর্বাগ্রে জনগণের ভোটাধিকার নিশ্চিত করেই সব নির্বাচনের আয়োজন করতে হবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন