শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ১৫ মাঘ ১৪২৮, ২৫ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

কষ্টার্জিত জয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে বসুন্ধরা

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৪ ডিসেম্বর, ২০২১, ৮:৩২ পিএম

ঘরোয়া ফুটবলের মৌসুমসূচক টুর্নামেন্ট স্বাধীনতা কাপের ‘ডি’ গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে নৌবাহিনীকে ৬-০ গোলে বিধ্বস্ত করলেও দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশ পুলিশ এফসি’র বিপক্ষে কষ্টার্জিত জয় পেয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কিংস। শনিবার বিকালে কমলাপুরস্থ বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে দিনের প্রথম ম্যাচে বসুন্ধরা ১-০ গোলে হারায় পুলিশকে। বিজয়ী দলের হয়ে পেনাল্টি থেকে একমাত্র গোলটি করেন ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড রবসন রবিনহো। এ জয়ে দুই ম্যাচে ৬ পয়েন্ট পেয়ে এই গ্রুপের প্রথম দল হিসেবে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত হলো বসুন্ধরার। সমান ম্যাচে একটি করে ড্র ও হারে পুলিশের সংগ্রহ ১ পয়েন্ট।

নামে-ভারে দু’দিক দিয়েই পুলিশের চেয়ে বেশ এগিয়ে বসুন্ধরা কিংস। তবে অপেক্ষাকৃত দূর্বল দলটির বিপক্ষে নিজেদের নামের প্রতি সুবিচার করে খেলতে পারেনি কিংসরা। দলটির তারকা ফরোয়ার্ডদের একের পর এক আক্রমণ দৃঢ়তার সঙ্গেই প্রতিহত করেছে পুলিশের রক্ষণভাগ। পাল্টা আক্রমণ থেকে সুযোগ তৈরি করেও ফরোয়ার্ডদের অনভিজ্ঞতায় গোল পায়নি পুলিশ।

ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে খেলা চললেও এককভাবে প্রধান্য বিস্তার করতে পারেনি কেউ। ১৬ মিনিটে আক্রমণে ওঠা বসুন্ধরার ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার জনাথন ফার্নান্দেজকে ফাউল করে দলকে বিপদে ফেলেন পুলিশের ডিফেন্ডার ইশা ফয়সাল। সফল স্পট কিক থেকে গোল করে দলকে এগিয়ে নেন রবসন (১-০)। তবে ম্যাচের ভালো সুযোগটি পেয়েছিল পুলিশই। ৩১ মিনিটে বাঁ দিক থেকে আক্রমণে উঠে বক্সে ঢুকে পড়েন পুলিশের মোনায়েম খান রাজু। গোল মুখের সামনে থাকা আমির উদ্দিন শারিফির উদ্দেশ্যে কাট ব্যাক করলেও তা ক্লিয়ার করেন বসুন্ধরার তারকা ডিফেন্ডার বিশ্বনাথ ঘোষ। ৪ মিনিট পর পুলিশের মরোক্কান বংশদ্ভুত জার্মান ফরোয়ার্ড আদিল কুশখুশের বাকানো শট লাফিয়ে প্রতিহত করেন কিংস গোলরক্ষক আনিসুর রহমান জিকো। ফলে এগিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় বসুন্ধরা।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকে ব্যবধান বাড়ানোর চেষ্টা করেও সফল হয়নি বিজয়ীরা। অন্যদিকে একাধিক সুযোগ পেয়েও সমতায় ফিরতে পারেনি পুলিশ। ম্যাচের ৬১ মিনিটে ডান দিক থেকে বসুন্ধরার ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার জনাথন ফার্নান্দেজ ক্রস করলে বক্সের জটলায় বলে পা ছোঁয়ান বসনিয়ার ফরোয়ার্ড স্তুয়ান ভ্রানিয়াস। তবে গোল মুখ থেকে বল ক্লিয়ার করেন পুলিশের ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার ড্যানিয়েল অগোস্তো। দশ মিনিট পর বক্সের বাইরে থেকে পুলিশের ফরোয়ার্ড আল-আমিন দূরপাল্লার মাটি ঘেঁষা শট নিলে বাঁম দিকে ঝাঁপিয়ে পড়ে দলকে রক্ষা করেন আনিসুর রহমান জিকো। ৭৫ মিনিটে এই জিকোর কল্যাণেই ফের রক্ষা বসুন্ধরা কিংস। এসময় বাঁম দিক থেকে আমিরুদ্দিন শরিফির দারুণ পাস ধরে বক্সের খানিকটা সামনে থেকে আদিল কুশখুশ বাকানো শট নিলে জিকোর প্রতিহত করার চেষ্টা করলে বল ক্রসবারে লেগে ফিরে আসে। ম্যাচের ৮৮ মিনিটে ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ পেয়েও ব্যর্থ বসুন্ধরা। এসময় ফাঁকায় থাকা এলিটা কিংসলের দিকে জনাথন ফার্নান্দেজ বল বাড়ালেই গোল পেত দলটি। কিন্তু তা না করে ফার্নান্দেজ নিজেই শট নিলে পুলিশের এক ডিফেন্ডারের পায়ে লেগে বল বাইরে চলে যায়। ম্যাচের শেষ দিকে এসে দুই দলের ফুটবলাররা ধাক্কাধাক্কিতে জড়িয়ে পড়লে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রেফারি হলুদ কার্ড দেখান বসুন্ধরার ইব্রাহিম ও রিমন হোসেনকে।

একই ভেন্যুতে রাতে অনুষ্ঠিত ‘ডি’ গ্রুপের আরেক ম্যাচে চট্টগ্রাম আবাহনী ১-১ ব্যবধানে বাংলাদেশ নৌবাহিনীর সঙ্গে ড্র করে কোয়ার্টার ফাইনালের আশা বাঁচিয়ে রাখলো। নৌবাহিনীর ফরোয়ার্ড জুয়েল রানা এবং চট্টগ্রাম আবাহনীর নাইজেরিয়ান মিডফিল্ডার কেহিন্দে ঈসা একটি করে গোল করেন। দুই ম্যাচের দু’টিতে ড্র করে ২ পয়েন্ট পেয়ে তালিকায় দ্বিতীয়স্থানে রয়েছে চট্টগ্রাম আবাহনী। সমান ম্যাচে একটি করে হার ও ড্রতে নৌবাহিনীর পয়েন্ট ১।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন