বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২২, ১৩ মাঘ ১৪২৮, ২৩ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

ওপেন স্কাই ঘোষণা করে ফ্লাইট সঙ্কট নিরসন করুন মানববন্ধনে রিক্রুটিং এজেন্সির নেতৃবৃন্দ

জনশক্তি রফতানি খাতের স্বার্থে--

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৯ ডিসেম্বর, ২০২১, ৬:২৮ পিএম

মধ্যপ্রাচ্যগামী হাজার হাজার কর্মী বিমানের টিকিট না পেয়ে তাদের ভিসা ও ছুটির মেয়াদ শেষ হবার উপক্রম। বিদেশের কর্মস্থলে দ্রুত পৌঁছতে ওপেন স্কাই ঘোষণা করে ফ্লাইট সঙ্কট নিরসন করতে হবে। অন্যথায় হাজার হাজার বিদেশগামী কর্মী চাকরি হারানোর আশঙ্কায় ভুগছেন। ফ্লাইটের স্বল্পতায় এয়ারলাইন্সগুলো সিন্ডিকেট করে মধ্যপ্রাচ্যগামী কর্মীদের ভাড়া দ্বিগুণ থেকে তিনগুন বাড়িয়েছে। ঢাকা-রিয়াদ ওয়ানওয়ে একটি টিকিটের মূল্য ৪০ হাজার টাকার স্থলে ৯০ হাজার টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

আজ বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে টিকিটের অতিরিক্ত মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদ এবং কর্মস্থলে দ্রæত পৌঁছার লক্ষ্যে ফ্লাইট সঙ্কট নিরসনের দাবিতে রিক্রুটিং এজেন্সির মালিকবৃন্দ আয়োজিত মানববন্ধন কর্মসূচিতে নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন। রিক্রুটিং এজেন্সিজ ঐক্য পরিষদের সভাপতি এম টিপু সুলতানের সভাপতিত্বে এতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বায়রার সাবেক ইসি সদস্য লিমা বেগম, সচেতন বায়রা গণতান্ত্রিক ফোরামের আহবায়ক মোশাররফ হোসেন, আরিফুর রহমান, মোস্তফা মাহমুদ, এম সাইফুল ইসলাম, কাজী আব্দুর রহিম, আবু জাফর মো. সালেহ,জামিল হোসেন, শেখ ইকবাল, শান্ত দেব সাহা কবির হোসেন, আক্তার হোসেন, আহমেদুল্লাহ বাচ্চু, শাহরিয়ার হোসেন, আনোয়ার হোসেন ও শাহীন উদ্দিন ।

এম টিপু সুলতান বলেন, জরুরী ভিত্তিতে বাংলাদেশ বিমানসহ মধ্যপ্রাচ্যগামী এয়ারলাইন্স গুলোর ফ্লাইট সংখ্যা বৃদ্ধি করা সম্ভব না হলে জনশক্তি রফতানি খাতে বিপর্যয়ের আশঙ্কা রয়েছে। তিনি অনতিবিলম্বে ওপেন স্কাই ঘোষণা করে বিদেশগামী কর্মীদের ফ্লাইট সঙ্কট নিরসন এবং বিমান ভাড়া সহনীয় পর্যায়ে কমিয়ে আনার লক্ষ্যে লেবার ফেয়ার নির্ধারণের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন। নেতৃবৃন্দ বলেন, বাংলাদেশ বিমান যেহেতু মাত্র ১৫% এর কম যাত্রী বহন করে ফলে ৮৫% এর অধিক যাত্রী বহন করে ৩ গুন বর্ধিত ভাড়া বাড়িয়ে কষ্টার্জিত বৈদেশিক মুদ্রা বিদেশী এয়ারলাইন্স সমুহ দেশ হতে নিয়ে যাচ্ছে। প্রতিবেশী ভারত, পাকিস্তান, নেপাল, শ্রীলঙ্কা হতে মধ্যপ্রারচ্যের দেশ সমূহের এয়ার টিকিটের মূল্য অনেক কম হলেও বাংলাদেশ হতে একই গন্তব্যের এয়ার টিকিটের মূল্য ৯৫ হাজার টাকার অধিক। এয়ার টিকিটের এই লাগামহীন অযৌক্তিক ৩ গুন মূল্যবৃদ্ধির প্রকৃত কারণ অনুসন্ধানে অবিলম্বে উচ্চ পর্যায়ের তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত দোষীদের (সিন্ডিকেট) এর দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি প্রদান করা দেশের স্বার্থে অপরিহার্য।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন