বুধবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২২, ১২ মাঘ ১৪২৮, ২২ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

লজ্জার ‘শূন্যের চূড়ায়’ কোহলি

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩ ডিসেম্বর, ২০২১, ১১:৫৯ পিএম

ভারতীয় নির্বাচকদের দল নির্বাচন নিয়ে দুশ্চিন্তা থেকে বাঁচিয়ে দিয়েছে চোটাঘাত। প্রথম টেস্টে বিশ্রামে ছিলেন নিয়মিত অধিনায়ক বিরাট কোহলি। তার অনুপস্থিতিতে এক শতক ও এক অর্ধশতকে রেকর্ড করে বসেন শ্রেয়াস আইয়ার। মুম্বাই টেস্টে ফিরেছেন কোহলি। তাঁকে জায়গা করে দেওয়ার জন্য একজন ব্যাটসম্যানকে বাদ পড়তে হতো। সে ক্ষেত্রে সবার আঙুল উঠছিল ফর্মে না থাকা সহ-অধিনায়ক অজিঙ্কা রাহানের দিকে।

নির্বাচক ও টিম ম্যানেজমেন্টকে এমন অস্বস্তিকর এক সিদ্ধান্ত নেওয়ার হাত থেকে বাঁচিয়ে দিয়েছে রাহানের চোট। কিন্তু এতে চাপটা বেড়ে গিয়েছিল কোহলি ও চেতেশ্বর পূজারার। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে গতকাল প্রথম ইনিংসে ব্যর্থ হয়েছেন দুজনই। শূন্য হাতে ফিরেছেন পূজারা ও কোহলি। আর তাতেই একটি রেকর্ড হয়ে গেল কোহলির। ভারতের অধিনায়ক হিসেবে এই প্রথম কেউ ১০ বার শূন্য রানে আউট হলেন। কোহলির লজ্জার রেকর্ডের দিনে আলো ছড়িয়েছেন মায়াঙ্ক আগারওয়াল। তার অপরাজিত শতকে ৪ উইকেটে ২২১ রান নিয়ে দিন শেষ করেছে ভারত।
গতকালের আগেই অধিনায়ক হিসেবে সবচেয়ে বেশিবার আউটের রেকর্ড ছিল কোহলির। মনসুর আলী পতৌদিকে (৭) টপকে রেকর্ডটি নিজের দখলে নিয়েছিলেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। ২০১৪ সালে টেস্ট অধিনায়কত্ব থেকে ধোনি সরে দাঁড়ানোর পর কোহলি যেভাবে দাপট দেখানো পারফরম্যান্স দেখাচ্ছিলেন, তাতে সে রেকর্ডটা কোহলির হবে, এমন চিন্তা করাটা কষ্টকর ছিল। অধিনায়কত্বের ভার পেয়ে যে আরও ক্ষুরধার হয়ে উঠেছিলেন কোহলি। কিন্তু করোনার কারণে ক্রিকেটে বিরতি পড়ার পর থেকেই কোহলির ব্যাটে আগের সে ছন্দ নেই।
২০২০ সাল পর্যন্ত টেস্টে মাত্র ১০ বার শূন্য রানে আউট হয়েছেন কোহলি। ক্যারিয়ারে এক বছরে কখনো দুবারের বেশি শূন্য রানে আউট হননি টেস্টে। সেই কোহলি আজ বছরের চতুর্থ ‘ডাক’ উপহার পেলেন। এই শূন্যে এ বছর ১৬ ইনিংসে ৪৪৭ রান করা কোহলির গড় ২৭.৯৩-এ নেমে এল। অভিষেকের পর কোনো বছরে অন্তত ১০ ইনিংস খেলে এত কম গড়ে রান নেননি কোহলি।
বৃষ্টির কারণে প্রথম সেশনে কোনো খেলা হয়নি এদিন। ম্যাচ শুরু হতেই কোহলির সঙ্গে পূজারাকেও শূন্য রানে ফিরিয়ে দেন নিউজিল্যান্ডের স্পিনার এজাজ প্যাটেল। টেস্টে এটি ১০ম শূন্য পূজারার, কোহলির ১৪তম। তবে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে এই প্রথম শূন্য পেলেন দুজন। কোহলি ও পূজারা একসঙ্গে ৮৩টি টেস্ট খেলেছেন। এমন ম্যাচে এটি পূজারার নবম শূন্য। কোহলির ক্ষেত্রে সংখ্যাটি ১২। তবে দুজনই একই ইনিংসে বা একই টেস্টে শূন্য রানে আউট হওয়ার মাত্র চতুর্থ ঘটনা এটি। এর মধ্যে ২০১৮ সালে মেলবোর্ন টেস্টেও দুজনকেই আউট করেছিলেন প্যাট কামিন্স। মজার ব্যাপার, দুজনের ক্যাচই ধরেছিলেন মার্কাস হ্যারিস।
এদিকে মুম্বাইয়ে ভারত বনাম এজাজ প্যাটেল টেস্ট হচ্ছে। দুই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান মায়াঙ্ক আগারওয়াল ও শুবমান গিল ৮০ রান এনে দিয়েছিলেন। মাত্র ১০ বলের মধ্যে গিল (৪৪), পূজারা ও কোহলিকে ফিরিয়েছেন প্যাটেল। এরপর আইয়ারকে নিয়ে আরেকটি ৮০ রানের জুট গড়েন আগারওয়াল। জুটিতে মাত্র ১৮ অবদান রাখা আইয়ারকেও ফিরিয়ে দিয়েছেন প্যাটেল। পঞ্চম উইকেটে ঋদ্ধিমান সাহাকে (২৫*) নিয়ে আরও ৬১ রান যোগ করেছেন আগারওয়াল। দিন শেষে ১২০ রানে অপরাজিত এই ওপেনার। ৭৩ রানে ৪ উইকেট পেয়েছেন প্যাটেল।
চোট শুধু রাহানেকে কেড়ে নেয়নি এ টেস্ট থেকে। নিউজিল্যান্ডের অধিনায়ক কেইন উইলিয়ামসও খেলছেন না সিরিজ নির্ধারণী টেস্ট। চোট ভারতের ইশান্ত শর্মা ও রবীন্দ্র জাদেজাকেও কেড়ে নিয়েছে। সে সুবাদে চার বছর পর টেস্ট দলে ঢুকে পড়েছেন জয়ন্ত যাদব। ওদিকে নিউজিল্যান্ডের অধিনায়কত্ব করছেন টম ল্যাথাম। দুই টেস্টের সিরিজে তাই চার অধিনায়ককে টস করতে দেখা গেলে এবার। ১৩২ বছর পর এমন কিছু দেখল টেস্ট বিশ্ব!

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন