সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ১০ মাঘ ১৪২৮, ২০ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

মালয়েশিয়ায় গ্রেফতার আতঙ্কে বাংলাদেশিরা

বৈধকরণের শেষ সময় ৩১ ডিসেম্বর

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৯ নভেম্বর, ২০২১, ১২:০২ এএম

মালয়েশিয়ায় কর্মরত বাংলাদেশি কর্মীরা গ্রেফতার আতঙ্কে ভুগছেন। দেশটিতে অবৈধ অভিবাসী কর্মীদের ধরপাকড় অব্যাহত থাকায় বাংলাদেশি কর্মীর চরম উৎকন্ঠায় দিন কাটাচ্ছে। মালয়েশিয়া সরকারের অবৈধ অভিবাসীদের বৈধকরনের সময় সীমা আগামী ৩১ ডিসেম্বর শেষ হয়ে যাচ্ছে। আগামী ১ জানুয়ারি থেকে দেশটিতে অবৈধ অভিবাসীদের বিরুদ্ধে সাড়াশি অভিযান শুরু হবে বলেও আভাস পাওয়া গেছে।
মালয়েশিয়া এনফোর্সমেন্ট ডিভিশন গত ১৭ নভেম্বর রয়েল পুলিশ ও ইমিগ্রেশন ডিপার্টমেন্ট এর যৌথ অভিযান পরিচালনা করে রাজধানী কুয়ালালামপুর কাম পুং বারু এলাকায়। অপারেশন পরিচালনার সময় অত্র এলাকায় বসবাসরত ১৬৯ জন অভিবাসীকে চেক করা হয়। তার মধ্যে ৩৬ জন বিদেশি নাগরিকদের বৈধ ভিসা না থাকায় আটক করা হয়। অভিবাসন আইনের আওতায় আটকৃতদের মধ্যে ১ জন বাংলাদেশি পুরুষ, মিয়ানমার পুরুষ ৫ ও ১ জন মহিলা, ইন্দোরনেশিয়া পুরুষ ১১ ও ১৮ জন মহিলা। একই দিনে পৃথক দীর্ঘ অভিযানে বাংলাদেশিসহ ৯৫ জন অবৈধ অভিবাসীকে আটক করা হয়েছে। আটকদের মধ্যে ৫২ জন পুরুষ ও ৪৩ জন নারী রয়েছেন বলে উল্লেখ করেছেন ইমিগ্রেশন ডিপার্টমেন্ট এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইট। তবে কতজন বাংলাদেশিকে গ্রেফতার করেছে তা উল্লেখ করেনি ইমিগ্রেশন ডিপার্টমেন্ট। কুয়ালালামপুর থেকে প্রবাসী সাংবাদিক এম এ আবির এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
স্থানীয় সময় মঙ্গলবার গভীর রাতে দেশটির জালান দেওয়ান সুলতান সুলাইমান-১ এর পাঁচতলা দোকানঘরে অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করে দেশটির ইমিগ্রেশন পুলিশ। তবে বৈধ ভিসা থাকায় ১৫০ জন অভিবাসীর মধ্যে ৫৫ জনকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। ইমিগ্রেশন অভিযান পরিচালনা শেষ করে সাংবাদিকদের কুয়ালালামপুর ফেডারেল টেরিটরি ইমিগ্রেশন ডিরেক্টর স্যামসুল বদরিন মহসিন জানিয়েছেন, আটকরা ইন্দোনেশিয়া, বাংলাদেশ, নেপাল ও পাকিস্তানের নাগরিক। আটকৃতরা বেশিরভাগই নির্মাণ শ্রমিক হিসেবে কাজ করছিল। তাদের অনেকের পাসপোর্টের মেয়াদ শেষ হয়ে গিয়েছে এবং কারো কারো কাছে কোনো বৈধ ভিসা ছিল না। আটকৃত অবৈধ অভিবাসীদের বুকিত জলিল ইমিগ্রেশন ডিপোতে রাখা হয়েছে। গ্রেফতারকৃত অবৈধ অভিবাসীদের সম্পূর্ণ তদন্ত শেষ হলে আইন অনুয়ায়ী পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন