সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ১০ মাঘ ১৪২৮, ২০ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

রুটিরুজির জোগানে বেঁচে থাকার লড়াই আফগানদের

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৫ জানুয়ারি, ২০২২, ১১:২৮ এএম

তালেবান আফগানিস্তান দখলের পর কাজ হারিয়েছেন একের পর এক আফগান নাগরিক৷ ধুঁকছে অর্থনীতি৷ রোজকার খাবারটুকুও জুটছে না৷ এমনই এক পরিবারের কথা তুলে ধরেছে জার্মানির সংবাদ সংস্থা ডয়চে ভেলে।

সৈয়দ ইয়াসিন মোসাভি৷ বছর একত্রিশের এই কুলি জানান, তালেবান অভ্যুত্থানের পর থেকে তিনি কর্মহীন৷ তার কথায়, ‘‘শীতকালে, যা প্রয়োজন তা দোকান থেকে আগে ধার করতাম, দু-তিন মাসের মধ্যে শোধ দিতাম৷’’ জিনিসের দাম এত বেড়েছে, এ বছর ভয়াবহ পরিস্থিতি, জানান ইয়াসিন৷

তালেবানের মুখপাত্র জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ রয়টার্সকে বলেন, ‘‘আমরা এই সমস্যাগুলো কমাতে চাই৷’’২০ বছরের মধ্যে আফগানিস্তানে এমন সংকট দেখা যায়নি৷ জাতিসংঘের অনুমান, প্রায় ২.৩ কোটি আফগান চরম ক্ষুধায় ভুগছে এবং প্রায় ৯০ লাখ আফগান দুর্ভিক্ষের মুখে রয়েছে৷

আফগান নাগরিকদের ৫৫ শতাংশ দ্রুত চরম ক্ষুধায় ভুগতে পারে৷ কুবরার পরিবারও তেমনই৷ তিনি বলেন, ‘‘আমরা গত বছরে দুই বস্তা আটা পেয়েছি যা এখনও ব্যবহার করছি৷ এর পরে, ঈশ্বর সাহায্য করবেন, এমনটাই ভাবছি৷’’ তিনি রয়টার্সকে জানান, ফেলে দেয়া ধাতুর টুকরো সংগ্রহ করত তার ছেলে, এখন সে কর্মহীন৷

খাদ্য সরবরাহ কম৷ এছাড়াও আফগানিস্তানে তীব্র ঠান্ডা৷ শীতে বামিয়ানের তাপমাত্রা দ্রুত হিমাঙ্কের নীচে নেমে যায়৷ এদিকে বেশিরভাগের মাথায় ত্রিপল ছাড়া কিছুই নেই৷ জ্বালানি কাঠ সংগ্রহ করাও তাই খাবার জোগাড়ের মতোই জরুরি৷

বামিয়ান আফগানিস্তানের বাইরে সবচেয়ে বেশি পরিচিত বৌদ্ধ স্থান৷ এখানে পাথরের স্তম্ভগুলিকে মূর্তি মনে করে ২০০১ সালে ধ্বংস করেছিল তালেবানরা৷ এখন বামিয়ান তুলনামূলকভাবে নিরাপদ৷ ২০১৬ সালে বামিয়ানে ম্যারাথন হয়েছিল৷

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (2)
Minhaj Sir ১৫ জানুয়ারি, ২০২২, ১১:৩৫ এএম says : 0
সবকিছু ঠিক হয়ে যাবে কিছু দিনের মধ্যেই ইনশাআল্লাহ
Total Reply(0)
Minhaj Sir ১৫ জানুয়ারি, ২০২২, ১১:৩৫ এএম says : 0
সবকিছু ঠিক হয়ে যাবে কিছু দিনের মধ্যেই ইনশাআল্লাহ
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন