বুধবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২২, ১২ মাঘ ১৪২৮, ২২ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

মহানগর

মাদরাসা ও ইসলামী শিক্ষা সংঙ্কুচিত করার গভীর ষড়যন্ত্র চলছে

ইসলামী ঐক্য আন্দোলনের সভায় নেতৃবৃন্দ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩ ডিসেম্বর, ২০২১, ৬:৫৮ পিএম

শিক্ষা ব্যবস্থা ঢেলে সাজানোর নামে ২০২৩ শিক্ষাবর্ষ থেকে মাদরাসা ও ইসলামী শিক্ষা সংঙ্কুচিত করার গভীর ষড়যন্ত্র চলছে। মাদরাসা শিক্ষা ও ইসলামী শিক্ষার বিরুদ্ধে কোনো ধরণের ষড়যন্ত্র বরদাশত করা হবে না। পরীক্ষা পদ্ধতির মৌলিক বিষয়ের মধ্যে ইসলামী শিক্ষা অন্তর্ভুক্ত করার দাবি জানিয়ে নেতৃবৃন্দ বলেন, শিক্ষার সর্বস্তরে ১০০ নাম্বারের ইসলামী শিক্ষা বাধ্যতামূলক করতে হবে এবং অবিলম্বে স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদরাসাসমূহ জাতীয়করণ করতে হবে।

আজ শুক্রবার বিকেল ৪ টায় রাজধানীর বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন মিলনায়তনে ইসলামী ঐক্য আন্দোলনের ৩৭তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন উপলক্ষে ঢাকা মহানগরীর আমীর মোস্তফা বশীরুল হাসানএর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন। এতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, ইসলামী ঐক্য আন্দোলনের নায়েবে আমীর প্রিন্সিপাল মুহাম্মাদ শওকাত হোসেন, নায়েবে আমীর মাওলানা মুহাম্মাদ রুহুল আমীন, খেলাফত আন্দোলনের নায়েবে আমীর মাওলানা মো. মুজিবুর রহমান হামিদী, ঐক্য আন্দোলনের সেক্রেটারী জেনারেল অধ্যাপক মোস্তফা তারেকুল হাসান, আন্দোলনের সহ সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যাপক মাওলানা এএমএম কামাল উদ্দিন, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট আবু হানিফ, আন্দোলনের অর্থসম্পাদক মাওলানা ফারুক আহমাদ, মজলিসে আমলের সদস্য মাওলানা মো. আব্দুর রহমান, ঢাকা মহানগরীর সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মো. আবু বকর সিদ্দিক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাফেজ মাওলানা হযরত আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক এফ এম আলী হায়দার, মজলিসে শুরার সদস্য ও ডেমরা থানার সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মো. আনোয়ার হোসেন, শ্রমবিষয়ক সম্পাদক মো. আজমল হোসেন, হাফেজ মাওলানা শহিদুল ইসলাম, বাংলাদেশ জমিয়তে তালাবায়ে আরাবিয়ার কেন্দ্রীয় সভাপতি ছাত্র নেতা মুহাম্মাদ জহিরুল ইসলাম ও ইসলামী ছাত্র শক্তির সভাপতি মো. আব্দুল খালেক।

সভায় কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ বলেছেন, বর্তমান সময়ে ইসলামী দলসমূহের প্রধান দায়িত্ব হচ্ছে মাদরাসা শিক্ষা ও ইসলামী শিক্ষা রক্ষায় সর্বাত্মক আন্দোলনে ঝাঁপিয়ে পড়া। নেতৃবৃন্দ বলেন, ইসলামী দলসমূহের উচিত দ্বীন প্রতিষ্ঠার উদ্দেশ্যে আন্দোলনে আত্মনিয়োগ করা। এক দলকে ক্ষমতা থেকে নামানো এবং আরেক দলকে ক্ষমতায় বসানো ইসলামী দলসমূহের রাজনীতি হতে পারে না। যারা ইসলামী রাজনীতির চর্চা করেন না তাদের সাথে জোট ভোটের রাজনীতিতে ইসলামী ঐক্যআন্দোলন বিশ্বাস করে না। আন্দোলনের প্রতিষ্ঠাতা মরহুম মওলানা মুহাম্মাদ আবদুর রহীম (রহ.) বলেছিলেন, একটি পূর্ণাঙ্গ ইসলামী বিপ্লব ছাড়া এ জাতির মুক্তির কোনো পথ নেই। ইসলামী ঐক্য আন্দোলন চায় সর্বস্তরের জনগণকে সাথে নিয়ে একটি ইসলামী গণবিপ্লব। এ পথই নবী রাসূল (সা.) গণের পথ। জিহাদ ফি সাবিলিল্লাহর পথ। রাসুল(সা.) এর মক্কায় ১৩ বছরের দাওয়াতি কাজ, অতঃপর মদিনায় হিজরত করত: ইসলামী রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা ও সর্বশেষ মক্কা বিজয় ইসলামী আন্দোলনকারীদের জন্য দ্বীন প্রতিষ্ঠার দিকদর্শন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন