বুধবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২২, ১২ মাঘ ১৪২৮, ২২ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

ভারতে অনুপ্রাণিত ইংল্যান্ড

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৭ ডিসেম্বর, ২০২১, ১২:০১ এএম

শেষবার গ্যাবায় অস্ট্রেলিয়া টেস্ট হেরেছিল ১৯৮৮ সালে। তাদের সেই অহংকার চলতি বছরই শেষ করে ভারত। গ্যাবায় তাদের টেস্ট ম্যাচ হারায়। সিরিজও জিতে নেয় ২-১ ব্যবধানে। বাংলাদেশ সময় আগামীকাল ভোর ৬টা থেকে সেই গ্যাবাতেই শুরু হচ্ছে অ্যাশেজ সিরিজ। এই সিরিজের আগে সফরকারী ইংল্যান্ডের জন্য অনুপ্রেরণা হচ্ছে ভারত সিরিজ। তেমনটি জানিয়েছেন ইংল্যান্ড অধিনায়ক জো রুট। তবে এটিও মনে করিয়ে দিয়েছেন, খেলতে হবে নিজেদের শক্তির জায়গা মাথায় রেখেই, ‘এখানে অনেক দলই ফলের জন্য ভুগেছে অতীতে। তাই অবশ্যই ওটা আমাদের বাড়তি আত্মবিশ্বাস দেবে। ভারতের কৃতিত্ব, তারা অবিশ্বাস্যরকমের ভালো খেলেছে ওই পুরো সিরিজজুড়ে। অনেকদিক থেকেই ভালো একটা উদাহরণ তৈরি করেছে অস্ট্রেলিয়ায় খেলতে আসা দলগুলোর জন্য। আমরা চেষ্টা করব ওই সিরিজ থেকে কিছু বিষয়ে শিখতে। কিন্তু আমাদের নিজেদের শক্তির ওপর নির্ভর করেও খেলতে হবে। এটাও নিশ্চিত করতে হবে, নিজেদের মতো করে খেলছি। সিরিজে বড় মুহূর্তগুলো নিজের করতে পারলে, আমাদের জন্য সেটা মূল বিষয় হবে বলে আমার মনে হয়।’
ইংল্যান্ড অধিনায়ক হিসেবে জো রুটের জন্যও এটি অগ্নিপরীক্ষা। তার নেতৃত্ব হুমকির মধ্যে পড়তে পারে অ্যাশেজের ফল অ্যরকম হলে। অস্ট্রেলিয়ায় হওয়া ২০১৭-১৮ সালের অ্যাশেজে ৪-০ ব্যবধানে হেরে যায় ইংল্যান্ড। ওই সিরিজেও ইংলিশদের অধিনায়ক ছিলেন জো রুট। এবারও যদি তেমন কিছু হয়, অধিনায়কত্ব প্রশ্নের মুখে পড়বে, জানেন রুটও, ‘অবশ্যই আমি জানি অ্যাশেজ আমার অধিনায়কত্বের গতিপথ ঠিক করে দেবে। এটা নিয়ে না ভাবার মতো সহজ-সরল কেউ আমি না। যদি আপনি দেখেন ইংল্যান্ডের অধিনায়ক ও দলের জন্য অস্ট্রেলিয়ায় অ্যাশেজ যেতা কত কঠিন। এটা নিয়মিত হয়নি। কিন্তু কী দারুণ সুযোগ। আমি সত্যিই অনেক বেশি রোমাঞ্চিত এটা নিয়ে, সিরিজ শুরু হওয়ার জন্য তর সইছে না। আপনি যদি দেখেন কিছু খেলোয়াড়, ব্যক্তি নির্দিষ্ট সময়ে পারফরম করেছে। সিনিয়ররা বারবার করে দেখিয়েছে, জুনিয়ররাও তাদের প্রতিভার ঝলক ও কী করতে পারে দেখিয়েছে।’
সেই জুনিয়রদেরই একজন ওলি রবিনসন। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে খেলা হলে জেমস অ্যান্ডারসন আর স্টুয়ার্ট ব্রডকে নিয়ে ভাবতে হয় অস্ট্রেলিয়াকে। তবে এবার অজিদের জন্য চমক হয়েই থাকছে নবাগত এই পেসার। চলতি বছরই টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক হয় ২৮ পেরুনো ডানহাতি রবিনসনের। এরমধ্যেই তিনি রেখে ফেলেছেন ছাপ। ৫ টেস্টের ক্যারিয়ারে ১৯.৬০ গড়ে ২৮ উইকেট নেওয়া হয়ে গেছে তার। আছে দুবার ৫ উইকেট নেওয়ার নজির।
ক্যারিয়ারের শুরুতে বিতর্কেও আলোচনায় এসেছেন তিনি। ২০১২ সালের বিদ্বেষমূলক এক সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টের জেরে সাময়িক নিষিদ্ধও হতে হয়েছিল তাকে। সব ঝাপ্টা সামলে মাঠের পারফরম্যান্স তিনি রেখেছেন বহাল। ব্রিসবেনে এবারের অ্যাশেজের প্রথম টেস্ট শুরুর আগে রুট জানালেন রবিনসনের তুখোড় ফর্মে একাদশ সাজানো নিয়েই মধুর সমস্যায় তারা, ‘আমাদের কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে হবে, আপনি যখন দেখবেন কন্ডিশন বিচারে দারুণ করতে অনেকেই হায় উঁচিয়ে রেখেছে, তখন মধুর এক সমস্যা।’ এরপরই রবিনসনের দক্ষতা, বিরূপ পরিস্থিতি সামলে পারফর্ম করে যাওয়ার প্রশংসা করেন ইংল্যান্ড অধিনায়ক, ‘দেখেন ওলি কীভাবে টেস্ট ক্রিকেটটা নিচ্ছে, এটা দুর্দান্ত। তার পারফরম্যান্স অসাধারণ। ক্যারিয়ারে এরমধ্যে কিছু ব্যাপার ওকে সামলাতে হয়েছে। সব সামলে পারফর্ম করে যাচ্ছে। বিভিন্নভাবে অবদান রাখছে এটা দুর্দান্ত।’
অস্ট্রেলিয়ায় রবিনসনের ভাল করার পেছনে আরেক যুক্তি রুটের। তার মতে দীর্ঘকায় হওয়ায় টেকনিক্যাল কিছু সুবিধা পাবেন রবিনসন, ‘সে দীর্ঘকায়। তার রিলিজ পয়েন্ট অনেক উঁচুতে থাকে। এবং সে ল্যাটারাল মুভমেন্ট আদায় করতে পারে। আপনি দেখেন অস্ট্রেলিয়ায় যারা সফল হয়েছে, বিশেষ করে গ্যাবায় (ব্রিসবেনের মাঠ)। তার মধ্যে গ্লেন ম্যাকগ্রা, বর্তমান খেলোয়াড়রা তারা সবাই উঁচু। তারা ল্যাটারাল মুভমেন্ট পায়, রিলিজ পয়েন্ট অনেক উঁচুতে। এটা বেশ ইতিবাচক যে অস্ট্রেলিয়ানরা এরমধ্যে তাকে নিয়ে মাথা ঘামাতে শুরু করেছে।’
রুটের কথার বাস্তব ভিত্তি মিলল স্টিভ স্মিথের ভাষ্যেও। রবিনসনকে নিয়ে আসলেই ভাবছে অস্ট্রেলিয়া। স্মিথ জানালেন ভারতের বিপক্ষে রবিনসনের বোলিং গভীরভাবে তলিয়ে দেখেছেন তিনি, ‘আমি খুব কাছ থেকে ভারত-ইংল্যান্ড সিরিজে ওর বোলিং দেখেছি, খুব ভাল বল করে। সে যে লাইন ও লেন্থে বল করে সম্ভবত গ্যাবার কন্ডিশনের সঙ্গে তা খাপ খাবে।’ স্মিথ জানান, রবিনসনদের শক্তিমত্তা জেনেই প্রস্তুত হচ্ছেন তারা, নিচ্ছেন পরিকল্পনা, ‘তাকে দেখে মনে হয় সে সব সময় আপনার রক্ষণের পরীক্ষা নেবে। আমি গ্যাবায় তাকে মোকাবেলা করার জন্য প্রস্তুত হচ্ছি। আমরা দেখার চেষ্ট করছি কীভাবে তারা বল করে, কী করে সাফল্য পায়। আশা করছি নিজেদের পরিকল্পনায় থাকতে পারলে সফল হবো।’

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন