মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২, ০৪ মাঘ ১৪২৮, ১৪ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

গাড়ি ভাঙচুর না করে শিক্ষাঙ্গনে ফিরে যাও

শিক্ষার্থীদের প্রতি প্রধানমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২ ডিসেম্বর, ২০২১, ১২:০০ এএম

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শিক্ষার্থীদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ফিরে যাওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, যানবাহন ভাঙচুর করা তাদের কাজ নয়। অপরাধীদের শাস্তির আওতায় আনতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের সর্বাত্মক প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, রাস্তায় নেমে গাড়ি ভাঙা এটা ছাত্রদের কাজ নয়, এটা কেউ করবেন না। দয়া করে যার যার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ফিরে যান, লেখাপড়া করেন। আর যারা দোষী তাদের খুঁজে বের করে অবশ্যই শাস্তি দেয়া হবে, সেটা আমরা করব।

গতকাল বিজয়ের মাসের প্রথম দিন বাংলাদেশ শিশু একাডেমীতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের একটি ম্যুরাল এবং রাজধানীর ধানমন্ডিতে নারী উদ্যোক্তাদের জন্য ১২তলা বিশিষ্ট অত্যাধুনিক ‘জয়িতা টাওয়ার’ নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী একথা বলেন। মহিলা ও শিশু মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে আয়োজিত মূল অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ভার্চুয়ালি অংশগ্রহণ করেন।

লেখাপড়া শিখে আজকের শিশুদের আগামীতে দেশের জন্য কাজ করতে হবে, উল্লেখ করে সরকার প্রধান বলেন, ভবিষ্যতের পথে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য আজকের ছেলে-মেয়েদের নিজেদের প্রস্তুত করতে হবে। রাস্তায় নেমে গাড়ি ভাঙা এটা ছাত্রদের কাজ নয়, এটা কেউ করবেন না। দয়া করে যার যার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ফিরে যান, লেখাপড়া করেন। আর যারা দোষী অবশ্যই তাদের শাস্তি দেয়া হবে। তিনি বলেন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারি বাহিনী এ ব্যাপারে অনেক সতর্ক। সঙ্গে সঙ্গেই অপরাধীদের খুঁজে বের করা হয়েছে। তা ছাড়া সবকিছুর ভিডিও ফুটেজও রয়েছে। তাই যে কোনো সময়, যে কোনো অপরাধ সংঘটনের ক্ষেত্রে তাদের ধরে ফেলা খুব একটা কঠিন কাজ নয়। আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার করেই সেটা করা হচ্ছে।

শেখ হাসিনা বলেন, ভবিষ্যতে এই গাড়ি ভাঙচুর এবং আগুন দেয়ার ঘটনা যারা ঘটাবে তাদের খুঁজে বের করা হবে, শাস্তি দেয়া হবে। কেননা, যে গাড়িতে আগুন দেয়া হচ্ছে সে গাড়িতে যদি কেউ মারা যায় বা আগুনে পুড়ে তার জন্য কঠোর শাস্তি দেয়া হবে। এ কথাও মাথায় রাখতে হবে।

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ময়লার গাড়িতে পর পর পথচারী নিহত হবার ঘটনা তিনি যথাযথভাবে তদন্ত করে দেখারও নির্দেশ দেন। তিনি বলেন, আমি এটুকুই চাই আমাদের দেশের যে উন্নয়ন আমরা করে দিচ্ছি, সেটাকে ধরে রেখে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। আজকের শিশুরা আগামী দিনের সোনার বাংলাদেশ গড়ার সৈনিক হবে।

গত সোমবার রাতে রামপুরায় গাড়ি চাপায় শিক্ষার্থী মাইনুদ্দিন ইসলাম নিহত হবার পর এর প্রতিবাদে রাজধানীতে কয়েকটি বাসে অগ্নিসংযোগ করা হয়। এর আগে ২৪ নভেম্বর নটর ডেম কলেজের শিক্ষার্থী নাঈম হাসান ও গাড়ি চাপায় নিহত হয়।

মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন্নেসা ইন্দিরার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. সায়েদুল ইসলাম বক্তৃতা করেন। বাংলাদেশ শিশু একাডেমীর চেয়ারপার্সন লাকী ইনাম এবং জয়িতা ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আফরোজা খান ও বক্তৃতা করেন। অনুষ্ঠানে জাতির পিতার ম্যুরাল এবং ‘জয়িতা টাওয়ার’-এর ওপর দু’টি ভিডিও চিত্রও পরিবেশিত হয়।

আজকের শিশুরাই হবে ‘৪১-এর উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণের কর্ণধার, উল্লেখ করে তাদের লেখাপড়া করা এবং বাবা-মা-অভিভাবকদের আদেশ মান্য করার পাশাপাশি রাস্তাঘাটে চলাচল করতে ট্রাফিক আইন মেনে চলার ও পরামর্শ দেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, এটা সকলের জন্য প্রযোজ্য রাস্তাঘাটে চলার সময় সতর্ক থাকতে হবে, ট্রাফিক আইন মেনে চলতে হবে। রাস্তার যে কোনো স্থান থেকে পারাপার হওয়া যাবে না। নির্দিষ্ট পারাপারের স্থান দিয়ে পার হতে হবে। কেননা, একটা চলমান গাড়ি ব্রেক ধরলে তার থামতে সময়ের প্রয়োজন হয়।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, হঠাৎ দৌড় দেবে আর দুর্ঘটনা ঘটবে, দুর্ঘটনা ঘটলেই রাস্তায় লোক নেমে গাড়ি ভাঙা, গাড়িতে আগুন দেয়া, গাড়ি পোড়ানো এটা কি ধরনের কথা। একটা দুর্ঘটনা ঘটেছে, তখন তাকে বাঁচানোর চেষ্টা না করে, তার সেবা না করে লাঠিসোঁটা নিয়ে নেমে পড়ল গাড়ি ভাঙা এবং আগুন দেওয়ার কাজে।

সরকার প্রধান বলেন, আমার এখানে একটা প্রশ্ন এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সমগ্র জাতির কাছেইÑ এই যে দুর্ঘটনার পর আগুন দেয়া শুরু হলো এ গাড়িতে কি নারী-শিশু বা ছাত্র-ছাত্রীরা নেই? ঐ আগুনে যারা পুড়বে, আহত হবে বা মারাও যেতে পারে তার দায়িত্ব কে নিবে? খুব স্বাভাবিক বিষয় হচ্ছে, যারা আগুন দেবে তাদের ওপরই দায় বর্তায়। তাহলে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী সংস্থাকে সেভাবেই ব্যবস্থা নিতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, একটা গাড়িতে দুর্ঘটনা ঘটে একজন মারা গেল বলে সেখানে আরো ২৫টি গাড়ি ভাঙা এবং আগুন দেয়া এটা কোন ধরনের কথা। শেখ হাসিনা বলেন, তাই আমি বলব, কেউ আইন নিজের হাতে তুলে নেবেন না। আর গাড়ি চালকদেরও আমি বলব, তাদেরও সতর্কতার সঙ্গে গাড়ি চালাতে হবে। গাড়ি চালানোর জন্য সরকার উপজেলা পর্যায় পর্যন্ত চালকদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা রেখেছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

দেশে করোনার বিস্তার বাড়লে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আবারও বন্ধ হবে বিষয়টি মাথায় রেখে শিক্ষার্থীদের সময়কে কাজে লাগানোর পরামর্শ দেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, এই করোনাভাইরাস; কিন্তু এখনো শেষ হয়ে যায়নি। বর্তমানে আবার নতুন আরেকটা ঢেউ আসছে। যদি করোনা বিস্তার লাভ করে তা হলে যে কোনো সময় আবার কিন্তু সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যাবে। তাই সবাইকে এখন পড়াশোনা করতে হবে। যার যার স্কুলে ফিরে যেতে হবে।

সম্প্রতি রাজধানীতে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ময়লার গাড়ি চাপায় নটর ডেম কলেজের ছাত্র মৃত্যুর পরদিনই উত্তর সিটি কর্পোরেশনের আরেকটি ময়লার গাড়ি চাপায় প্রেস কর্মী মারা যাবার প্রসঙ্গ উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এর কী রহস্য? দক্ষিণে মারা গেল, পর দিন উত্তরে মারা গেল, এর কারণটা কী? এর কারণ খুঁজে বের করতে হবে।’ ময়লার গাড়ি যারা চালায় তাদের গাড়ি চালানোর মতো দক্ষতা আছে কি-না সেটা খতিয়ে দেখতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন শেখ হাসিনা

নিজেদের অধিকার আদায়ে নারীদের স্বাবলম্বি হিসেবে গড়ে ওঠার পরামর্শ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের নারীরা যেন সব সময় এটা মনে রাখেন, যে অধিকার অধিকার করে চিৎকার করলে অধিকার কেউ দিয়ে দেবে না। অধিকার আদায় করে নিতে হবে। নিজেদের কাজ নিজেরা করতে হবে। নিজের পায়ে দাঁড়াতে হবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (9)
Ar Raham Ali ২ ডিসেম্বর, ২০২১, ৬:৩১ এএম says : 4
মায়া মমতাময়ী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু জয় শেখ হাসিনা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা উনয়নের রুপকার উনয়নের রোল মডেল আধুনিকতার রুপকার ডিজিটাল বাংলাদেশ জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ সরকারের গণমানুষের সরকার বারে বার দরকার
Total Reply(0)
Monowara Begum ২ ডিসেম্বর, ২০২১, ৬:৩১ এএম says : 2
জননেত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু প্রার্থনা করি মহান আল্লাহর দরবারে।
Total Reply(0)
Belayet Hossain Comilla ২ ডিসেম্বর, ২০২১, ৬:৩৪ এএম says : 0
শিক্ষার্থীদের দাবী মেনে নিন, শিক্ষার্থীরা এমনেতেই চলে যাবে
Total Reply(0)
বিধান কবিরাজ ২ ডিসেম্বর, ২০২১, ৬:৩৪ এএম says : 0
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, শিক্ষার্থীদের যোক্তিক সব দাবি মেনে নেওয়া হোক।
Total Reply(0)
মামুন রশিদ চৌধুরী ২ ডিসেম্বর, ২০২১, ৬:৩৫ এএম says : 1
শিক্ষার্থীদের কারা রাজপথে নামতে বাধ্য করছে তাদের চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নিন।
Total Reply(0)
মিফতাহুল জান্নাত ২ ডিসেম্বর, ২০২১, ৬:৩৬ এএম says : 0
শিক্ষার্থীরা গাড়ি ভাঙচুর করছে না, কেউ এগুলো করে তাদের যৌক্তি আন্দোলন বাধাগ্রস্ত করছে।
Total Reply(0)
তরিকুল ২ ডিসেম্বর, ২০২১, ৬:৩৬ এএম says : 0
শিক্ষাঙ্গনে শিক্ষার পরিবেশ ফিরিয়ে আনা হোক, সড়ক হোক নিরাপদ।
Total Reply(0)
Abdul Mazed ২ ডিসেম্বর, ২০২১, ৬:৪২ এএম says : 0
যারা সড়কের তদারকির দায়িত্বে তারা নিবে। তাদের দায়িত্বের অবহেলার কারণে আজকে এই ঘটনার সৃষ্টি। তারা কোন ভাবে দায় এড়াতে পারেনা
Total Reply(0)
Abdullah Al Mamun ২ ডিসেম্বর, ২০২১, ৬:৪৩ এএম says : 0
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, এক্সিডেন্ট এর কারণে যে মানুষ গুলো নিহত বা হতাহত হয়েছে তাদের দায়িত্ব কি সরকার বা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ নিয়েছে? আজ পর্যন্ত কোন ঘাতক ড্রাইভার কিংবা পরিবহণ কর্তৃপক্ষের কোন যুগান্তকারী বিচার হয়েছে? আপনি যেমন পিতা মাতা ভাই পরিবারের বিয়োগান্তক ঘটনার জন্য যত দিন বেঁচে থাকবেন অন্তহীন দহনে ও শোকে মুহ্যমান তেমনি ঐ পরিবারের কথা কি কখনও ভেবেছেন? মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, আপনি তো বিচার পেয়েছেন বা ঘাতক ও ষড়যন্ত্র কারীদের বিচার করেছেন কিন্তু আমাদের মতো সাধারণ মানুষের অভাগা কপালে সেটা কখনোই সম্ভব নয়। আমরা আপনার নিকট অনুরোধ করছি যাতে ঘাতকের শাস্তি এবং সরকার ও পরিবহণ কতৃপক্ষ আজীবন ঐ পরিবারের দায়িত্ব পালন করেন।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন