সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ২০ আষাঢ় ১৪২৯, ০৪ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

যশোরে লক্ষাধিক শিক্ষার্থীকে করোনা টিকা দেয়া শুরু

যশোর ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৪ নভেম্বর, ২০২১, ৪:০৭ পিএম

যশোরে এক লাখ পাঁচ হাজার ৬৪৯ শিক্ষার্থীকে করোনা টিকার আওতায় আনা হচ্ছে। আগামীকাল সোমবার থেকে ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী এসব শিক্ষার্থীকে করোনা টিকা দেয়া শুরু হচ্ছে। এই কর্মসূচি সফল করতে ইতিমধ্যে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। শিক্ষার্থীরা যশোর পিটিআই কেন্দ্র থেকে এই টিকা নিতে পারবে।

এই টিকা নিতে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে রাখতে হবে জন্ম সনদ, পরীক্ষার রেজিস্ট্রেশন কার্ডসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র। তবে এসএসসি পরীক্ষার্থীদের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবে স্বাস্থ্য বিভাগ।
যশোর জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা একেএম গোলাম আযম জানান, শিক্ষার্থীদের করোনা টিকাদানের ক্ষেত্রে কেন্দ্র থেকে বিভিন্ন নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। নির্দেশনার মধ্যে রয়েছে, ছয়টি বুথ স্থাপন এবং তা হতে হবে শীতাতাপ নিয়ন্ত্রিত কক্ষে। যেখানে নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ ব্যবস্থা থাকতে হবে। এজন্য প্রয়োজন ২৪ ঘন্টা জেনারেটর সাপোর্ট। এছাড়াও টিকা পরিবহনের জন্য প্রয়োজন হবে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত গাড়ি।
গোলাম আযম বলেন, যশোর জেলায় শুধুমাত্র কালেক্টরেট স্কুলের হল রুম শীতাতাপ নিয়ন্ত্রিত। কিন্তু সেখানে শীতাতাপ নিয়ন্ত্রিত ছয়টি কক্ষ নেই। যেকারণে শনিবার কার্যক্রম শুরু হলেও আমরা এগোতে পারিনি। জেলা প্রশাসনের সাথে আলোচনা করে টিকা দান কেন্দ্র হিসেবে বেছে নেয়া হয় পিটিআই ভবনকে। রবিবার জেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগের সাথে বসে পুরো বিষয়টি চূড়ান্ত করা হবে। এবং আগামীকাল সোমবার থেকে কার্যক্রম শুরু হবে।
তিনি আরো জানান, শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার রেজিস্ট্রেশন কার্ডের মূল কপির সাথে দুটি করে ফটোকপি এবং জন্মসনদ নিয়ে আসতে হবে। এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের বেলাতেও একই পন্থা অবলম্বন করতে হবে। এছাড়া স্কুল ও কলেজগুলো থেকে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষও একটি তালিকা পাঠাবে। সেই অনুুযায়ী টিকা দেয়া হবে।
এক প্রশ্নের জবাবে জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা একেএম গোলাম আযম জানান, যারা এ মুহুর্তে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে তাদের ক্ষেত্রে শিক্ষা মহাপরিচালকের দপ্তর থেকে স্বাস্থ্য সুরক্ষা বিভাগে তালিকা পাঠানো হচ্ছে। পরবর্তীতে স্বাস্থ্য সুরক্ষা বিভাগ মোবাইলে ক্ষুদে বার্তার মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট শিক্ষার্থীকে টিকার বিষয়ে পরিপূর্ণ তথ্য জানাবে। ইতিমধ্যে সেই কার্যক্রমও শুরু করা হয়েছে।

যশোরের সিভিল সার্জন শেখ আবু শাহীন বলেন, ‘১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী শিক্ষার্থীদের টিকা দেয়া হবে। যাদের ১৭ ডিজিটের জন্মসনদ আছে শুধু তারাই টিকা নিতে পারবে। শিক্ষা অফিস থেকে আমাদেরকে তালিকা সরবরাহ করবে। সে অনুযায়ীই সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রে টিকা ও স্বাস্থ্যকর্মী পাঠানো হবে।’
সিভিল সার্জন আরো বলেন, যশোরে এ পর্যন্ত এক ধাপে ১৮ হাজার ৭২০ ডোজ ফাইজারের টিকা এসেছে। তারমধ্যে প্রায় ১৫ হাজার ডোজ টিকা দেয়া হয়েছে। যেকোন সময়ে দ্বিতীয় ধাপে আরো ২৩ হাজার টিকা যশোরে এসে পৌঁছাবে। তখন ২৫ হাজার ডোজ টিকা থাকবে আমাদের হাতে। সুতরাং আপাতত টিকার কোন ঘাটতি নেই। পরবর্তীতে শিক্ষা বিভাগ থেকে চাহিদা দিলে সেই অনুযায়ী কেন্দ্র থেকে পুনরায় টিকা সরবরাহ করা হবে।’

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps