বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ০৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

এশিয়ান চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি হকি টার্ফে গড়াচ্ছে মঙ্গলবার

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৩ ডিসেম্বর, ২০২১, ৮:৪০ পিএম | আপডেট : ৮:৪১ পিএম, ১৩ ডিসেম্বর, ২০২১

প্রাণঘাতি করোনাভাইরাসের বিষাক্ত ছোবলে গোটা পৃথিবী নীল হওয়ার দু’বছর আগে ঢাকায় অনুষ্ঠিত হয়েছিল সর্বশেষ আন্তর্জাতিক হকি টুর্নামেন্টের খেলা। ২০১৭ সালের অক্টোবরে মওলানা ভাসানী জাতীয় হকি স্টেডিয়ামে বসেছিল এশিয়া কাপের দশম আসর। এরপর দেশে আর কোন আন্তর্জাতিক হকি টুর্নামেন্ট আয়োজন হয়নি। দীর্ঘ চার বছর পর এই স্টেডিয়ামের নীল টার্ফে গড়াচ্ছে আরেকটি আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট। সব প্রস্তুতি সম্পন্ন। মঙ্গলবার থেকে শুরু হচ্ছে এশিয়া হকির অন্যতম মর্যাদার টুর্নামেন্ট এশিয়ান চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির খেলা। এ আসরে খেলছে স্বাগতিক বাংলাদেশ, পাকিস্তান, ভারত, দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপান। আসরের প্রথমদিন ভিন্ন প্রতিপক্ষের মুখোমুখি হচ্ছে ভারত ও পাকিস্তান। দিনের প্রথম ম্যাচে ভারত খেলবে দক্ষিণ কোরিয়ার বিপক্ষে। ম্যাচ শুরু হবে বিকাল সাড়ে ৩টায়। সন্ধ্যা ৬টায় আরেক ম্যাচে পাকিস্তানের প্রতিপক্ষ জাপান। এই টুর্নামেন্টের সবগুলো ম্যাচ স্টার স্পোর্টস ১ ও ২ চ্যানেল সরাসরি সম্প্রচার করবে। তাদের মাধ্যমে বিশ্বের ৭৫টি দেশের টিভি চ্যানেল দেখালেও বাংলাদেশের কোনো চ্যানেল খেলা দেখাচ্ছে না।

টুর্নামেন্টকে সামনে রেখে এর ট্রফি উম্মোচন হলো সোমবার। এদিন মওলানা ভাসানী স্টেডিয়ামের নীল টার্ফের পাশে মঞ্চে সাজানো চকচকে সোনালী ট্রফির দিকে আড়চোখে তাকাচ্ছিলেন অংশগ্রহণকারী পাঁচ দেশের অধিনায়করা। চ্যাম্পিয়ন হওয়ার সুযোগটা বাংলাদেশের কম। তারপরও এমন ট্রফির সঙ্গে ছবি তুলতে লাল-সবুজের অধিনায়ক আশরাফুল ইসলামের আগ্রহ ছিল অনেক বেশি।

করোনাভাইরাসের কারণে তিনবার পিছিয়ে এই টুর্নামেন্ট অবশেষে টার্ফে গড়াচ্ছে। এবারও এমন সময় টুর্নামেন্ট শুরু হচ্ছে, যখন আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রিন আতঙ্কে পুরো বিশ্ব তটস্থ। ইতোমধ্যে বাংলাদেশের দুই ক্রিকেটারের শরীরেও ওমিক্রনের ধরণ পাওয়া গেছে। একজন খেলোয়াড়ের করোনা পজিটিভ হওয়ায় শেষ মুহুর্তে টুর্নামেন্ট থেকে নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছে মালয়েশিয়া। যে কারণে ছয় দলের আসর এখন হচ্ছে পাঁচ দলকে নিয়ে। করোনার কারণে থাকছে কড়া নিয়ম-নীতি। টিকার দুই ডোজের সনদ যাদের আছে, তাদেরকেই অ্যাক্রিডেশন দেয়া হয়েছে। তবে গ্যালারি থাকছে উন্মুক্ত। টিকিট ছাড়াই খেলা দেখতে পারবেন দর্শকরা। পাঁচ দেশের খেলোয়াড়রাও থাকবেন বায়ো-বাবলের মধ্যে।

কেবল আয়োজক হওয়ার সুবাদেই এ টুর্নামেন্টে খেলার সুযোগ পেয়েছে বাংলাদেশ। এতেই তৃপ্তি বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের (বাহফে)। তাই তো ট্রফি উন্মোচন অনুষ্ঠানে বাহফের সহ-সভাপতি ও টুর্নামেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান আবদুর রশিদ শিকদার বলেন, ‘আমরা যত বেশি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলব, আমাদের খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্স তত বেশি উন্নত হবে। এ আসরের সবচেয়ে বড় দিক হচ্ছে এশিয়া কাপে দুটি গ্রুপ থাকে। সেখানে কিন্তু সবগুলো দলের বিপক্ষে আমাদের খেলার সুযোগ হয় না। কিন্তু চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে বাংলাদেশ এশিয়ার সব সেরা দলগুলোর বিপক্ষে খেলার সুযোগ পাবে।’ অধিনায়ক আশরাফুলের কাছে টুর্নামেন্টটি অভিজ্ঞতা অর্জনের। তার কথায়,‘অনেক বড় প্রতিযোগিতা এটা। টুর্নামেন্টে আমরা সামর্থের চেয়েও সেরাটা দেয়ার লক্ষ্য নিয়ে খেলবো। আমাদের প্রধান লক্ষ্য টুর্নামেন্টে ভালো খেলা।’

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে থাকছে না কোনো জমকালো আয়োজন। তবে সমাপনীতে আয়োজনে থাকবে ব্যাপকতা। সেই আয়োজনের সাক্ষী হওয়ার অপেক্ষায় দেশের পুরো হকিঅঙ্গণ। শক্তির বিচারে টুর্নামেন্টের বাকি চার দলের চেয়ে অনেক পিছিয়ে বাংলাদেশ। আগের ছয় আসরে সমান তিনবার করে চ্যাম্পিয়ন হওয়া ভারত ও পাকিস্তান এবারো ফেভারিট। ২০১৮ সালে ওমানে অনুষ্ঠিত সর্বশেষ আসরে যৌথভাবে ট্রফি জিতেছিল তারা। এশিয়ার মর্যাদাপূর্ণ টুর্নামেন্টে কে জিতবে সেরার খেতাব, কার ঘরে উঠবে চকচকে সোনালী ট্রফি? তার উত্তর জানা যাবে ২২ ডিসেম্বর ফাইনালের মধ্যদিয়ে।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন