সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ১৩ আষাঢ় ১৪২৯, ২৬ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

ইসি গঠনের আইন চায় জাসদ

প্রেসিডেন্টের সাথে সংলাপ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৩ ডিসেম্বর, ২০২১, ১২:০১ এএম

নির্বাচন কমিশন (ইসি) গঠনে সংবিধানের ১১৮ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী প্রয়োজনীয় আইন প্রণয়নে প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ ভ‚মিকা রাখবেন এটাই চায় জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ)। দলটি অভিমত, নির্বাচন কমিশন গঠন নিয়ে পাঁচ বছর পর পর একটি বিব্রতকর অবস্থায় পড়তে হয়। এ অবস্থা থেকে যেন স্থায়ী একটি সমাধান পাওয়া যায়, তার জন্য তারা প্রেসিডেন্টের ভ‚মিকা প্রত্যাশা করেন। নির্বাচন কমিশন গঠন নিয়ে ভবিষ্যতে আইনি কাঠামো করতে প্রেসিডেন্ট যেন সরকারকে দিক নির্দেশনা দেন, জাসদ সেরকম প্রস্তব উপস্থাপন করেছে।
গতকাল বঙ্গভবনে জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনুর নেতৃত্বে প্রেসিডেন্টের সঙ্গে সংলাপে অংশ নিয়ে দলটি এ প্রস্তাব দেয়। সংলাপে অংশ নেয়া জাসদের অন্য সসদ্যরা হলেন সাধারণ সম্পাদক শিরিন আখতার, কার্যকরী সভাপতি রবিউল আলম, স্থায়ী কমিটির সদস্য মোশারেফ হোসেন, সহ-সভাপতি মীর হোসাইন আখতার ও রেজাউল করিম তানসেন।

সংলাপে অংশ নেওয়ার পর বঙ্গভবনের সামনে অপেক্ষমান সাংবাদিকদের জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু বলেন, নির্বাচন কমিশনার নিয়োগের ক্ষমতা প্রেসিডেন্ট ওপর এককভাবে অর্পিত হলেও নির্বাচন কমিশন গঠনে রাজনৈতিক দলগুলাের মতামত গ্রহণের জন্য দলগুলাের সঙ্গে আলােচনার উদ্যোগ প্রেসিডেন্ট গ্রহণ করেছেন। প্রেসিডেন্টের এ মহানুভবতা ও উদার উদ্যোগকে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) সাধুবাদ জানায়।
ইনু বলেন, সংবিধানে নির্বাচন কশিমন গঠনের সুনির্দিষ্ট আইন প্রণয়নের তাগিদ দেওয়া থাকলেও দুর্ভাগ্যক্রমে এখনও পর্যন্ত সে আইন প্রণীত হয়নি। এমন পরিস্থিতিতে আমাদের দল জাসদ মনে করে যে তুলনামূলকভাবে যথোপযুক্ত দক্ষ ব্যক্তিদের খুঁজে বের করতে সার্চ কমিটি গঠন একটি গ্রহণযোগ্য প্রক্রিয়া। আমরা আশা করি যে প্রেসিডেন্ট সার্চ কমিটি গঠন করে যথোপযুক্ত দক্ষ ব্যক্তিদের খুঁজে বের করে প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও অন্যান্য নির্বাচন কমিশনার নিয়ােগ প্রদান করবেন।

তিনি বলেন, জাসদ মনে করে যে সার্চ কমিটি গঠনে ব্যক্তির নাম প্রস্তাব করা সমীচীন নয়। আমরা বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের বিচারপতিগণ, বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশনের চেয়ারম্যান, মহাহিসাব নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রকসহ সাংবিধানিক পদে অধিষ্ঠিত ব্যক্তিদের মধ্য থেকেই সার্চ কমিটির সদস্য মনােনয়ন দেওয়া সমীচীন মনে করি।

আইন প্রণয়নের দায়িত্ব সংসদের, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে জাসদ সভাপতি বলেন, আইন সংসদকেই করতে হবে। কিন্তু প্রেসিডেন্ট সংবিধানের রক্ষক। সংবিধানের নির্দেশনা বাস্তবায়নে তিনি ভ‚মিকা রাখতে পারেন। আইন সরকারই করবে, সংসদই করবে। কিন্তু প্রেসিডেন্ট এ ক্ষেত্রে ভ‚মিকা রাখতে পারেন। তিনি যেন সংবিধানের ১১৮ অনুচ্ছেদ বাস্তবায়নের উদ্যোগ নিতে সরকারকে পরামর্শ দেন, আমরা সেটিই বলেছি।

জাসদ সভাপতি বলেন, নির্বাচন কমিশন গঠনের এখতিয়ার প্রেসিডেন্টের। এ বিষয়ে সংবিধানে আইন প্রণয়নের কথা বলা আছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত কেউ সেই আইন প্রণয়নের উদ্যোগ নেয়নি। ফলে নির্বাচন কমিশন গঠনের প্রসঙ্গ এলেই বিব্রত হতে হয়। সব মহলকে বিব্রত হওয়ার হাত থেকে রেহাই দেওয়ার জন্যই আমরা প্রেসিডেন্টের দিক নির্দেশনা চেয়েছি।

উল্লেখ্য, নতুন ইসি গঠনে প্রেসিডেন্টের সংলাপে অংশ নেওয়া দ্বিতীয় দল জাসদ। এর আগে গত ১৮ ডিসেম্বর জাতীয় পার্টি (জাপা) প্রথম দল হিসাবে প্রেসিডেন্টের সঙ্গে সংলাপে অংশগ্রহণ করে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps