সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ১০ মাঘ ১৪২৮, ২০ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

পুরনো নিয়মেই ফিরল আইসিসি

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ নভেম্বর, ২০২১, ১২:০৭ এএম

ক্রিকেট বিশ্বকাপ সুপার লিগ দিয়ে বাছাইয়ের কাজ শেষ এক আসরেই। আবারও পুরোনো নিয়মে ফিরে যাচ্ছে আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপের বাছাই-প্রক্রিয়া। ২০২৭ সালের চক্রে আর থাকছে না বিশ্বকাপ সুপার লিগের নিয়ম। ফলে র‌্যাঙ্কিংভিত্তিক বাছাইয়ের সঙ্গে বৈশ্বিক বাছাইপর্বের মাধ্যমে বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ পাবে দলগুলো। র‌্যাঙ্কিং থেকে সরাসরি ১০ দল খেলবে আফ্রিকায় হতে যাওয়া আসরে। বাকি চার দল আসবে প্রথাগত বাছাই পর্ব পেরিয়ে। গতপরশু শেষ হওয়া বোর্ড সভায় বাছাইয়ে এই পরিবর্তন এনেছে আইসিসি। গতকাল এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, মহিলা ক্রিকেট পাচ্ছে প্রথম শ্রেণি ও লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটের মর্যাদা।
ভারতে হতে যাওয়া ২০২৩ বিশ্বকাপকে লক্ষ্য করে তিন বছর মেয়াদী প্রথম সুপার লিগে খেলছে ১৩টি দল। ১২টি টেস্ট খেলুড়ে দেশের সঙ্গে অংশ নিয়েছে ২০১৫-১৭ আইসিসি ওয়ার্ল্ড ক্রিকেট লিগের বিজয়ী দল নেদারল্যান্ডস। প্রতিটি দল এই সময়ে খেলবে আটটি করে সিরিজ; চারটি দেশের মাটিতে, চারটি প্রতিপক্ষের মাঠে। প্রতিটি সিরিজ হবে তিন ম্যাচের। শীর্ষ সাত দল সরাসরি অংশ নেবে ২০২৩ সালের অক্টোবর-নভেম্বরে ভারতে অনুষ্ঠেয় বিশ্বকাপে। ভারত সরাসরি খেলবে স্বাগতিক হিসেবে।
বিশ্বকাপ বাছাইয়ের অংশ হওয়ায় এই দ্বি-পাক্ষিক সিরিজগুলো পাচ্ছে বাড়তি গুরুত্বপ‚র্ণ। একেকটি ম্যাচ থেকে ১০ পয়েন্ট করে পাওয়ার সুযোগ থাকায় প্রতিটি ম্যাচই সমান গুরুত্বপ‚র্ণ। সিরিজ নিষ্পত্তি হয়ে গেলেও আদতে ¯্রফে নিয়মরক্ষার কোনো ম্যাচ নেই। ২০২৩ বিশ্বকাপে খেলবে ১০ দল, পরের আসরে বাড়বে আরও চারটি। বাছাইয়ে পরিবর্তন আনার পেছনে দল বাড়ার ভ‚মিকা থাকার কথা জানিয়েছে আইসিসি।
২০২৭ বিশ্বকাপের বাছাইয়ের জন্য প্রধান নির্বাহীদের কমিটির দেওয়া প্রস্তাব আইসিসি বোর্ড গ্রহণ করেছে। আগে থেকে ঠিক করে রাখা একটি তারিখে ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ ১০-এ থাকা দলগুলো জায়গা পাবে বিশ্বকাপে। বাকি দলগুলোর আসতে হবে বাছাই পর্ব পেরিয়ে। আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে খেলতে জিম্বাবুয়ে, আফগানিস্তান ও আয়ারল্যান্ডের অপেক্ষা আরও বাড়ছে। নয় দলের চলমান দুই বছর মেয়াদী প্রতিযোগিতা চালু রাখার ব্যাপারে মত দিয়েছে আইসিসি বোর্ড।
ছেলেদের ক্রিকেটে যেভাবে শ্রেণি বিভাগ করা হয়, মেয়েদের ক্রিকেটেও সেভাবেই প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট ও লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটের মর্যাদা দেওয়ার অনুমোদন দিয়েছে আইসিসি বোর্ড। অতীতের ম্যাচগুলোর পরিসংখ্যানও এতে যুক্ত হবে। আইসিসি নারী ক্রিকেট কমিটি নারী ক্রিকেটের সকল সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে এবং সরাসরি প্রধান নির্বাহীদের কমিটিকে রিপোর্ট করবে। ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জনি গ্রেভকে নারী ক্রিকেট কমিটিতে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন