শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৮ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

স্বাধীনতা কাপে ভিন্ন গ্রুপে মোহামেডান-আবাহনী

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৪ নভেম্বর, ২০২১, ১২:০০ এএম

কোন গ্রুপে কারা
‘এ’ গ্রুপ : ঢাকা আবাহনী, রহমতগঞ্জ ও স্বাধীনতা সংঘ
‘বি’ গ্রুপ : শেখ জামাল, শেখ রাসেল, উত্তর বারিধারা ও বাংলাদেশ বিমানবাহিনী
‘সি’ গ্রুপ : সাইফ স্পোর্টিং, মোহামেডান, মুক্তিযোদ্ধা ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনী
‘ডি’ গ্রুপ : বসুন্ধরা কিংস, চট্টগ্রাম আবাহনী, পুলিশ ও বাংলাদেশ নৌবাহিনী

দীর্ঘ তিন বছর আলোর মুখ দেখেনি ঘরোয়া ফুটবলের অন্যতম টুর্নামেন্ট স্বাধীনতা কাপ। এই টুর্নামেন্ট সর্বশেষ মাঠে গড়িয়েছিল ২০১৮ সালে। এরপর সারা বিশ্বে প্রাণঘাতি করোনাভাইরাস জেঁকে বসায় বন্ধ হয়ে যায় সব খেলাধুলা। এ ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ ফুটবলের ঘরোয়া আসরগুলোও বন্ধ থাকে। করোনার কারণে স্বাধীনতা কাপ টানা আয়োজন করা সম্ভব না হলেও এবার ঠিকই মাঠে গড়াচ্ছে এ টুর্নামেন্ট । দেশের ঘরোয়া ফুটবলের নতুন মৌসুম দোরগোড়ায়। স্বাধীনতা কাপ দিয়ে এবার মাঠে গড়াচ্ছে নতুন ফুটবল মৌসুম। আগামী শনিবার থেকে কমলাপুরস্থ বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে শুরু হতে যাচ্ছে এই টুর্নামেন্টের খেলা। ফাইনালের মধ্যদিয়ে আগামী ১৮ ডিসেম্বর শেষ হবে স্বাধীনতা কাপ। এবারে আসরে খেলছে ১৫টি দল। টুর্নামেন্টকে সামনে রেখে গতকাল দুপুরে মতিঝিলস্থ বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে) ভবনে অনুষ্ঠিত হলো গ্রæপ নির্ধারাণী ড্র ও লোগো উন্মাচন অনুষ্ঠান। ড্র অনুযায়ী দেশের তিন জায়ান্ট মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব, আবাহনী লিমিটেড ও বসুন্ধরা কিংস পড়েছে ভিন্ন গ্রæপে।
ঢাকা আবাহনী ১৯৯০ সালে একবারই স্বাধীনতা কাপ চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। তারা ২০১৬ সালে হয়েছিল রানার্সআপ। এবারের টুর্নামেন্টে ঢাকা আবাহনীর জায়গা হয়েছে ‘এ’ গ্রæপে। এই গ্রæপে তাদের সঙ্গে আছে রহমতগঞ্জ মুসলিম ফ্রেন্ডস সোসাইটি ও প্রিমিয়ার লিগের নতুন দল স্বাধীনতা ক্রীড়া সংঘ। ‘বি’ গ্রæপে খেলছে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র, শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব, উত্তর বারিধারা ক্লাব ও বাংলাদেশ বিমান বাহিনী দল। গ্রæপ ‘সি’তে পড়েছে টুর্নামেন্টের সবচেয়ে সফল দল মোহামেডান। তারা সর্বশেষ এ টুর্নামেন্টের শিরোপা জিতেছে ২০১৪ সালে। স্বাধীনতা কাপের তিনবারের চ্যাম্পিয়ন মোহামেডান ছাড়া এই গ্রæপের অন্য তিন দল হলো সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। আর ‘ডি’ গ্রæপে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কিংসের সঙ্গে আছে ২০১৬ সালের চ্যাম্পিয়ন চট্টগ্রাম আবাহনী, বাংলাদেশ পুলিশ ও নৌবাহিনী দল। চার গ্রæপের চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ দল খেলবে টুর্নামেন্টের কোয়ার্টার ফাইনালে। শেষ আটের সেরা চার দল খেলবে সেমিফাইনাল এবং সেমির শীর্ষ দুই শিরোপা নির্ধরাণী ম্যাচ খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন