রোববার, ২৬ জুন ২০২২, ১২ আষাঢ় ১৪২৯, ২৫ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

মহানগর

ঝালকাঠিতে লঞ্চে আগুন: ঢাকায় পাঠানো কেউ আশঙ্কামুক্ত নন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৪ ডিসেম্বর, ২০২১, ৮:৪২ পিএম | আপডেট : ৮:৫১ পিএম, ২৪ ডিসেম্বর, ২০২১

ঝালকাঠিতে সুগন্ধা নদীর বুকে লঞ্চের আগুনে যারা আহত হয়ে ঢাকা মেডিক্যালের শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি হয়েছেন, তাদের কেউ আশঙ্কামুক্ত নন বলে জানিয়েছেন এর সমন্বয়ক সামন্ত লাল সেন। তিনি বলেন, বরিশাল থেকে ১০ জনকে আমাদের এখানে পাঠিয়েছে। এর মধ্যে পাঁচজন এসে পৌঁছেছে। তাদের মধ্যে ৩০ থেকে ৪০ শতাংশ বার্ন রয়েছে। এদের কেউই আশঙ্কামুক্ত নন। শুক্রবার (২৪ ডিসেম্বর) ভোরে ঝালকাঠির সুগন্ধা নদীতে যাত্রীবোঝাই একটি লঞ্চে বিস্ফোরণের পর আগুন ধরে গিয়ে অন্তত ৩৮ জন মারা গেছেন।

ঝালকাঠির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মইনুল হক জানান, ৭০ জনের বেশি দগ্ধ যাত্রীকে ঝালকাঠি সদর হাসপাতাল ও বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। সেখানে একপর্যায়ে সবাইকে তাৎক্ষণিকভাবে শয্যা দেয়াও সম্ভব হয়নি। যদিও পরে শয্যার ব্যবস্থা হয়েছে। তবে বরিশালে এই রোগীদের সুচিকিৎসা অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। এর কারণ সেখানে বার্ন ইউনিট থাকলেও চিকিৎসক নেই।

শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক এইচ এম সাইফুল ইসলাম বলেন, চিকিৎসক না থাকায় দীর্ঘদিন আমাদের বার্ন ইউনিট বন্ধ রয়েছে, তবে সার্জারি ওয়ার্ডে ও চক্ষু বিভাগে দগ্ধ রোগীদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। হাসপাতালের চিকিৎসক, নার্স এবং স্টাফদের সাপ্তাহিক ছুটি বাতিল করা হয়েছে বলেও জানান তিনি। যাদের অবস্থা বেশি সঙ্গীন, তাদের মধ্যে ১০ জনকে সেখান থেকে পাঠানো হয় ঢাকায়। বরিশালের চিকিৎসক সংকট সমাধানে ঢাকার বার্ন ইউনিট থেকে একটি উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

সামন্ত লাল সেন বলেন, আমরা ইতিমধ্যে সাত সদস্যের টিম বরিশালে পাঠিয়েছি। তারা পথে আছেন। তিনি জানান, মালদ্বীপ থেকে কল করে লঞ্চের আগুনে দগ্ধদের চিকিৎসার খোঁজ নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, দগ্ধদের সর্বোচ্চ চিকিৎসা দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন সরকারপ্রধান।

এদিকে আগুনে গুরুতর দগ্ধ আরও দুজনকে হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় আনা হচ্ছে। র‍্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন শুক্রবার সন্ধ্যায় এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps