শনিবার, ২১ মে ২০২২, ০৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৯ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

ক্রাইস্টচার্চ মসজিদে হামলা সাহসিকতায় দুই মুসলিমের শীর্ষ পুরস্কার

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২০ ডিসেম্বর, ২০২১, ১২:০০ এএম

২০১৯ সালে নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চ মসজিদে হামলার সময় হামলাকারীকে বাধা দেয়া এবং মুসল্লিদের রক্ষা চেষ্টার জন্য ডক্টর নাইম রশীদ ও আব্দুল আজিজকে দেশটির সর্বোচ্চ সাহসিকতার পুরস্কার নিউজিল্যান্ড ক্রস দেয়া হয়েছে।

ডক্টর রশীদ হামলাকারী বন্দুকধারীকে ঠেকাতে গিয়ে প্রাণ হারান। তিনি ও তার ছেলে হামলার দিনে আল নূর মসজিদে জুম্মার নামাজ পড়তে গিয়েছিলেন। হঠাৎ এক বন্দুকধারী ঢুকে নির্বিচারে গুলি করা শুরু করে। হামলাকারী যখন মুসল্লিদের দিকে গুলি করছিলেন তখন ডক্টর রশীদ পেছন থেকে দৌড়ে বন্দুকধারীর দিকে ছুটে যান। তিনি যখন হামলাকারীর তিন ফুট কাছে যান, দক্ষিণপন্থী ওই সন্ত্রাসী টের পেয়ে ঘুরে গুলি ছুড়ে।

কাঁধে গুলিবিদ্ধ হয়েও ডক্টর রশীদ ছুটে গিয়ে হামলাকারীকে জাপটে ধরে মাটিতে ফেলে দিতে সক্ষম হন। হামলাকারী উঠে আবার গুলি করলে তিনি মারা যান। কিন্তু তার এই অসীম সাহসিকতার কারণে কমপক্ষে সাতজনের প্রাণ বাঁচে। তারা ওই সময় পালিয়ে নিরাপদ জায়গায় চলে যান। নিউজিল্যান্ড ক্রস পাওয়া অপর ব্যক্তি আব্দুল আজিজ ছেলেকে নিয়ে নামাজ পড়তে গিয়েছিলেন লিনউড মসজিদে। বন্দুকধারী ক্রাইস্টচার্চে হামলার পরে লিনউডে হামলা চালায়। নির্বিচারে গুলি করতে করতে গুলি শেষ হয়ে যাওয়ায় গাড়িতে এসে আরেকটি বন্দুক নেয়। এ সময় আব্দুল আজিজ হাতের কাছে একটি ক্রেডিট কার্ড মেশিন পেয়ে সেটা নিয়েই চিৎকার করতে করতে বন্দুকধারীর দিকে ধেয়ে আসেন।

বন্দুকধারী গুলি করলে তিনি একটি গাড়ির আড়ালে লুকিয়ে যান। বন্দুকধারীর ফেলে দেয়া বন্দুকটি আজিজ তুলে নেন। বন্দুকধারীকে গুলি করতে গিয়ে দেখেন গুলি নেই। তিনি গাড়ির আড়াল থেকে চিৎকার করে বন্দুকধারীকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করেন। এরপর বন্দুকটি দিয়ে হামলাকারীর গাড়ির পেছনের জানালা ভেঙে ফেলেন। হামলাকারী প্রতিরোধের মুখে ঘটনাস্থল থেকে গাড়ি চালিয়ে পালিয়ে যান।

সর্বোচ্চ সাহসিকতার পুরস্কার নিউজিলান্ড ক্রস প্রবর্তন করা হয় ১৯৯৯ সালে। এর আগে মাত্র দুইজন এই পুরস্কার পেয়েছেন। ক্রাইস্টচার্চ মসজিদে হামলার সময় সাহসী ভ‚মিকার জন্য আরো আটজনকে বিভিন্ন সাহসিকতা পুরস্কার দেয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আর্ডার্ন এই সাহসিকতাকে স্বার্থহীন ও অনন্য বলে উল্লেখ করেছেন। তিনি সাহসিকতার জন্য পুরস্কৃতদের প্রতি বিশেষ সম্মান জানান।

২০১৯ সালে ক্রাইস্টচার্চে দুইটি মসজিদে হামলা চালিয়েছিল এক দক্ষিণপন্থী সন্ত্রাসী। বন্দুক নিয়ে মসজিদে ঢুকে সাধারণ মানুষের উপর গুলি চালান। ঘটনায় ৫১ জন সাধারণ মুসলিমের মৃত্যু হয়েছিল। ঘটনার পর অপরাধীকে গ্রেফতার করা হয়। গত বছর নিউজিল্যান্ডের আদালত তাকে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিয়েছে। সূত্র : ডয়চে ভেলে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন