রোববার, ২৩ জানুয়ারী ২০২২, ০৯ মাঘ ১৪২৮, ১৯ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

বিনোদন প্রতিদিন

জীবনকে সাপলুডুর কোর্ট বললেন পরীমনি

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২ ডিসেম্বর, ২০২১, ১০:১৮ এএম

ঢালিউডের ডানাকাটা পরী খ্যাত অভিনেত্রী পরীমনি। নিজের নামের মতোই অভিনয় আর রূপ দিয়ে দর্শকদের মন জয় করে নিয়েছেন তিনি। কিন্তু গেলো কয়েকটা মাস পরীমনির জীবনে ভালো সময় কাটেনি। মাদক মামলায় জড়িয়ে তাকে সাজা ভোগ করতে হয়েছে আবার কখনো বিভিন্ন ধরনের হুমকি ও যৌন হয়রানির অভিযোগে তাকে ঘুরতে হয়েছে থানায় থানায়।

থানায় গিয়ে মামলার আকুতি, কখনও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কর্তৃক আটক, পরে গ্রেপ্তার, কখনও রিমান্ড, আবার কখনও আদালতে হাজিরা দিতে হয়েছে লাস্যময়ী এই চিত্রনায়িকাকে। ‘জীবন সাপলুডুর কোর্ট’, ফেসবুক পেজে স্ট্যাটাসের মাধ্যমে এমনটাই জানিয়েছেন পরীমনি।

বিভিন্ন সময় কারণে-অকারণে পরীমনিকে পরতে হয়েছে সমালোচনার মুখে। নিন্দুকের কথায় কান না দিয়ে রুপালি জগতের ঝলমলে আলোয় নিজেকে আলোকিত করার চেষ্টা করে যাচ্ছেন তিনি। জীবনের ঘটে যাওয়া এসব ঘটনার তোয়াক্কা না করে সিনেমার কাজে ধ্যানমগ্ন হয়ে থাকতে চাচ্ছেন তিনি। আগামী দিনেও সেই আগের লাইট, ক্যামেরা আর অ্যাকশন নিয়েই তিনি ব্যস্ত থাকতে চাচ্ছেন। ডুবে আছেন স্ক্রিপ্টের নতুন নতুন সব চরিত্রে।

উল্লেখ্য, ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগে নিজের দায়ের করা মামলায় অভিযোগপত্র গ্রহণের বিষয়ে শুনানিতে ১ ডিসেম্বর সকাল ১০টায় হাজির হন পরীমনি। আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন দুই আসামি নাসির উদ্দিন মাহমুদ ও তুহিন সিদ্দিকী ওরফে অমি। আদালত তাদের জামিন মঞ্জুর করেন।

এদিকে মামলাটি একতরফাভাবে তদন্ত হয়েছে বলে আদালতে দাবি করেছেন পরীমনি। তিনি আদালতকে বলেন, আমার জানা মতে ঠিকমত তদন্ত করা হয়নি। এজন্য মামলাটি পুনরায় তদন্তের জন্য নাজারি পিটিশনের আবেদন করেছেন তিনি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
Razaul Karim shaki ৩ ডিসেম্বর, ২০২১, ৮:৩৮ এএম says : 0
আসলে সমাজটাই সাপলুভুর কোট বা খেলা । এখানে প্রভাবশালীরা ক্ষমতাবানরা ধনবানেরা দুর্বল ও অসহায়দের উপর যেভাবে যা খুশি তাই প্রভাব বিস্তার করে থাকে । বিশেষ করে মাদক ও নারীর দেহ ব্যবসায়ী ও নারী পাচার ও দুর্নীতিবাজরা এ ব্যাপারে অগ্রগামী । তাদের হীন স্বার্থে সমাজের যে কোন অনৈতিক কাজ ইচ্ছা হলেই করতে পারে । পরীমনি বা তাঁর মত অন্যান্যদের ঘটনাই উৎকৃষ্ট প্রমাণ । পরীমনির দায়ের করা ধর্ষণ ও হত্যা চেষ্টার মামলার তদন্ত রিপোর্ট একতরফাভাবে পক্ষপাতদুষ্ট হয়ে বিবাদীর পক্ষে দেয়া হয়েছে । ফলে প্রমাণিত হল সমাজ বা আইন চলে দুর্নীতিবাজদের ইশারায় ।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন