সোমবার, ১৬ মে ২০২২, ০২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৪ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

‘বাংলাদেশের উত্থান টেস্ট ক্রিকেটের জন্য ভালো’

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৮ জানুয়ারি, ২০২২, ১২:০১ এএম

ক্রাইস্টচার্চ টেস্ট দিয়েই আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের ইতি টানবেন রস টেলর। এর পর থেকে ক্রিকেটে অনেক কম সময় দেবেন তিনি। ক্যারিয়ারের শেষ টেস্ট সিরিজের শুরুতেই দলের বিব্রতকর হার। দেশসেরা ব্যাটসম্যানের শেষের শুরুটা সুখকর হয়নি মোটেও। মাউন্ট মঙ্গানুই টেস্টে নিউজিল্যান্ডকে ৮ উইকেটে হারিয়ে সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেছে মুমিনুল হকের দল। বাংলাদেশ নিউজিল্যান্ডের মাটিতে দাপট ছড়িয়ে টেস্ট জিতেছে, সেটাও ঘরের মাঠে কিউইদের টানা ১৭ টেস্ট অপরাজিত থাকার ধারা ভেঙে। তবে নিজেদের হতাশা ছাপিয়ে তিনি দেখছেন বৃহত্তর ছবিটা। টেলর তাই কুর্নিশ জানিয়েছেন বাংলাদেশকে। ‘তরুন বাংলাদেশের’ এই জয় ক্রিকেট খেলাটির জন্যই দারুণ ব্যাপার বলে মনে করেন নিউজিল্যান্ডের সফলতম ব্যাটসম্যান।
বাংলাদেশ ও নিউজিল্যান্ড, দুই দলই চলে গিয়েছে দ্বিতীয় টেস্টের ভেন্যু ক্রাইস্টচার্চে। তবে রয়ে গেছে আগের টেস্টের রেশ। টেস্টের তলানির দল হারিয়ে দিয়েছে টেস্টের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নকে, এটির প্রভাব তো সহজেই যাওয়ার নয়। মাউন্ট মঙ্গানুই টেস্টের শেষ দিনে নিউজিল্যান্ডের আশা আর বাংলাদেশের মূল বাধা ছিলেন টেইলর। কিন্তু সকালেই দ্বিতীয় ওভারে টেইলরকে আউট করে বাংলাদেশ এগিয়ে যায় জয়ের পথে। অভাবনীয় এই হারে কিউইদের হৃদয়ে চোট লাগারই কথা। তবে নিজের বিদায়ী টেস্টের আগে টেইলর তাকালেন মুদ্রার উল্টোপিঠে। দ্বিতীয় টেস্টের ভেন্যু হ্যাগলি ওভালে গতকাল সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে ৩৭ বছর বয়সী ব্যাটসম্যান বললেন, টেস্ট ক্রিকেটের জন্য সুখবর বাংলাদেশের জয়, ‘নিরপেক্ষ দৃষ্টিকোণ থেকে দেখলে, আমার মনে হয় এটি (বাংলাদেশের জয়) বিশ্ব ক্রিকেটের জন্য ভালো। অবশ্যই আমরা হতাশ যে আমরা তেমন কোনো লড়াই করতে পারিনি। পুরো সময়টায় আমরা স্রেফ উড়ে গেছি। তবে আমার মনে হয়, টেস্ট ক্রিকেটের টিকে থাকার জন্য, বাংলাদেশের উঠে আসা প্রয়োজন।’
২০১০ ও ২০১৩ সালে বাংলাদেশে এসে ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশড হয়ে যাওয়া নিউজিল্যান্ড দলে ছিলেন টেইলর। তবে এবারের অভিজ্ঞতা তার জন্য যেমন, তেমনি দলের জন্যও নতুন। বাংলাদেশের বিপক্ষে দেশের মাঠে তিন সংস্করণ মিলিয়েই ৩৩ ম্যাচে প্রথমবার হেরে গেল নিউজিল্যান্ড। এখানেও নিজেদের পরাজয়ের চেয়ে বাংলাদেশের প্রাপ্তির দিকটি তুলে ধরলেন টেইলর, ‘এই জয় থেকে ওরা অনেক আত্মবিশ্বাস পাবে, শুধু এই সফরের জন্য নয়, আগামী কয়েক বছরে নিজেদের সব সফরের জন্যই আত্মবিশ্বাসী হবে ওরা।’ বে ওভালের দ্বিতীয় ইনিংসে রির্ভাস সুইং পাওয়ার পাশাপাশি পুরো সময়ই স্টাম্পে বল করে গেছেন ইবাদত। নেন ৬ উইকেট। বাংলাদেশের বোলিং প্রসঙ্গে তিনি ইবাদতের নাম না বললেও উঠে এল তার প্রসঙ্গই, ‘ওরা ধৈর্য ধরেছে। স্টাম্পে বল রেখেছে এবং আমাদের নিচে খেলতে বাধ্য করেছে। তা ছাড়া আমাদের বেশির ভাগ খেলোয়াড় তাদের ক্যারিয়ারে বেশির ভাগ মুহূর্তেই রিভার্স সুইংয়ের মুখোমুখি হয়নি।’
টেইলরের বিদায়ী টেস্টে নিউজিল্যান্ডের সিরিজ বাঁচানোর লড়াই আগামীকাল ভোর থেকে। বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের দুই ম্যাচ সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে বাংলাদেশ। এই ম্যাচ অন্তত ড্র করলেও প্রথম বারেরমতো নিউজিল্যান্ড থেকে সিরিজ জয়ের সুখস্মৃতি নিয়ে ফিরবে মুমিনুল হকের দল।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন