বৃহস্পিতবার, ১৮ আগস্ট ২০২২, ০৩ ভাদ্র ১৪২৯, ১৯ মুহাররম ১৪৪৪

অভ্যন্তরীণ

গভীর রাতে এতিমখানার প্রাচীর ভাঙচুর

পটিয়া (চট্টগ্রাম) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১০ জানুয়ারি, ২০২২, ১২:০৪ এএম

পটিয়া পৌরসদরের আলম শাহ্্ সড়ক এলাকায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে হাজী আবদুছ ছত্তার হেফজখানা ও এতিমখানার সীমানা প্রাচীর ভাঙচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত ৮ জানুয়ারি গভীর রাতে একটি সন্ত্রাসী বাহিনী এ ঘটনা ঘটায়। এ ব্যাপারে গতকাল রোববার পটিয়া থানায় হাজী আবুল কালাম বাদী হয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করেছে।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, পটিয়া পৌর সদরের ৬নং ওয়ার্ডের পাইকপাড়া বৈলতলী রোড আলম শাহ্্ সড়কে প্রবাসী আবুল বশর তার পিতার নামে হাজী আবদুছ ছত্তার জামে মসজিদ প্রতিষ্ঠা করেন। এ মসজিদের পাশে হেফজখানা ও এতিমখানা প্রতিষ্ঠার জন্য ভূমি ক্রয় করে ভূমির চারপাশে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করা হয়। এছাড়া গত ২০২১ সালের মার্চ মাসে হেফজখানা ও এতিমখানা নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করে এতিমখানা ও হেফজখানা নির্মাণের জন্য টিনশেড দিয়ে প্রাথমিক কাজ শুরু করা হয়। কিছুদিন কাজ বন্ধ থাকার পর গত ডিসেম্বর মাসে পুনরায় কাজ শুরু করলে পাশ্ববর্তী ভূমি মালিক প্রবাসী মুসার স্ত্রী ফারজানা আক্তার লোকজন নিয়ে কাজে বাঁধা দেয় এবং যে কোন মুহূর্তে সীমানা প্রাচীর ভেঙে জায়গা দখলের হুমকি দেয়। এঘটনায় ১৮ ডিসেম্বর থানায় একটি জিডি করা হয়। হাজী আবদুছ ছত্তারের পুত্র মো. ফরিদ জানান পূর্ব শত্রুতার জের ধরে গত শনিবার দিনগত রাতে একটি সশস্ত্র সন্ত্রাসী বাহিনী মসজিদের এতিমখানার সীমানা প্রাচীর ভাঙচুর চালায়। এসময় মসজিদের মুয়াজ্জিনকে গলায় কিরিচ ধরে বের হতে দেয়নি।
আমি খবর পেয়ে পটিয়া থানা পুলিশকে খবর দিলে থানার এসআই মোরশেদ আলম একদল পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে এলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। এ ব্যাপারে পটিয়া থানার এসআই মোরশেদ জানান, গভীর রাতে এতিমখানার সীমানা প্রাচীর ভাঙচুরের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গেলে ভাঙচুরকারীরা পালিয়ে যায় ঘটনাটি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন