বৃহস্পিতবার, ১৮ আগস্ট ২০২২, ০৩ ভাদ্র ১৪২৯, ১৯ মুহাররম ১৪৪৪

আন্তর্জাতিক সংবাদ

ইউক্রেন নিয়ে রুশ-মার্কিন উত্তেজনা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২ ডিসেম্বর, ২০২১, ১২:০২ এএম

ইউক্রেনের বিরুদ্ধে রাশিয়ার যে কোনো নতুন সামরিক আগ্রাসনের জন্য মস্কোকে চড়া মূল্য দিতে হবে বলে সতর্ক করেছে যুক্তরাষ্ট্র ও তাদের নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট নেটো। ইউক্রেন সীমান্তে রাশিয়ার বিপুল সৈন্য সমাবেশের সম্ভাব্য উদ্দেশ্য নিয়ে পশ্চিমা সামরিক জোটটির বৈঠকের মধ্যেই মঙ্গলবার তারা এ সতর্কবার্তা দেয় বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। এ বার্তার প্রতিক্রিয়ায় রুশ প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিনও পাল্টা হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র নেতৃত্বাধীন নেটো যদি মস্কোতে কয়েক মিনিটের মধ্যে আঘাত হানতে সক্ষম এমন ক্ষেপণাস্ত্র ইউক্রেইনে বসায় তাহলে রাশিয়াও পাল্টা ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হবে। সাবেক সোভিয়েত প্রজাতন্ত্র ইউক্রেন এখন ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন ও নেটোতে ঢুকতে আগ্রহী; সা¤প্রতিক বছরগুলোতে প্রতিবেশী এ দেশটিকে নিয়ে রাশিয়ার সঙ্গে পশ্চিমাদের সম্পর্ক স্নায়ুযুদ্ধ পরবর্তী সবচেয়ে খারাপ পর্যায়ে গেছে। “ইউক্রেন রাষ্ট্রের স্বাধীনতার বিরুদ্ধে রাশিয়া যদি ফের একবার শক্তির প্রয়োগ ঘটায়, তাহলে এর জন্য তাদের চড়া মূল্য দিতে হবে,” সাংবাদিকদের এমনটাই বলেছেন নেটো মহাসচিব জেনারেল জেনস স্টল্টেনবার্গ। একই সুরে কথা বলেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি বিøনকেনও। তিনি বলেন, “উত্তেজনা বাড়াবে রাশিয়ার এমন যে কোনো পদক্ষেপ যুক্তরাষ্ট্রের জন্য গভীর উদ্বেগের হবে. আর নতুন করে কোনো আগ্রাসন চালানো হলে তার পরিণতি হবে ভয়াবহ।” গত কয়েক সপ্তাহ ধরে ইউক্রেনকে ঘিরে উত্তেজনার পারদ চড়ছে। রাশিয়া, ইউক্রেন ও নেটো সবাই সামরিক মহড়া করেছে এবং কারা মূল আগ্রাসনকারী তা নিয়ে একে অপরকে দোষারোপও করে চলেছে। পুতিন এ প্রসঙ্গে আগের চেয়েও কড়া বক্তব্যে ইউক্রেন নিয়ে মস্কোর ‘লাল দাগের’ সীমা উল্লেখ করে বলেছেন, নেটো যদি প্রতিবেশী দেশের মাটিতে অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থাপনা মোতায়েন করে তাহলে বাধ্য হয়ে রাশিয়াকে পাল্টা ব্যবস্থা নিতে হবে। “হামলা চালাতে সক্ষম এমন ব্যবস্থাপনা ইউক্রেনের ভ‚খÐে থাকলে ক্ষেপণাস্ত্রের মস্কোতে উড়ে আসতে ৭ থেকে ১০ মিনিট লাগবে, আর যদি হাইপারসনিক অস্ত্র মোতায়েন করা হয় তাহলে লাগবে ৫ মিনিটি। ব্যাপারটি কেবল কল্পনা করে দেখুন। “এরকম পরিস্থিতিতে আমরা কী করবো? যারা আমাদের এভাবে হুমকি দেবে তাদের জন্য আমাদেরও তখন একই ধরনের কিছু একটা ব্যবস্থা নিতে হবে। আর আমরা সেটা এখনই পারি,” রুশ হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রের সা¤প্রতিক পরীক্ষার দিকে ইঙ্গিত করে বলেন পুতিন। রুশ প্রেসিডেন্ট জানান, তাদের হাইপারসনিক অস্ত্রটি শব্দের ৯ গুণ গতিতে উড়ে গিয়ে লক্ষ্যে আঘাত হানতে সক্ষম। রাশিয়ার ক্রমবর্ধমান হুমকি নিয়ে লাটভিয়ার রাজধানী রিগাতে মঙ্গলবার থেকে নেটোর পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের দুদিনের বৈঠক শুরু হয়েছে। এ বৈঠকে বিøনকেন জোটের অপর ২৯ দেশকে রাশিয়ার পদক্ষেপ নিয়ে ওয়াশিংটনের গোয়েন্দা মূল্যায়ন অবহিত করবেন। এদিকে ইউক্রেনের প্রধানমন্ত্রী ডেনিস স্মাইহল রাশিয়ার বিরুদ্ধে কিয়েভের নির্বাচিত সরকারকে উৎখাতচেষ্টার অভিযোগ এনেছেন। ক্রেমলিন এই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে। গত সপ্তাহে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভ্লদিমির জেলেনস্কিও অভ্যুত্থানের চেষ্টা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছিলেন; এর জন্য একদল রুশ ও ইউক্রেইনের নাগরিকের বিরুদ্ধে অভিযোগ করলেও সরাসরি মস্কোকে দোষারোপ করেননি তিনি। স্মাইহল বলেছেন, ইউক্রেন যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে আরও অস্ত্র চাইতে পারে। কিয়েভের এমন পদক্ষেপের ব্যাপারেই পুতিন সুনির্দিষ্টভাবে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। রয়টার্স, বিবিসি।

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন