বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৪ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

হরিয়ানার যুগলের বিয়ের আমন্ত্রণ পত্রে ফের কৃষক আন্দোলনের বার্তা

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৩ জানুয়ারি, ২০২২, ৩:৩১ পিএম

সাম্প্রতিককালে বিয়ের আমন্ত্রণ পত্রে সামাজিক বার্তা দেওয়ার রেওয়াজ মাঝেমাঝেই চোখ পড়ছে। অনেকে নিজেদের রাজনৈতিক অবস্থানও স্পষ্ট কর দিচ্ছেন সেখানে। এবার হরিয়ানার এক যুগল নিজেদের বিয়ের আমন্ত্রণ পত্রে কৃষক আন্দোলনকে সমর্থন করে বার্তা দিলেন।

কিছুদিন আগে উত্তরপ্রদেশের এক যুগল তাদের বিয়ের কার্ড তৈরি করেছিলেন সমাজবাদী পার্টির পতকার রঙে। সেখানে মুলায়ম সিং যাদব ও অখিলেশ যাদবের ছবিও ছিল। আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হবেন প্রদীপ কালিরামন ও কবিতা। প্রদীপ-কবিতা দেড় হাজার আমন্ত্রণ পত্র ছেপেছেন। তবে তা মোটেই সাধারণ আমন্ত্রণ পত্র না। সেখানে মোদি সরকারের বিরুদ্ধে কৃষক আন্দোলনকে সমর্থন করে রয়েছে একাধিক বার্তা। যেমন, লেখা হয়েছে ‘নো ফার্মার, নো ফুড’ (কৃষক নেই মানে খাদ্যও নেই)।

মাস খানেকের আগে রাজধানী দিল্লির সীমান্ত থেকে যে আন্দোলন তুলে নিয়েছেন কৃষক নেতারা। হরিয়ানার বিওয়ানি জেলার ভূষণ গ্রামের বাসিন্দা প্রদীপ সেই আন্দলনের পাশা দাঁড়িয়ে নিজের বিয়ের আমন্ত্রণ পত্রে লিখেছেন, কৃষক আন্দোলন এখনও শেষ হয়নি। ন্যূনতম সহায়ক মূল্যের দাবি না মেটা পর্যন্ত আন্দোলন চলবে। প্রদীপ-কবিতার বিয়ের কার্ডে লেখা হয়েছে, ‘জঙ্গ আভি জারি হ্যায়, এমএসপি কি বারি হ্যায়’ (যুদ্ধ এখনও জারি রয়েছে, এবার এমএসপি-র প্রসঙ্গ)। প্রদীপ-কবিতার বিয়ের কার্ডে আরও আছে, ভারতের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী লাল বাহাদুর শাস্ত্রীর বিখ্যাত স্লোগান ‘জয় জওয়ান, জয় কিসান’।

তাদের অভিনব আমন্ত্রণ পত্র নিয়ে প্রদীপ বলেন, “বিয়ের কার্ডে বার্তা দিতে চেয়েছি, যে কৃষক আন্দোলন এখনও শেষ হয়নি। কৃষকদের আন্দোলন জয়ী হবে সেই দিন যখন কেন্দ্রীয় সরকার কৃষকদের দাবি অনুযায়ী ন্যূনতম সহায়ক মূল্য ধার্য করবে। এমএসপি নিয়ে যতক্ষণ না আইন প্রণয়ন হচ্ছে ততক্ষণ পর্যন্ত আন্দোলনের উদ্দেশ্য সফল হবে না।” সূত্র: টাইমস নাউ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন