বুধবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২২, ১২ মাঘ ১৪২৮, ২২ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

ইসলামী প্রশ্নোত্তর

প্রশ্ন : আমার ভাই জুয়া খেলে, এখন সেই টাকা যদি আমি কোনো মসজিদে বা ভালো কাজে দান করে দিই, তাতে কী কোনো সোয়াব পাওয়া যাবে?

আক্তার হোসেন
ইমেইল থেকে

প্রকাশের সময় : ৪ ডিসেম্বর, ২০২১, ৭:২১ পিএম

উত্তর : জুয়া খেলা হারাম। যদি এর প্রথম মূলধন হালালও হয়, পরবর্তী প্রবৃদ্ধির সবটুকুই হারাম। আপনি হারাম টাকা দান করছেন, এমন নিশ্চিত হলে অবশ্যই সওয়াবের আশা করা ঠিক হবে না। বরং হারাম টাকা দান করে সওয়াবের নিয়ত বা আশা করাও কবীরা গুনাহ। এতে ঈমান নষ্ট হওয়ারও সম্ভাবনা থেকে যায়। কারণ, আল্লাহর পক্ষ থেকে হারাম ও নিষিদ্ধ বস্তু তাকেই খুশি করার জন্য তার ঘরে দান করা ব্যক্তির ঈমান থাকে না। এটি আল্লাহর অবাধ্যতার পাশাপাশি তার সাথে চরম ঔদ্ধত্য প্রদর্শনের নামান্তর। এজন্য এটি কুফুরী গুনাহ। অতীতে না জেনে এমন করে থাকলে আল্লাহ মাফ করে দিবেন। তবে, এই টাকা নিজে ব্যবহার না করে, সওয়াবের নিয়ত ছাড়াই অভাবী কাউকে দিয়ে দিতে পারবেন। কিন্তু কোনো সওয়াব আশা করা যাবে না, কেবল হারাম টাকা থেকে নিজের জান বাঁচানোর কাজটি করা।

উত্তর দিয়েছেন : আল্লামা মুফতি উবায়দুর রহমান খান নদভী
সূত্র : জামেউল ফাতাওয়া, ইসলামী ফিক্হ ও ফাতওয়া বিশ্বকোষ।
প্রশ্ন পাঠাতে নিচের ইমেইল ব্যবহার করুন।
inqilabqna@gmail.com

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (2)
safwan ৬ ডিসেম্বর, ২০২১, ১২:২১ পিএম says : 0
aker bojha onner ghare to Allah diben na...so..ai lok dan korle keno sowab pabe na????
Total Reply(0)
মুহাম্মদ আমিনুর রহমান ১৫ ডিসেম্বর, ২০২১, ২:৩৯ পিএম says : 0
আসসালামু আলাইকুম, আমার বয়স ৩০ বছর। আমি ১১/১২ বছর যাবৎ ৫ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করি। এর আগে মাঝে মাঝে দু/এক ওয়াক্ত আদায় করতাম, মূলত তখন নামাজের পরিপূর্ণ জ্ঞান ছিল না। যতটুকু জানি ৮/৯ বছর বয়সে নামাজ ফরজ হয়ে যায়। তাহলে সে হিসেবে মোটামুটি ৯/১০ বছরের নামাজ আদায় পরিপূর্ণ হয় নাই। এমতাবস্থায়, আমার কি উক্ত সময়ের নামাজ কাযা আদায় করতে হবে??? জানালে উপকৃত হবো।।। আল্লাহ্ হাফিজ
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন