শুক্রবার, ১৯ আগস্ট ২০২২, ০৪ ভাদ্র ১৪২৯, ২০ মুহাররম ১৪৪৪

আন্তর্জাতিক সংবাদ

বাতাস ছাড়াই চলবে চাকা!

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১ ডিসেম্বর, ২০২১, ১২:০২ এএম

চলতে চলতে মাঝ রাস্তায় যদি গাড়ির চাকা পাংচার হয়ে যায়! গন্তব্যে পৌঁছনোর আগেই ছুটতে হবে গ্যারাজে। কিন্তু চাকায় যদি বাতাসই না থাকে, তাহলে তো পাংচার হওয়ার প্রশ্নও আসত না। ফলে, ঝঞ্ঝাটমুক্ত হয়েই গন্তব্যে পৌঁছনো যেত।

চাকার মধ্যে নির্দিষ্ট চাপে বাতাস ভরে তা ব্যবহার করা হয় গাড়ির চাকা হিসাবে। মসৃণভাবে গাড়ি চলাচলের জন্য চাকায় বাতাসের চাপ নির্দিষ্ট রাখাটা জরুরি। তবে, বাতাস ছাড়া কি এত মসৃণভাবে চলতে পারবে গাড়ি? এ প্রশ্ন মনে আসা স্বাভাবিক। সেই অসম্ভবই এবার সম্ভব হতে চলেছে। বাতাস ছাড়া চাকা আসতে চলেছে বাজারে। অত্যাধুনিক এ চাকা বাতাস ছাড়াই এবড়ো-খেবড়ো রাস্তাতেও বিনা বাধায় এগিয়ে যেতে পারবে। এর নাম ফ্ল্যাট-ফ্রি টায়ার। সম্পূর্ণ বাতাস ছাড়া হবে এই চাকা। এমন চাকা যা কখনও পাংচার হয় না। তবে এই প্রথম যে এ রকম হাওয়া ছাড়া চাকা বাজারে আসতে চলেছে তা বললে একটু ভুলই বলা হয়। অনেক সাইকেল, হুইলচেয়ার বা বাড়ি ভাঙার বড় গাড়িতে এমন চাকা লাগানো থাকে। তবে এখনও পর্যন্ত ব্যক্তিগত গাড়ি বা রাস্তাঘাটে দেখা যাওয়া অন্য গাড়িগুলোতে এমন চাকার প্রচলন হয়নি।

আন্তর্জাতিক এক চাকা প্রস্তুতকারক সংস্থা এটি বাজারে আনতে চলেছে। সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে ২০২৪ সালের মধ্যেই তা বাজারে চলে আসবে। সংস্থার দাবি, সাধারণ চাকার থেকে এর আয়ুও অনেক বেশি হবে। ফলে ঘন ঘন টায়ার বদলানো বা তার মেরামতির জন্য অতিরিক্ত খরচ বইতে হবে না। এই চাকা তুলনামূলক বেশি ভার বহনেও সক্ষম। অনেক খারাপ রাস্তাতেও সহজে চলাচল করতে পারে। তবে সুবিধার পাশাপাশি কিছু অসুবিধাও রয়েছে এর। ঘর্ষণে প্রচুর পরিমাণ তাপ উৎপন্ন হয়ে থাকে। সেই তাপ রোধ করার ক্ষমতা তুলনামূলক কম এই চাকায়। তা ছাড়াও এর আর একটি অসুবিধা হল এই চাকায় চলা গাড়ি ঘণ্টায় ৮০ কিলোমিটারের বেশি গতিতে চললে ঝাঁকুনির আশঙ্কা থাকে। এই সমস্ত সমস্যা থেকে কী ভাবে মুক্তি পাওয়া যায় শেষ পর্যায়ে এরই কাজ করছে সংস্থাটি। সূত্র : বিজনেস ওয়্যার।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন