মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২, ১১ মাঘ ১৪২৮, ২১ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

নান্দাইলে বড়ভাই চেয়ারম্যান হয়েছিলেন বিএনপি থেকে, এবার ছোট ভাই পেলেন আ’লীগের মনোনয়ন

শামসুল আলম খান | প্রকাশের সময় : ৭ ডিসেম্বর, ২০২১, ৮:২৯ পিএম

ময়মনসিংহের নান্দাইলে বড়ভাই চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন বিএনপি থেকে,এবার ছোট ভাই পেয়েছেন আ’লীগের মনোনয়ন।আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৬ নং রাজগাতি ইউপি-তে বিএনপি সমর্থিত বিজয়ী চেয়ারম্যান রোকন উদ্দীনের ছোট ভাই হাজী শাহাদৎ হোসেন টুটন এবার আ’লীগের প্রার্থী হিসেবে এই মনোনয়ন পেয়েছেন।

জানা গেছে, বিএনপির মনোনয়নে ২০১৬ সালে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীকে পরাজিত করে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন রোকন উদ্দীন। আর এবার তারই ছোট ভাই আওয়ামীলীগের মনোনয়নে নৌকা প্রতীক পেলেন হাজী শাহাদৎ হোসেন টুটন।এই বিষয়টি নিয়ে এলাকায় চলছে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়,উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকাটি হচ্ছে রাজগাতি। আগামী ৫ জানুয়ারী সেখানে অনুষ্ঠিত হবে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। প্রায় ৩০ হাজার জনগণের এ এলাকায় ২০১৬ সালে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী ইফতেকার মমতাজ খোকনকে পরাজিত করে নির্বাচিত হন ইউনিয়ন বিএনপির সহ-সভাপতি রোকন উদ্দিন।এদিকে ১২টি ইউনিয়নের মধ্যে তখন বিএনপি থেকে একজনই নির্বাচিত হয়েছিলেন। আসন্ন ইউপি নির্বাচনে এ ইউনিয়ন থেকে বর্তমান এমপি সমর্থিত হয়ে কেন্দ্রে নাম যায় উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ও উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি ইফতেকার মমতাজ খোকন ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আব্দুর রউফ বাবলু মিয়ার। অপর দিকে সাবেক সাংসদ মনোনীত প্রার্থী হয়ে কেন্দ্রে নাম যায় উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা আনোয়ার হোসেন ও ইউনিয়নর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি উবায়দুর রহমান পাবেল ও বিএনপি পরিবারের ইউনিয়ন আওয়ামীগের নেতা দাবিদার হাজী শাহাদৎ হোসেন টুটনের নাম। সেখান থেকে গত শনিবার রাতে নৌকার মনোনয়ন পান বিএনপি সমর্থিত বর্তমান চেয়ারম্যান রোকন উদ্দিনের ছোট ভাই হাজী শাহাদৎ হোসেন টুটন।

এ বিষয়ে আ’লীগের মনোনয়ন পাওয়া শাহাদৎ হোসেন টুটন বলেন,আমার যোগ্যতায় আমি নৌকা পেয়েছি। ভাই ভাইয়ের জায়গায়। সারা জীবন আমি আওয়ামীলীগের হয়ে শ্রম দিয়ে যোগ্যতা প্রমাণ করেছি।

একই বিষয়ে বর্তমান চেয়ারম্যান এবং শাহাদাৎ হোসেন টুটনের বড়ভাই রোকন উদ্দিন বলেন,আমি বিএনপির বড় কোনো পদে নাই। শুধু নামেমাত্র বিএনপি করেছি। এখন ছোট ভাই তার যোগ্যতার প্রমাণ দিয়ে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন পাওয়ায় আমি আর নির্বাচন করবো না। ভাইয়ের জন্য মাঠে কাজ করবো। এলাকাবাসী বলেন, টুটনের পরিবারের সকলেই বিএনপির সমর্থক এটা এই এলাকায় স্বীকৃত।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন