বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৩ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

ব্যবসা বাণিজ্য

‘পুঁজিবাজারের সুন্দর ভবিষ্যৎ দেখতে পাচ্ছি’

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৮ ডিসেম্বর, ২০২১, ১২:০৫ এএম

বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) চেয়ারম্যান শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম বলেছেন, পুঁজিবাজারের সুন্দর ভবিষ্যৎ দেখা যাচ্ছে। তিনি বলেন, বন্ড মার্কেট নিয়ে আমরা কাজ করছি। এখানে বেশ কিছু আইনের পরিবর্তনের বিষয় আসবে। যেন বন্ড নিয়ে আরও বড় পরিসরে কাজ করা যায়। ছোট বিষয়গুলো সমাধানের পথে। যেহেতু আইন পরিবর্তনের বিষয় আছে, সেটি একদিন বা এক ঘণ্টায় করা যায় না। তাই আমাদের কিছু সময় দিতে হবে। সব মিলিয়ে আমরা পুঁজিবাজারের সুন্দর ভবিষ্যৎ দেখতে পাচ্ছি।

শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম বলেন, আমাদের এই নতুন বাংলাদেশে অনেক কিছু করার সুযোগ আছে। আবার বাধা ও সমস্যা আছে। সবচেয়ে বড় সমস্যা মানুষের কাছে সঠিক তথ্য পৌঁছানো। পুঁজিবাজারে ফিন্যান্সিয়াল লিটারেসি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এ বিষয়গুলো নিয়ে আমাদের দুটি প্রতিষ্ঠান কাজ করছে। একই সঙ্গে ইক্যুইটিভিত্তিক ক্যাপিটাল মার্কেটে নতুন নতুন প্রোডাক্ট দিয়ে বড় করার চেষ্টা করছি।
রাজধানীর একটি হোটেলে বুধবার ক্যাপিটাল মার্কেট জার্নালিস্টস ফোরাম (সিএমজেএফ) এর ‘বেস্ট রিপোর্টিং অ্যাওয়ার্ড প্রদান ও ফ্যামিলি ডে’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
প্রফেসর শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম বলেন, আমাদের অনেকেই কমিউনিটি মার্কেট নিয়ে কাজ করতে চান। শেয়ার কেনা-বেচার ক্ষেত্রে যে লিমিট আছে সেটি বাড়ানোর দাবি জানিয়েছেন ব্রোকারেজ অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতিসহ অনেকে। আমাদের কাছে পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্টরা আরও অনেক ধরনের সুবিধা চান। সবকিছুই আমরা অল্প কয়েক মাস পরই সিসিবিএল এর মাধ্যমে দিতে পারব।
এর মাধ্যমে অনেক ধরনের সুযোগ সুবিধা সেকেন্ডারি মার্কেটে যোগ করা সম্ভব হবে।
তিনি বলেন, অর্ধশত বছর আগে স্বাধীন সার্বভৌম দেশ হিসেবে যাত্রা শুরু করে বাংলাদেশ। যার অন্যতম প্রধান লক্ষ্য ছিল অর্থনৈতিক মুক্তির মাধ্যমে বিশ্বের সামনে উন্নত জাতি হিসেবে মাথা উচু করে দাঁড়ানো। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বে দ্রুত গতিতে সেই লক্ষ্যের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ। আমি বিশ্বাস করি এই অগ্রযাত্রাকে আরও গতিশীল করতে দরকার একটি শক্তিশালী পুঁজিবাজার। এ জন্য বাজার ব্যবস্থাপনাকে আরও উন্নত করার বিকল্প নেই। এই কাজে সরকার, নিয়ন্ত্রক সংস্থার পাশাপাশি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে সাংবাদিকদের। তারা সমস্যা চিহ্নিত করে দিলে সরকার বা নিয়ন্ত্রক সংস্থার পক্ষে তা সমাধানে উদ্যোগ নিতে সহজ হয়।
অনুষ্ঠানে তিন ক্যাটাগরিতে তিনজন সাংবাদিক ‘বেস্ট রিপোর্টিং অ্যাওয়ার্ড’ পান। এতে যমুনা টেলিভিশনের আলমগীর হোসেন, ডেইলি স্টারের আহসান হাবিব রাসেল ও জাগো নিউজের সাঈদ শিপন সেরা পুরষ্কার পান।
সিএমজেএফ সাধারণ সম্পাদক মনির হোসেনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্যে সিএমজেএফ সভাপতি হাসান ইমাম রুবেল বলেন, বিএসইসি নতুন নেতৃত্বে কাজের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার মাধ্যমে পুঁজিবাজারে গতিশীলতা আনার চেষ্টা করছে। এ কাজ পূর্ণতা পাবে গণমাধ্যমের সহযোগিতায়। পুঁজিবাজারের আরও তথ্যবহুল সংবাদ প্রকাশ পেলে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা বাড়বে। আয়োজনে বিএসইসি কমিশনারসহ পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন