বুধবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২২, ১২ মাঘ ১৪২৮, ২২ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

চট্টগ্রামে এবার নালায় পড়ে নিখোঁজ কিশোর

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৭ ডিসেম্বর, ২০২১, ৬:৪০ পিএম | আপডেট : ৬:৫৪ পিএম, ৭ ডিসেম্বর, ২০২১

এবার নগরীর উন্মুক্ত নালায় পড়ে নিখোঁজ হয়েছেন এক কিশোর। মঙ্গলবার রাতে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কিশোর কামাল উদ্দিনের (১২) সন্ধান মেলেনি। ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধার কর্মীরা নর্দমার আবর্জনার ভেতরে তল্লাশি অব্যাহত রেখেছে। পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস সূত্র জানায়, সোমবার বিকেলে ওই কিশোর নগরীর ষোলশহর ভূমি অফিসের সামনের বড় নালার ভেতর তলিয়ে যায়। বিষয়টি জানাজানি হয় মঙ্গলবার। এরপর সন্ধ্যায় সেখানে ছুটে যায় ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধার কর্মীরা। নিখোঁজ কিশোর কামাল উদ্দিন নগরীর মুরাদপুর এলাকার একটি বস্তির বাসিন্দা আলী কাউসারের পুত্র।
আলী কাউসার জানান, সোমবার বিকেলে প্রতিবেশী রাকিবের সাথে কামাল উদ্দিন ভূমি অফিস লাগোয়া বড় নালায় নেমে প্লাস্টিকের বোতল খুঁজছিল। এ সময় আবর্জনার উপর দিয়ে হেঁটে নালার মাঝামাঝি যেতেই দুইজন তলিয়ে যায়। সকাল থেকে বৃষ্টি হওয়ায় বড় ওই নালায় ¯্রােত থাকলেও উপরে আবর্জনার স্তুপের কারণে তা বোঝা যাচ্ছিল না। তলিয়ে যাওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যে ¯্রােতের তোড়ে রাকিব ১০-১৫ হাজার দূরে একটি নালার রিটেইনিং দেয়ালের সাথে গিয়ে ধাক্কা খায়। এরপর সে দেয়ালের রড ধরে উপরে উঠে আসে। কিন্তু কামাল উদ্দিন আর উঠতে পারেনি।
রাকিব কলোনীতে ফিরে গিয়ে কামাল উদ্দিনের নিখোঁজের ঘটনা তার বাবাকে জানায়। খবর পেয়ে তিনি দুর্ঘটনাস্থলে এসে দীর্ঘক্ষণ খোঁজাখুঁজি করেন। এ সময় স্থানীয়দের সহযোগিতা চাইলেও কেউ তার কথায় পাত্তা দেননি বলে জানান তিনি। ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তারা জানান, বিকেলে তারা ওই কিশোর নিখোঁজের খবর পান। এরপর ডুবুরিসহ উদ্ধার কর্মীরা সেখানে ছুটে যান। উদ্ধার কর্মীদের ধারণা, ওই কিশোর আবর্জনায় আটকে গেছে। আবর্জনা ঠেলে তার সন্ধানে অভিযান চালায় ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।
স্থানীয়রা জানায়, সিডিএর পানিবদ্ধতা নিরসন মেগাপ্রকল্পের অংশ হিসাবে বড় এই নালাটিতে সংস্কার কাজ চলছে। আর এ কারণে নালার স্ল্যাব উঠিয়ে ফেলা হয়। নগরীতে খাল-নালা-নর্দমা উন্মুক্ত পড়ে থাকায় একের পর এক দুর্ঘটনা ঘটছে। সর্বশেষ গত ৩০ নভেম্বর নগরীর এমএ আজিজ স্টেডিয়াম এলাকায় নালায় পড়ে পা ভাঙেন কমার্স কলেজের ছাত্র ইয়াসির আরাফাত। এর আগে ৩০ জুন নগরীর ২ নম্বর গেট এলাকায় একটি সিএনজি অটোরিকশা চশমা খালে পড়ে এক নারীসহ দুই জন নিহত হন।
এছাড়া ২৫ আগস্ট মুরাদপুর এলাকায় নালায় পড়ে নিখোঁজ হন সবজি ব্যবসায়ী সালেহ আহমেদ। এখনও তার লাশ পাওয়া যায়নি। গত ২৭ সেপ্টেম্বর রাতে আগ্রাবাদের মাঝার গেট এলাকায় নালায় পড়ে মারা যান বিশ^বিদ্যালয়ের ছাত্রী শেহেরিন মাহমুদ সাদিয়া। নালায় পড়ে মৃত্যুর ঘটনায় দায় নির্ধারণ করতে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ কর্তৃক গঠিত তদন্ত কমিটি এ জন্য সিটি কর্পোরেশন ও সিডিএ দায়ী করে প্রতিবেদন দিয়েছে। তবুও টনক নড়েনি এই দুই সংস্থার কর্মকর্তাদের।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন