শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২২, ১৪ মাঘ ১৪২৮, ২৪ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

করোনায় কম মৃত্যুতে বাংলাদেশ বিশ্বে তৃতীয়

বস্তিতে টিকাদান শুরু আজ সাংবাদিকদের স্বাস্থ্যমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৬ নভেম্বর, ২০২১, ১২:০০ এএম

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, বাংলাদেশে করোনা পরিস্থিতির উন্নতি সন্তোষজনক। তিনি বলেন, গত সাত দিনে করোনায় কম মৃত্যুর দিক থেকে বাংলাদেশের অবস্থান বিশ্বে তৃতীয়। প্রথম স্থানে আছে চীন, এরপর আছে জাপান।

গতকাল রাজধানীর মহাখালী বিসিপিএস মিলনায়তনে টিকা বহনের জন্য ফ্রিজারভ্যান হস্তান্তর অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা জানান।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, গত সাত দিন আড়াই হাজার মানুষ ভারতে মারা গেছেন, ভিয়েতনামে ৪৪০ জন এবং থাইল্যান্ডে মারা গেছেন ৪৫৩ জন। সেখানে বাংলাদেশে ২৭ জন মারা গেছেন। আমি এও দেখেছি, জনবহুল দেশগুলোর মধ্যে মৃত্যুর হার কম কোথায় আছে। জাপানে হচ্ছে শূণ্য দশমিক ১ শতাংশ, এরপরই বাংলাদেশে শূণ্য দশমিক ২ শতাংশ। সবার ওপরে আছে চীন, শূন্য শতাংশ। আর বড় জনগোষ্ঠীর বাকি সব দেশে মৃত্যুহার বেশি।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, করোনার কারণে পৃথিবীর অর্থনীতি মাইনাসে চলে গেছে। দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় মাইনাস ২ দশমিক ৫, ইউরোপ শুধু ৫-৬ প্লাসে আছে। আমাদের এখানে করোনা নিয়ন্ত্রণে ছিল বলে সঠিক পদক্ষেপ নেয়া সম্ভব হয়েছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক জানিয়েছেন, রাজধানীর বস্তিবাসীদের আজ মঙ্গলবার থেকে করোনাভাইরাসের টিকা দেয়া শুরু হবে। জাহিদ মালেক বলেন, করাইল বস্তিতে টিকা দেয়া শুরু হবে। পরে ঢাকার অন্যান্য বস্তি এবং দেশের বড় শহরের বড় বস্তিগুলোও পর্যায়ক্রমে টিকার আওতায় আসবে। বস্তিতে দেয়া হবে সিনোফার্মের টিকা। করাইল ঢাকার সবচেয়ে বড় বস্তি। সেখানে তিন লাখের বেশি লোক বাস করে। তাদের টিকার আওতায় আনা হবে। নিবন্ধন করা না থাকলেও টিকাকেন্দ্রে জন্মনিবন্ধন বা জাতীয় পরিচয়পত্র নিয়ে এলে টিকা দেয়া হবে বলে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান।

পরে স্বাস্থ্য অধিদফতরের সম্প্রসারিত টিকাদান কর্মসূচির প্রধান প্রফেসর ডা. শামসুল হক সাংবাদিকদের বলেন, গণটিকাদান কর্মসূচির আওতায় ঢাকার বস্তিতে টিকা দেয়া হয়েছিল। কিন্তু অনেকেই নিতে পারেননি, তাদের এখন টিকা দেয়া হবে। আজ মঙ্গলবার সকাল থেকে বনানীর করাইলের পল্লীবন্ধু এরশাদ শিশু কল্যাণ প্রাথমিক বিদ্যালয়ে টিকা দেয়া হবে বলেও তিনি জানান।

অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক জানান, যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে চারটি ফ্রিজার ভ্যান পাওয়া গেছে; আরও ১৪টি ভ্যান পাওয়ার কথা রয়েছে। এসব ভ্যানে মাইনাস ৭০ ডিগ্রি তাপমাত্রায় টিকা পরিবহন করা যাবে। দেশের বিভিন্ন জেলায় ফাইজারের টিকা সরবরাহে এসব ফ্রিজার ভ্যান ব্যবহার করা হবে।

অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক প্রফেসর ডা. এবিএম খুরশীদ আলম, মার্কিন দূতাবাসের অ্যাক্টিং ডেপুটি চিফ অব মিশন উইলিয়াম ডোয়ার্স, ইউএসএআইডি মিশন ডিরেক্টর ক্যাথেরিন স্টিভেনস, বাংলাদেশ রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল আবদুল ওয়াহাবসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন