শনিবার, ২১ মে ২০২২, ০৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৯ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

সিআরবি অবরুদ্ধ করার ষড়যন্ত্র চট্টগ্রামবাসী মেনে নেবে না

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৯ জানুয়ারি, ২০২২, ১২:০২ এএম

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যমন্ডিত ও চিরসবুজে ঘেরা চট্টগ্রামের উন্মুক্ত স্থান সিআরবি এলাকা অবরুদ্ধ করার ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদ জানিয়েছেন সিআরবি রক্ষায় আন্দোলনকারী সংগঠন নাগরিক সমাজ, চট্টগ্রামের নেতৃবৃন্দ। গতকাল মঙ্গলবার এক বিবৃতি নেতৃবৃন্দ বলেন, শতবর্ষী গাছ ও প্রাকৃতিক সম্পদ ধ্বংস করে বেসরকারি হাসপাতাল নির্মাণের অপচেষ্টার পাশাপাশি এখন তিনটি প্রবেশ পথে গেইট নির্মাণ করে সিআরবি এলাকায় সকল যানবাহন ও সর্বসাধারণের চলাচল বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু করেছে রেলওয়ে। রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের এমন ঔদ্ধত্যপূর্ণ কর্মকাÐ বিট্রিশ সাম্রাজ্যবাদী উপনিবেশিক শাসনের শামিল।
জনস্বার্থ বিরোধী এসব কর্মকাÐ করে রেলওয়ে কোন বেনিয়া গোষ্ঠীর স্বার্থ রক্ষা করতে চাইছে, তা প্রশ্ন রেখে নেতৃবৃন্দ বলেন, নগরবাসীর শ্বাস নেয়ার অন্যতম প্রাকৃতিক উন্মুক্ত স্থান সিআরবি এলাকাটি হেরিটেজ ঘোষিত। চট্টগ্রামের ফুসফুস খ্যাত সিআরবি নগরবাসীর বিনোদনের অন্যতম প্রধান স্থান। এখানে উন্মুক্ত মঞ্চে বাঙালির পহেলা বৈশাখ থেকে শুরু করে বছর জুড়ে কোন না কোন সাংস্কৃতিক কর্মকাÐ অনুষ্ঠিত হয়। সিআরবিতে বেসরকারি হাসপাতাল নির্মাণ চেষ্টার বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছেন চট্টগ্রামের সংস্কৃতিসেবী, পরিবেশবিদ থেকে শুরু করে রাজনীতিবিদ ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা। চট্টগ্রামবাসীর মতামতকে উপেক্ষা করে রেলওয়ের এই ধরনের কর্মকাÐ সরকারের ভাব মর্যাদা ক্ষুণœ করছে। এমন জনপ্রিয় উন্মুক্ত স্থানে সর্বসাধারণের প্রবেশাধিকার সঙ্কুচিত করে অবরুদ্ধ করার এই ষড়যন্ত্র চট্টগ্রামবাসীর কোনভাবেই মেনে নেবে না। নাগরিক সমাজের নেতৃবৃন্দ বলেন, সেনাবহিনীর নিয়ন্ত্রণাধীন ক্যান্টনমেন্ট এলাকার সড়কও সাধারণ মানুষ ব্যবহার করে। সিআরবি এলাকা কোনো ক্যান্টনমেন্টও নয়। নগরবাসীর সাংস্কৃতিক ও বিনোদনের এমন একটি স্থানে প্রবেশাধিকার সীমিত করার অপচেষ্টা সাধারণ মানুষের ‘টুটি চেপে ধরা’র শামিল। সিআরবি ধ্বংস করে হাসপাতাল নির্মাণ বন্ধের গণআন্দোলনকে বিভিন্ন প্রলোভন ও মামলার ভয় দেখিয়েও যখন থামিয়ে দিতে ব্যর্থ হয়েছে তখন রেলওয়ের দুর্নীতিগ্রস্ত একশ্রেণির অসাধু কর্মকর্তা এই গেইট নির্মাণের অপচেষ্টা করছে। শতবছরের প্রাকৃতিক পরিবেশ ধ্বংসের জনস্বার্থ বিরোধী যেকোন অপতৎপরতা চট্টগ্রামবাসি শান্তিপূর্ণভাবে রুখে দিবে।
এদিকে সোমবার রাতে নাগরিক সমাজের এক সভা কো-চেয়ারম্যান দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সিআরবিকে অবরুদ্ধ করার চক্রান্ত রুখে দেয়ার ঘোষণা দেন নেতারা। এতে বক্তব্য রাখেন সাবেক ছাত্রনেতা শাহজাহান চৌধুরী, নারী নেত্রী হাসিনা আক্তার টুনু, সংস্কৃতি সংগঠক আবৃত্তিকার প্রণব চৌধুরী, সাংবাদিক ঋত্বিক নয়ন, প্রীতম দাশ, আমিনুল ইসলাম মুন্না, দিলরুবা খানম, চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি মাহমুদুল করিম, মানবাধিকার কর্মী মোরশেদ আলম, সৈয়দ নাফিজ উদ্দিন প্রমুখ।

 

 

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন