রোববার, ২৩ জানুয়ারী ২০২২, ০৯ মাঘ ১৪২৮, ১৯ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

সরকারি কর্মীদের বেতন দেয়া শুরু করেছে তালেবান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২২ নভেম্বর, ২০২১, ১২:০৯ এএম

আগস্টে আফগানিস্তানের ক্ষমতায় আসার পর থেকেই শূণ্য কোষাগারের কারণে অর্থ সঙ্কটে পড়ে তালেবান। সমস্যা আরো বৃদ্ধি পায় যুক্তরাষ্ট্র বেআইনিভাবে আফগানিস্তানের বৈদেশিক তহবিল আটকে দেয়ায়। ফলে সরকারি কর্মীদের কয়েক মাসের বেতন আটকে যায়। তবে এবার তালেবান কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, শনিবার থেকে সরকারি কর্মীদের বকেয়া বেতন দেয়া শুরু হয়েছে।

আফগানিস্তানের বেশির ভাগ সরকারি কর্মী এখনো কাজে ফিরতে পারেননি। তালেবানরা ক্ষমতা দখলের আগেও কয়েক মাস ধরে এসব কর্মী তাদের মাসিক বেতন পাচ্ছিলেন না। বিশেষ করে গ্রামীণ এলাকায় যেসব সরকারি কর্মী কাজ করতেন, তাঁদের কয়েক মাসের বেতন আটকে ছিল। শনিবার সংবাদ সম্মেলনে আফগানিস্তানের অর্থ মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আহমাদ ওয়ালি হাকমাল বলেন, ‘আজ থেকে আমরা বেতন দেয়া শুরু করছি। প্রথমে তিন মাসের বেতন দেয়া হবে।’ হাকমাল জানিয়েছেন, ২৩ আগস্টকে হিসাবে ধরে বেতন দেয়া হবে। তবে কিছু সরকারি কর্মী তালেবান ক্ষমতায় আসার কয়েক মাস আগেরও বেতন পাবেন। ব্যাংকের মাধ্যমে বেতন দেয়া হবে জানিয়ে তিনি বলেন, আগের সরকারের পতনের পর থেকে ব্যাংকিং ব্যবস্থা ‘পঙ্গু’ হয়ে যায়নি। হাকমালের দাবি, ‘ব্যাংকিং ব্যবস্থাকে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে কিছু সময় লাগল।’ এএফপি জানিয়েছে, বেতন পাওয়া শুরু করলেও আফগানিস্তানের সরকারি কর্মীরা অবশ্য এখনই তাদের বেতনের পুরোটা তুলতে পারছেন না।

আগস্ট থেকে আফগানিস্তানের ব্যাংকিং খাত অচল হয়ে পড়ে। ব্যাংকে যাদের আমানত ছিল, তাদেরও ব্যাংক থেকে টাকা তুলতে অনেকে সংগ্রাম করতে হয়েছে। ব্যাংকগুলো সপ্তাহে ২০০ থেকে ৪০০ মার্কিন ডলার সমপরিমাণ অর্থ উত্তোলনের সীমা টেনে দেয়ার এমন সঙ্কট তৈরি হয়েছিল। যুক্তরাষ্ট্রে গচ্ছিত আফগানিস্তানের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ আটকে দেয়ায় (ফ্রিজ) দেশটির আর্থিক খাত নগদ অর্থের এই সঙ্কটে পড়ে। এ ছাড়া বিশ্বব্যাংক এবং আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ) তাদের বরাদ্দে তালেবানের প্রবেশাধিকার আটকে দেয়ায় পরিস্থিতির আরও অবনতি ঘটে। সূত্র : রয়টার্স, এএফপি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন