বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারী ২০২২, ০৬ মাঘ ১৪২৮, ১৬ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

বঙ্গবন্ধু চত্বর এলাকায় পথচারীবান্ধব সড়ক পরিকল্পনা করা হবে

সাংবাদিকদের ডিএসসিসি মেয়র

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২ ডিসেম্বর, ২০২১, ১২:০০ এএম

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস বলেছেন, বঙ্গবন্ধু চত্বর এলাকার অলি-গলি বিবেচনায় নিয়ে পথচারীবান্ধব সড়ক পরিকল্পনার উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে। এখানে যদিওবা আগে থেকেই পাতালে দিয়ে পথচারী চলাচলের ব্যবস্থা করা হয়েছিল কিন্তু সেই পথচারী পারাপার বিভিন্নভাবে দখলের কারণে অকার্যকর হয়ে আছে। যার কারণে সাধারণ যাত্রী ও জনগণ নিচে নেমে পারাপার না করে রাস্তার উপর দিয়েই পারাপার করতে বাধ্য হয়। এজন্য আমাদেরকে নতুনভাবে চিন্তা করতে হচ্ছে।
গতকাল বুধবার সাপ্তাহিক নিয়মিত পরিদর্শন কার্যক্রমের অংশ হিসেবে ডিএসসিসি মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস করপোরেশনের ময়লারবাহী গাড়ি দ্বারা নিহত নটরডেম কলেজের শিক্ষার্থী নাঈম হাসানের দুর্ঘটনাস্থলে ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণের সম্ভাব্য স্থান পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।
মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস বলেন, আমাদেরকে বিশেষজ্ঞ মহলের মাধ্যমে পরিপূর্ণ ট্রাফিক ম্যানেজমেন্ট এন্ড ট্রান্সপোর্ট প্লানিংয়ের মাধ্যমে সুদূরপ্রসারী চিন্তা করতে হবে। শুধুমাত্র একটা কিছু করে ফেললে তা কাজে দিবে না। আমরা চাই কার্যকর ব্যবস্থা। যত দিন যাবে এই এলাকায় যান চলাচল ততই বাড়বে। হকাররা পথচারী চলাচলের পথ দখল করে রাখে এমন প্রশ্নের জবাবে ডিএসসিসি মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস বলেন, যে কোন শহরেরই একটি বড় সমস্যা হাঁটার পথ, রাস্তাগুলো দখল হয়ে যায়। বিভিন্ন স্বার্থান্বেষী মহল ও হকাররা এগুলো দখল করে থাকে। এটাও কিন্তু সুদূরপ্রসারি পরিকল্পনা নিতে হবে। আমরা লক্ষ করেছি হকারদেরকে একদিকে উঠালে তারা নতুন করে আবার জায়গা নিয়ে নেয়। তাদের পূর্নবাসনও কিন্তু চিন্তা করতে হয়। আমি দায়িত্ব নেয়ার পরেই এই বিষয়টা আমার নজরে আসে যে, আমাদের পর্যাপ্ত গাড়ি চালক নেই।
এর আগে ডিএসসিসি মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস নগরীর ৫৬ নং ওয়ার্ডে অন্তবর্তীকালীন বর্জ্য স্থানান্তর কেন্দ্র এবং বাস রুট রেশনালাইজেশন কার্যক্রম বাস্তবায়নে অংশ হিসেবে মতিঝিলে নির্মিত যাত্রী ছাউনি পরিদর্শন করেন। এ সময় ঢাকা-২ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদ আহাম্মদ, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা এয়ার কমডোর সিতওয়াত নাঈম, প্রধান প্রকৌশলী সালেহ আহমদ, সচিব আকরামুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন