শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ১৫ মাঘ ১৪২৮, ২৫ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

ব্যর্থতার ষোলকলা পূর্ণ মোহামেডানের

প্রকাশের সময় : ১৯ অক্টোবর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্পোর্টস রিপোর্টার : দেশের ফুটবলে পেশাদারিত্ব আসার পর শুরু থেকেই অনুজ্জ্বল ঐতিহ্য ঢাকা মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। আগের আটটি আসরে চরম ব্যর্থ তারা। শিরোপার দেখা পাওয়া তো দূরের কথা তালিকার দ্বিতীয় থেকে চতুর্থস্থানে থাকতেও হিমসিম খেতে হয়েছে মোহামেডানকে। এবার তো অবস্থা আরও নাজুক। ঐতিহ্যবাহীদের লড়তে হচ্ছে রেলিগেশন এড়ানোর জন্য। ঘরোয়া ফুটবলের এবারের আসর জেবি বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে যেন মোহামেডানকে চেনার উপায় নেই। ম্যাচের পর ম্যাচে ব্যর্থ তারা। ফলে পয়েন্ট টেবিলের তলানীতেই জায়গা হয়েছে তাদের। এবার আরেক দূর্বল দল উত্তর বারিধারা ক্লাবের কাছে হেওে ব্যর্থতার ষোলকলা পূর্ণ করলো সাদা-কালোরা। দলের নিয়মিত কোচ কাজী জসিম উদ্দিন জোসিকে ছাড়াই আগের ম্যাচে শক্তিশালী শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের বিপক্ষে মাঠে নেমেছিলো মোহামেডান। ম্যাচে অপ্রত্যাশিত জয়ও পেয়েছিলো তারা। শেখ জামালকে হারিয়ে এবারের মৌসুমে প্রথম জয়ের স্বাদ পায় মতিঝিল ক্লাব পাড়ার দলটি। ম্যানেজার আমিরুল ইসলাম বাবু ওই ম্যাচে কোচের ভুমিকায় থেকে বেশ বাহবা কুড়িয়েছিলেন। কিন্তু পরের ম্যাচেই প্রমাণ হলো কোচের দায়িত্ব সবাই পালন করতে পারেন না। গতকাল লিগের একাদশতম রাউন্ডে মোহামেডান মাঠে নামে উত্তর বারিধারার বিপক্ষে। এ ম্যাচেও সাদা-কালোদের কোচ হিসেবে ছিলেন বাবু। কিন্তু ব্যর্থ তিনি। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে উত্তর বারিধারা ১-০ গোলে মোহামেডানকে হারিয়ে দিলে মাথা নিচু হয় অগনিত সাদা-কালো সমর্থকদের। বারিধারার পক্ষে পেনাল্টি থেকে একমাত্র জয়সূচক গোলটি করেন সবুজ। এই জয়ের ফলে বারিধারা ১১ ম্যাচে ৬ পয়েন্ট পেলেও তালিকায় সবার শেষেই রয়েছে তারা। অন্যদিকে সমান ম্যাচে ৯ পয়েন্ট পাওয়া মোহামেডান নেমে গেলো দশমস্থানে।
ম্যাচের প্রথমার্ধে দু’দলই পরিকল্পনাহীন ফুটবল খেলে। ফলে তারা গোলের তেমন সুযোগ সৃষ্টি করতে পারেনি। তবে দ্বিতীয়ার্ধেও শুরু থেকে গোলের জন্য মরিয়া হয়ে লড়ে মোহামেডান। বেশ ক’টি সুযোগ সৃষ্টি কওে তারা। কিন্তু অভিজ্ঞ ফরোয়ার্ডের অভাবে গোলের দেখা পায়না। বিরতির পর ৪৬ মিনিটে শাহেদের বাড়ানো বলে ইসমাইল বাঙ্গুরা হেড নিলে তা ফিস্ট করে ফিরিয়ে দেন বারিধারার গোলরক্ষক মোহাম্মদ এরশাদ। একই ভাবে ৭১ মিনিটে ডান দিক দিয়ে মোহামেডানের বদলি ফরোয়ার্ড আমিনুর রহমান সজীব একক প্রচেষ্টায় আক্রমণে গেলেও বারিধারা গোলরক্ষকের হাতে বল তুলে দেন। উল্টো দিকে ৮৪ মিনিটে জয়সূচক গোলটি পায় বারিধারা। এসময় ইউসুফ আলি খান ও বিশ্বনাথ ঘোষ দ’ুজনে মিলে নিজেদের বক্সে বারিধারার খালেকুজ্জামান সবুজকে ফাউল করলে পেনাল্টি পায় বিজয়ীরা। পেনাল্টি শটে সবুজ সহজেই মোহামেডান গোলরক্ষক নেহালকে পরাস্ত করেন (১-০)। শেষ পর্যন্ত এই ব্যবধানের জয়েই মোহামেডানকে লজ্জায় ডুবিয়ে মাঠ ছাড়ে উত্তর বারিধারা।
একই ভেন্যুতে সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত দিনের অন্য ম্যাচে আরেক তলানীর দল শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র ১-০ গোলে হারায় শিরোপা প্রত্যাশী শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবকে। বিজয়ী দলের হয়ে একমাত্র গোলটি করেন ডিফেন্ডার নাসিরুল ইসলাম নাসির। এই জয়ে শেখ রাসেল ১১ ম্যাচে ৮ পয়েন্ট পেয়ে তালিকার এগারোতম স্থানে উঠে আসলো। সমান ম্যাচে ১৯ পয়েন্ট নিয়ে শেখ জামালের অবস্থান চতুর্থস্থানে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন