মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২, ১১ মাঘ ১৪২৮, ২১ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

কুম্বলে, লেকারের পর এজাজ

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৫ ডিসেম্বর, ২০২১, ১২:০০ এএম

রেকর্ডটি ভাঙ্গার কোন উপায় ছিল না। কারণ এক ইনিংসে ১০ উইকেটের বেশি নেওয়ার তো উপায় নেই। চোখ ধাঁধানো সেই বিশ্ব রেকর্ডে নাম লেখানো যেত। সেটাই করে ফেললেন নিউজিল্যান্ডের বাঁহাতি স্পিনার এজাজ প্যাটেল। জিম লেকার ও অনিল কুম্বলের পর ইতিহাসের তৃতীয় কোন বোলার হিসেবে এমন নজির গড়লেন তিনি।
গতকাল মুম্বাই টেস্টের দ্বিতীয় দিনে এমন রেকর্ডে নাম লেখান এজাজ। মোহাম্মদ সিরাজকে আউট করে ইতিহাসে নাম ওঠান তিনি। ভারতকে ৩২৫ রানে অলআউট করে দিতে সব ব্যাটসম্যানের উইকেটই যায় এজাজের পকেটে। ১১৯ রানে দিয়ে ১০ উইকেট নেন প্যাটেল।
১৯৫৬ সালে ইংল্যান্ডের অফ স্পিনার লেকার ম্যানচেস্টার টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৫৩ রানে ১০ উইকেট তুলে এমন বিস্ময়কর রেকর্ড গড়েছিলেন। ৪৩ বছর পর ১৯৯৯ সালে তাকে স্পর্শ করেন ভারতের লেগ স্পিনার কুম্বলে। পাকিস্তানের বিপক্ষে দিল্লি টেস্টে ৭৪ রানে তিনি নেন ১০ উইকেট। ১০ উইকেট নিলেও ইতিহাসের সেরা বোলিং ফিগারের দিক থেকে তিন নম্বরে নাম উঠল এজাজের। মুম্বাই টেস্টে ৪৭.৫ ওভার বল করে এই অর্জনে নাম উঠে তার।
নিউজিল্যান্ডের ক্রিকেটার হলেও এজাজের জন্ম এই মুম্বাইতেই। পরে পরিবারের সঙ্গে পাড়ি জমান নিউজিল্যান্ডে। সেদেশের হয়েই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আলো ছড়াচ্ছেন তিনি। জন্ম শহরে এসে তিনি নাম লেখালেন এমন এক রেকর্ডে যা যেকোনো বোলারের জন্যই প্রায় অবিশ্বাস্য এক স্বপ্ন। লেকার কিংবা কুম্বলে- দুজনই কিংবদন্তি বোলার। লেকার ক্যারিয়ারে ২৮তম টেস্টে আর কুম্বলে ৫১তম টেস্টে এসে ইনিংসে ১০ উইকেট নেন। এজাজ সে তুলনায় কেবল শুরু করলেন, চলতি মুম্বাইসহ ক্যারিয়ারটি মাত্র ১১ টেস্টের!
বেঁচে থাকলে নিশ্চয়ই এজাজকে অভিনন্দন জানাতেন লেকারও। পারফেক্টের টেনের প্রতিষ্ঠাতা খুব ভালো করেই জানতেন এর মর্ম। তবে সেই সুযোগটি হাতছাড়া করেননি ইতিহাসের আরেক সাক্ষী কুম্বলে। ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে এমন অবিশ্বাস্য রেকর্ড গড়া মাত্রই এজাজকে ‘১০ উইকেট’ ক্লাবে স্বাগত জানিয়েছেন ভারত কিংবদন্তি। সামাজিক মাধ্যম টুইটারে কুম্বলে লিখেছেন, ‘পারফেক্ট টেন ক্লাবে তোমাকে স্বাগত এজাজ প্যাটেল। দারুণ বল করেছ। কোনও টেস্ট ম্যাচের প্রথম ও দ্বিতীয় দিনে এমন কৃতিত্ব অর্জনের জন্য বিশেষ প্রচেষ্টার প্রয়োজন হয়।’
এমন কীর্তির পরও এজাজ মনে মনে টেলর-ল্যাথামদের শাপশাপান্ত করছেন কি না কে জানে! কয়েক ঘণ্টা আগেই ইনিংসে ১০ উইকেট নিয়ে গড়েছেন ইতিহাস। কোথায় ড্রেসিংরুমে একটু উদযাপন করবেন, মুহূর্তটা উপভোগ করবেন- সতীর্থ ব্যাটসম্যানদের কল্যাণে আবারও বল হাতে নেমে পড়তে হয়েছে তাকে!
প্রথম ইনিংসে ভারতকে ৩২৫ রানে থামিয়ে দেওয়া নিউজিল্যান্ড নিজেদের প্রথম ইনিংসে অলআউট হয়ে গিয়েছে মাত্র ৬২ রানে। ভারতের বিপক্ষে এত কম রানে কোনো দল অলআউট হয়নি। মেরেকেটে ২৮ ওভার ১ বল খেলতে পেরেছে নিউজিল্যান্ড। ভারতের ইনিংসে এজাজ প্যাটেল একাই ধস নামিয়ে দিলেও নিউজিল্যান্ডের ইনিংসে ভারতীয় বোলাররা মিলেমিশেই ধস নামিয়েছেন। ইনিংসের শুরুতে দেখা গেছে মোহাম্মদ সিরাজের তোপ। অধিনায়ক টম ল্যাথাম, উইল ইয়াং আর রস টেলরকে আউট করেছেন সিরাজ। ওদিকে মিডল অর্ডার থেকে শুরু করে লাইনআপের শেষটা ছেঁটে দিয়েছেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন আর অক্ষর প্যাটেল। চার উইকেট নিয়েছেন অশ্বিন, দুটি নিয়েছেন অক্ষর। বাকিগুলো নিয়েছেন জয়ন্ত যাদব। দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে বিনা উইকেটে ৬৯ রান যোগ করা ভারত লিডটা বাড়িয়ে নিয়েছে ৩৩২ রানে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন