মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২, ১১ মাঘ ১৪২৮, ২১ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

পরীক্ষায় অংশগ্রহণের দাবিতে নার্সিং কাউন্সিল অবরোধ

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৩ নভেম্বর, ২০২১, ১২:০৩ এএম

পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগের দাবিতে নার্সিং ও মিডওয়াইফারী কাউন্সিল (বিএনএমসি) অবরোধ করেছে নার্সিং শিক্ষার্থীরা। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফ্যাকাল্টি অব মেডিসিন বিভাগের অধিভুক্ত বিএসসি ইন নার্সিং কোর্সে সদ্য পাশ করা শিক্ষার্থীরা গতকাল দিনভর বিএনএমসি’র রেজিস্ট্রার সুরাইয়া বেগমকে তার কার্যলয়ে অবরুদ্ধ করে রাখেন। বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীদের দাবি আগামী ২৬ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া কাউন্সিল পরীক্ষায় অংশ নেয়ার সুযোগ থাকলেও বিএনএমসি তা দিচ্ছেনা। যথা সময়ে কাউন্সিল পরীক্ষা দিতে না পারলে ৮০০ শিক্ষার্থী দীর্ঘসময় চাকরিতে আবেদেনর সুযোগ থেকে বঞ্চিত হবেন।

এ সময় শিক্ষার্থীরা বলেন, আমরা ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনস্থ প্রতিষ্ঠান থেকে বিএসসি নার্সিং পাশ করি। করোনার কারণে একবছর সেশন জটে পড়তে হয়। পরীক্ষার ফল প্রকাশে দেরি হওয়ায় কাউন্সিল আবেদন করতে পারি নাই। রেজাল্ট হওয়ার পর বিএনএমসি’তে যোগাযোগ করলে আমাদের সনদপত্র নিয়ে আসতে বলা হয়। কিন্তু সনদপত্র নিয়ে আসার পর তারা নানা অজুহাত দেখায়। এদিকে আগামী ২৬ নভেম্বর নার্সিং কাউন্সিলের পরীক্ষা নেয়া হবে। পরীক্ষায় অংশ নিতে গত ১৪ নভেম্বর রেজিস্ট্রার বরাবর আবেদন করলেও তা গ্রহন করে নাই। বৈধ সনদ থাকার পরও শুধুমাত্র বিএনএমসি কর্তৃপক্ষের অবহেলায় এবছর কাউন্সিল পরীক্ষায় বসতে পারছে না তারা। শিক্ষাথীরা বলেন, পরীক্ষা অংশ নেয়ার জন্য তারা বেশ কয়েকদিন ধরে বিএনএমসি’তে যোগাযোগ করছেন। অন্যান্য দিনের মত গতকাল সোমবার সকাল দশটায় ৩০০ শিক্ষার্থী রেজিস্ট্রারের সঙ্গে দেখা করতে আলসে তাদের বলা হয় ম্যাডাম অফিসে নেই। পরে খোঁজ নিয়ে জানা যায় তিনি বাইরে থেকে তালা দিয়ে ভিতরে অফিস করছেন। পরবর্তীতে অনেক চেষ্টার পর তার (রেজিস্ট্রার) সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও আমাদের সঙ্গে কথা বলবে না বলে জানান। ফলে বাধ্য হয়েই তারা (শিক্ষার্থীরা) বিএনএমসি ঘেরাও করেন। পরে আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনী (পুলিশ) আসলে রেজিস্ট্রার কথা বলতে রাজি হন। রেজিস্টার সুরাইয়া বেগম জানান, তিনি সচিবের সঙ্গে মিটিং করবেন। পরীক্ষায় সুযোগ দিতে এখনি দরখাস্ত পাঠাবেন। তাৎক্ষণিক শিক্ষার্থী প্রতিনিধি নিয়ে মিটিং করারও আাশ্বাস দেন। কিন্তু পরক্ষণে কোনো কথা না বলে, কোন ব্যবস্থা না নিয়েই অফিস থেকে বেড়িয়ে যান।
যেহেতু পরীক্ষার ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত দেননি, তাই বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীরা রেজিস্ট্রারের গাড়ির সামনে শুয়ে পড়েন। আন্দোলনের মূখে পড়ে উনি নিজ কক্ষে ফিরতে বাধ্য হন। তবে পরীক্ষায় অংশ গ্রহণের বিজ্ঞপ্তি না পাওয়া পর্যন্ত আমাদের বিএনএমসি’তে অবস্থান কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে বলে শিক্ষাথীরা জানান।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন