শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৬ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

তীব্র শৈত্যপ্রবাহ এ মাসেই

তাপমাত্রা নামবে ৪-৬ ডিগ্রিতে

শফিউল আলম | প্রকাশের সময় : ৫ জানুয়ারি, ২০২২, ১২:০৪ এএম

চলতি জানুয়ারি মাসে দেশে ২ থেকে ৩টি শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে। এরমধ্যে একটি তীব্র শৈত্যপ্রবাহে রূপ নিতে পারে। তীব্র শৈত্যপ্রবাহের সময় তাপমাত্রা নেমে যেতে পারে ৪ থেকে ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। আর দিনের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে কিছুটা কম থাকতে পারে। উত্তরাঞ্চল, উত্তর-পূর্বাঞ্চল, উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল, মধ্যাঞ্চল ও নদ-নদী অববাহিকায় মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা এবং দেশের অন্যত্র হালকা থেকে মাঝারি ধরনের কুয়াশা পড়তে পারে। ঘন কুয়াশা পরিস্থিতি কখনও কখনও দুপুর পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে।

আবহাওয়া বিভাগের বিশেষজ্ঞ কমিটি উপরোক্ত দীর্ঘমেয়াদি পূর্বাভাস প্রদান করেছে। গত রোববার আবহাওয়া বিভাগের ঝড় সতর্কীকরণ কেন্দ্র ঢাকায় ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠিত উক্ত বিশেষজ্ঞ কমিটির সভায় সভাপতিত্ব করেন আবহাওয়া বিভাগের পরিচালক (চলতি দায়িত্ব) বিশেষজ্ঞ কমিটির চেয়ারম্যান মো. আজিজুর রহমান।

পৌষের তৃতীয় সপ্তাহে এসে দিন ও রাতের তাপমাত্রা ক্রমান্বয়ে হ্রাস এবং কুয়াশার ঘনত্ব বৃদ্ধি ও বিস্তারের সাথে সাথে শীত জেঁকে বসছে। গতকাল দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল নওগাঁ জেলার বদলগাছীতে ১০ ডিগ্রি সে.। ঢাকায়ও তাপমাত্রা নেমে গেছে ১৪.৩ ডিগ্রিতে। দেশের অধিকাংশ স্থানে রাত থেকে ভোর-সকাল পর্যন্ত তাপমাত্রা ১১ থেকে ১৪ ডিগ্রির ঘরে।

আগামী ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে জানা গেছে, অস্থায়ীভাবে আকাশ আংশিক মেঘলাসহ সারা দেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। দেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল ও নদ-নদী অববাহিকার কোথাও কোথাও মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা পড়তে পারে। দেশের অন্যত্র হালকা থেকে মাঝারি ধরনের কুয়াশা পড়তে পারে। সারা দেশে রাত ও দিনের তাপমাত্রা সামান্য হ্রাস পেতে পারে। পরবর্তী ৭২ ঘণ্টায় রাতের তাপমাত্রা আরও হ্রাস পেতে পারে।

এদিকে গত রোববারের সভায় দেয়া পূর্বাভাসে আরও জানা গেছে, চলতি মাসে দেশে সার্বিকভাবে স্বাভাবিকের চেয়ে কম বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। তবে গত বছরের ডিসেম্বর মাসে সারা দেশে সার্বিকভাবে স্বাভাবিকের চেয়ে ৫ গুণ বেশি বৃষ্টিপাত হয়েছে। যদিও বিভাগওয়ারি হিসাবে বৃষ্টিপাতের ক্ষেত্রে অসঙ্গতি রয়েছে। জানুয়ারি মাসে ঢাকা বিভাগে স্বাভাবিক গড় বৃষ্টিপাত ধরা হয় ১০ মিলিমিটার।

অথচ বাস্তবে বৃষ্টি ঝরেছে ৯৭.৩ মি.মি., যা স্বাভাবিকের চেয়ে ৮৮০ শতাংশ বেশি। চট্টগ্রাম বিভাগে ৭৬৪ শতাংশ, খুলনা বিভাগে ৭৯৯ শতাংশ, সিলেট বিভাগে ২৮৮ শতাংশ বেশি বৃষ্টিপাত হয়েছে। অন্যদিকে স্বাভাবিকের চেয়ে রাজশাহী বিভাগে ৬০ শতাংশ ও রংপুর বিভাগে ৫৭ শতাংশ কম বৃষ্টিপাত হয়েছে। ডিসেম্বর মাসে আন্দামান ও দক্ষিণ-পশ্চিম ও সংলগ্ন বঙ্গোপসাগরে ঘন ঘন লঘুচাপ, নিম্নচাপ সৃষ্টি হওয়ায় দেশে অস্বাভাবিক বেশিহারে বৃষ্টিপাত হয়েছে। গত বছরের নভেম্বর মাসে দেশে সার্বিকভাবে স্বাভাবিকের চেয়ে গড়ে ৭৯ দশমিক ৬ শতাংশ কম বৃষ্টিপাত হয়েছে।

ডিসেম্বর মাসে দেশে মৌসুমের এ সময়ের স্বাভাবিকের চেয়ে দিনের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা দশমিক ২ ডিগ্রি সে. বেশি এবং রাতের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা এক ডিগ্রি সে. বেশি ছিল। গত মাসে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল কক্সবাজারে ৩৩.৭ এবং সর্বনিম্ন চুয়াডাঙ্গায় ৭ ডিগ্রি সে. রেকর্ড করা হয়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (7)
Ziared Rahman ৪ জানুয়ারি, ২০২২, ১:০৭ এএম says : 0
এই শীতে গরীব দুঃখী মানুষের যে কি কষ্ট হয় তা বলার মতো না, ঠান্ডা পানি, শীতের কাপর নেই, ঘরে বাতাস প্রবেশ করে, রান্না, খাওয়া, ইত্যাদি কষ্টের শেষ নেই। যাদের সামর্থ্য আছে দয়া করে গরীব দুঃখী মানুষের পাসে দাঁড়ান ।
Total Reply(0)
Md Sumon ৪ জানুয়ারি, ২০২২, ১:০৭ এএম says : 0
শীতকালটা আমার ভীষন অপ্রিয় হাত পা শুষ্ক হয়ে যায় তার উপর শৈত্য প্রবাহ ।ভীষন খারাপ খবর।
Total Reply(0)
Shamim Ahmed ৪ জানুয়ারি, ২০২২, ১:০৮ এএম says : 0
অসহায় হতদরিদ্র মানুষের পাশে শীত বস্ত্র নিয়ে বিত্তবান মানুষ দাঁড়াবেন এটাই প্রত্যাশা।
Total Reply(0)
Nurujjaman Bijoy ৪ জানুয়ারি, ২০২২, ১:০৮ এএম says : 0
লোকদেখানো হৌক বা মন থেকে, সবাই সবার অবস্থান থেকে আসুন শীতার্তদের পাশে দাড়াই । উরাও মানুষ, উদেরও বাচতে ইচ্ছে করে।
Total Reply(0)
Bijoy Chandra Mollik ৪ জানুয়ারি, ২০২২, ১:০৯ এএম says : 0
দারুণ একসময় কিন্তু শীতার্ত মানুষের কথা ভাবতে কষ্ঠ লাগে।
Total Reply(0)
Farid Rana ৪ জানুয়ারি, ২০২২, ১:০৯ এএম says : 0
এই শৈতপ্রবাহের মধ্যে দেশের বিভিন্ন স্থানে আগুন লাগছে আশ্চর্য নয় কি
Total Reply(0)
দেব প্রসাদ রায় ৪ জানুয়ারি, ২০২২, ১:০৯ এএম says : 0
শীতেকালে শীতের সেই চিরাচরিত রূপ আমার ভীষণ ভাল্লাগে
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন