বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ০৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ট্রেন-ভটভটি সংঘর্ষে নিহত ৩

তিন জেলায় সড়কে নিহত ৭

রাজশাহী ব্যুরো ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ২৫ জানুয়ারি, ২০২২, ১২:০৬ এএম

চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে ছেড়ে আসা রাজশাহীগামী ট্রেনের সঙ্গে ভটভটির সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই ৩ জন নিহত হয়েছেন। গতকাল সোমবার সকাল ৯ টায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌর এলাকার আলীনগর-হাজীর মোড়ে ঘটনাটি ঘটে। ৩ জন নিহতরা হলেন : চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার আলীনগর এলাকার মৃত রইচ উদ্দিনের ছেলে মেহের আলী (৫০), আলীনগর-ভূতপুকুর এলাকার মৃত গরিবুল্লাহর ছেলে ফুলচান আলী ও সদর উপজেলার ঝিলিমের আমানুল্লাহর ছেলে নাইমুল ইসলাম। নিহতরা সবাই মাছ ব্যবসায়ী। মাছ বিক্রি করে তারা ভটভটি করে বাড়ি ফিরছিলেন।
জানা যায়, নির্ধারিত সময়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জ স্টেশন থেকে রাজশাহীর উদ্দেশে ছেড়ে যায় রাজশাহী মেইল ট্রেন। স্টেশন থেকে কয়েকশ’ মিটার দূরেই আলীনগর-হাজীর মোড়ে রাস্তা পার হওয়ার সময় ভটভটির সঙ্গে সংঘর্ষ হয়। এ সময় ট্রেনে কাটা পড়ে ভটভটিতে থাকা তিনজনই ঘটনাস্থলেই মারা যান। স্থানীয় বাসিন্দা সাইদুর রহমান জানান, সেখানে কোনো লেভেলক্রসিং না থাকায় বিনা বাধায় পার হয় গাড়ি। রাজশাহী মেইল ট্রেন হাজীর মোড় পার হওয়ার সময়ে ভটভটির অতিরিক্ত শব্দে তারা ট্রেন আসার বিষয়টি জানতে পারেননি। ফলে একই সময়ে ট্রেন ও ভটভটি লাইনের ওপর চলে আসায় এই সংঘর্ষ হয়।
ভটভটিকে লাইনে অনেকদূর ঠেলে নিয়ে যাওয়ার পর তারা কাটা পড়ে। তিনজনেরই দেহ ট্রেনে কাটা পড়ে ছিন্ন-বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।
চাঁপাইনবাবগঞ্জ রেল স্টেশনের স্টেশন মাস্টার মো. ওবাইদুল্লাহ বলেন, নির্ধারিত সময়েই ট্রেনটি স্টেশন থেকে ছেড়ে গেছে। ছেড়ে যাওয়ার কয়েক মিনিট পরেই এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। ট্রেনের নিচে লাশ পড়ে থাকায় দীর্ঘ সময় ট্রেন সেখানেই দাঁড়িয়ে ছিল। পরে লাশ সরানো হলে ১০টার দিকে ট্রেনটি রাজশাহীর উদ্দেশে ছেড়ে যায়। ঘটনার পর চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর মডেল থানা পুলিশ ও পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি) ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক একেএম গালিভ খান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (নবাবগঞ্জ সার্কেল) উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইফফাত জাহান, সদর মডেল থানার ওসি মোজাফফর হোসেন। জেলা প্রশাসক একেএম গালিভ প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিহতদের পরিবারকে ২৫ হাজার টাকা করে আর্থিক সহায়তা প্রদান করেন। এসময় তিনি বলেন, আলীনগরের হাজির মোড়ে যে রেল দুর্ঘটনাটি ঘটেছে এটি একটি অরক্ষিত স্থান। এখানে কোনো গেট নেই। আমি বিভাগীয় কমিশনারকে ঘটনাটি জানিয়েছি। এখানে একটি রেলগেট নির্মাণ করা হবে।
এদিকে সারাদেশে গতকালও পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন ৭ জন। এরমধ্যে নওগাঁর ধামইরহাট ও মহাদেবপুর উপজেলায় পৃথক দুর্ঘটনায় ৫ জন এবং খুলনা ও নাটোরে দুই মোটরসাইকেল আরোহীর প্রাণ যায়। আমাদের সংবাদদাতাদের প্রতিবেদন-
নওগাঁ জেলা সংবাদদাতা : নওগাঁ জেলার ধামইরহাট ও মহাদেবপুর উপজেলায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ৫ ব্যক্তি নিহত হয়েছে। রোববার রাত সাড়ে ৮টার দিকে ধামইরহাট উপজেলার হরিতকীডাঙ্গা নামকস্থানে নওগাঁ- জয়পুরহাট সড়কে প্রথম দুর্ঘটনাটি ঘটে। এখানে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাক্টর একটি মোটরসাইকে চাপা দিলে ৩ জন নিহত হয়। মোটরসাইকেল আরোহী নিহতরা হলেন উপজেলার নানাইচ গ্রামের গোলজার হোসেনের ছেলে আবু সুফিয়ান (১৮) ও একই গ্রামের মোজ্জাম্মেল হকের ছেলে আব্দুস সালাম (৩০), জাহানপুর গ্রামের মিনহাজুল (২৮) ও একই গ্রামের স্বজল (৩৫)।
ধামইরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কে এম রাকিবুল হুদা জানান, নিহতরা সবাই সবজি ব্যবসায়ী। গতকাল রোববার ধামইরহাট উপজেলায় বাজার শেষে একই মোটরসাইকেল বাড়ি ফিরছিলেন তারা। ঘটনাস্থলেই আবু সুফিয়ান এবং আব্দুস সালামের মৃত্যু হয়। বাকি দু’জনকে গুরুতর আহত অবস্থায় রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে তাদের মৃত্যু হয়। ওসি আরো জানান, সংবাদ পেয়ে রাতেই ঘটনাস্থল থেকে নিহতদের লাশ উদ্ধার করে থানায় নেয়া হয়েছে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত মামলা দায়ের হয়নি।
এদিকে সোমবার সকাল ৯টায় নওগাঁ-মহাদেবপুর সড়কে মহাদেবুর উপজেলার শিবরামপুরের মোড়ে বালিবোঝাই একটি ট্রাককে পাশ কাটিয়ে সামনে এগিয়ে যাওয়ার সময় ওই ট্রাকের নিচে চাপা পড়ে এক মোটরসাইকেল আরোহীর ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়েছে। মহাদেবপুর থানার ওসি আযম উদ্দিন মাহমুদ জানিয়েছেন, নিহত ব্যক্তি আবুল কালাম আজাদ নওগাঁ স্বাস্থ্য বিভাগের একজন কর্মচারী।
খুলনা ব্যুরো
ডুমুরিয়ায় মহাসড়কের ঝুঁকিপূর্ণ বাঁক কেড়ে নিল আরও একটি প্রাণ। গতকাল সোমবার দুপুর ৩টার দিকে চুকনগর-খুলনা মহাসড়কের চুকনগর সরদার বাড়ির বটতলা মোড় নামকস্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত যুবক কেশবপুর সদরের মৃত আব্দুল মোমিনের পুত্র তোফিক হাসান সোহেল (৩৫)।
খর্ণিয়া হাইওয়ে থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মেহেদী হাসান জানান, যশোর জেলার কেশবপুর উপজেলা সদরের মৃত আব্দুল মোমিনের ছেলে তৌফিক হাসান সোহেল খুলনা থেকে ডাক্তার দেখিয়ে বাড়িতে ফিরছিলেন। এসময় চুকনগর-খুলনা মহাসড়কের চুকনগর সরদার বাড়ির বটতলা মোড় নামকস্থানে পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা যাত্রীবাহী বাস (খুলনা মেট্রো জ ০৫-০০৩৬) মুখোমুখি সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হন। পুলিশ বাসটি আটক করেছে। চালক ও হেলপার পালিয়ে গেছে।
সিংড়া (নাটোর) উপজেলা সংবাদদাতা :
নাটোরের সিংড়ায় যাত্রীবাহী বাসের ধাক্কায় রাসেল আহমেদ নামে এক মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যু হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছে হাইওয়ে পুলিশ। লাশ উদ্ধারসহ ঘাতক বাসটিকে আটক করেছে পুলিশ। নিহত রাসেল নন্দীগ্রাম থানার রনবাঘা এলাকার মো. আনোয়ার হোসেনের ছেলে।
ঝলমলিয়া হাইওয়ে পুলিশের ওসি মো. রেজওয়ানুল ইসলাম জানান, মোটরসাইকেল আরোহী রাসেল আহমেদ সিংড়া থেকে বাসায় ফিরার পথে নাটোর-বগুডা মহাসড়কের বাঁশের ব্রিজ এলাকায় গতকাল এ দুর্ঘটনা ঘটে। তিনি বলেন, উপজেলার বাঁশের ব্রিজ এলাকায় বগুড়ার দিক থেকে আসা একটি যাত্রীবাহী বাস, মোটরসাইকেল আরোহী রাসেল আহমেদকে ধাক্কা দিলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। দুর্ঘটনার পর যাত্রীবাহী ঘাতক বাসটিকে আটক করেছে পুলিশ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন