শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৮ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

সরাসরি আলোচনায় প্রস্তুত

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৬ জানুয়ারি, ২০২২, ১২:০৫ এএম

হুতি হামলা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সাথে বৈঠক সউদী-আমিরাতের, পাল্টা জবাবের হুঁশিয়ারি
হামলা প্রতিহত করল যুক্তরাষ্ট্র
সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাজধানী আবুধাবিতে আবারও হামলা চালিয়েছে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীরা। তবে সোমবার দুটি মিসাইল হামলা প্রতিহত করেছে যুক্তরাষ্ট্রের আকাশ প্রতিরক্ষাব্যবস্থা-প্যাট্রিয়ট। খবর আনাদোলুর। সউদী আরবের নেতৃত্বাধীন সামরিক জোটের শরিক দেশ হিসেবে আছে যুক্তরাষ্ট্র। আবুধাবির পাশেই রয়েছে মার্কিন সামরিকঘাঁটি। আমিরাতের আল-দাফরা বিমানঘাঁটি থেকে মার্কিন বাহিনী প্যাট্রিয়টের সাহায্যে হুতিদের দুটি ক্ষেপণাস্ত্র হামলা প্রতিহত করে। মধ্যপ্রাচ্যে মার্কিন সেন্ট্রাল কমান্ডের মুখপাত্র ক্যাপটেন বিল আরবার সোমবার এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানান। আল-দাফরা বিমানঘাঁটিতে ২ হাজার মার্কিন সেনাসদস্য রয়েছে। ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীরা সংযুক্ত আরব আমিরাতে হামলা বৃদ্ধির ঘোষণা দিয়েছে। সোমবার হুতি বিদ্রোহীরা আমিরাত ছাড়াও দক্ষিণ সউদী আরবে মিসাইল হামলা করেছে। সংযুক্ত আরব আমিরাতে হামলার ঘটনায় ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীদের পাল্টা জবাব দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে আমিরাতি কর্তৃপক্ষ। সোমবার দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, পুংখানুপুংখ এবং ব্যাপক প্রতিক্রিয়া ছাড়া এই হামলার ঘটনা ছেড়ে দেওয়া হবে না। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে দুবাইভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-আরাবিয়া। আমিরাতি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়, ‘এই সন্ত্রাসী হামলা এবং এই ধরনের নিষ্ঠুর অপরাধমূলক কর্মকাÐের বিরুদ্ধে প্রতিক্রিয়া জানানোর অধিকার সংযুক্ত আরব আমিরাতের রয়েছে।’ খবরে বলা হয়, সংযুক্ত আরব আমিরাতে এক সপ্তাহের মধ্যে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীদের একাধিক হামলার ঘটনায় নড়েচড়ে বসেছে আমিরাতি কর্তৃপক্ষ। এ ইস্যুতে মিত্র সউদী আরবকে সাথে নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সাথে আলোচনায় বসেছে দেশটি। মার্কিন প্রেসিডেন্টের দফতর হোয়াইট হাউসের এক বিবৃতিতে ত্রিপাক্ষিক এই বৈঠকের বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। সংবাদমাধ্যম বøুমবার্গের বরাত দিয়ে এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে ইয়াহু নিউজ। হোয়াইট হাউস জানিয়েছে, এক সপ্তাহের মধ্যে ইরান-সমর্থিত যোদ্ধারা সংযুক্ত আরব আমিরাতে দ্বিতীয় বারের মতো হামলার পর যুক্তরাষ্ট্র এবং তার উপসাগরীয় মিত্ররা ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীদের জবাবদিহিতার আওতায় আনার উপায় নিয়ে আলোচনা করেছে। সোমবার হোয়াইট হাউসের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জ্যাক সুলিভান সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং সউদী আরবের রাষ্ট্রদূতদের সাথে বৈঠক করেছেন। বেসামরিক লক্ষ্যবস্তুগুলোতে চলমান হুতি হামলা নিয়ে আলোচনার জন্য এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। এসব হামলার ফলে উভয় দেশেই বেসামরিক মানুষের হতাহতের ঘটনা ঘটেছে। তিন দেশ কিভাবে হুতি বিদ্রোহীদের জবাবদিহিতার আওতায় আনতে চায়, সে ব্যাপারে অবশ্য বিস্তারিত কিছু জানায়নি হোয়াইট হাউস। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংবাদমাধ্যম এপি জানিয়েছে, সোমবার আবু ধাবিতে ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপের ঘটনা পারস্য উপসাগরজুড়ে বিদ্যমান উত্তেজনাকে আরও বাড়িয়ে তুলেছে। আগে যেখানে আমিরাতি ভ‚খÐের কাছাকাছি এলাকাকে হামলার লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করা হতো এখন সেখানে খোদ দেশটির রাজধানীকে টার্গেটে পরিণত করা হচ্ছে। সোমবারের ক্ষেপণাস্ত্র হামলার সময় আবু ধাবির আল-ধাফরা বিমান ঘাঁটিতে থাকা মার্কিন সেনারা বাংকারে আশ্রয় নিয়ে তাদের নিজস্ব প্যাট্রিয়ট মিসাইল দিয়ে পাল্টা হামলা চালায়। বছরের পর বছর ধরে বিপজ্জনক প্রতিবেশীদের মধ্যেও নিজেকে একটি নিরাপদ বাঁক হিসেবে তুলে ধরেছিল সংযুক্ত আরব আমিরাত। তবে এ ধরনের হামলা নিঃসন্দেহে দেশটির ব্যবসাবান্ধব, পর্যটনকেন্দ্রিক ইমেজকে হুমকির মুখে ফেলে দিয়েছে। আল-আরাবিয়া,এপি, আল-জাজিরা।

 


ইউরোপকে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করতে হবে : ম্যাখোঁ
রাশিয়া পাশ্চাত্যের কাছে নিরাপত্তার যে গ্যারান্টি চেয়েছে সে ব্যাপারে জবাব দেয়ার জন্য ইউরোপের প্রতি আহŸান জানিয়েছেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাখোঁ। তিনি ইউক্রেন সংকটকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা প্রশমনেরও আহŸান জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, রাশিয়াকে নিরাপত্তার গ্যারান্টি দেয়া হবে কিনা সে ব্যাপারে ইউরোপকে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করতে হবে। এই ন্যাটো জোট আর পূর্বদিকে অগ্রসর হবে না বলে গতমাসে এই জোটের কাছে গ্যারান্টি চেয়েছে রাশিয়া। তবে এরকম কোনো নিশ্চয়তা দিতে অস্বীকার করেছে পশ্চিমা দেশগুলো। সোমবার এলিসি প্রাসাদ এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, প্রেসিডেন্ট ম্যাকরন ইউক্রেন সীমান্তে সৃষ্ট উত্তেজনার ব্যাপারে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন এবং এই উত্তেজনা কমাতে প্রচেষ্টা চালানোর জন্য ইউরোপীয় দেশগুলোর প্রতি আহŸান জানিয়েছেন। তিনি শিগগিরই বিষয়টি নিয়ে রুশ প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিনের সাথে টেলিফোনে কথা বলবেন বলেও এলিসি প্রাসাদ জানিয়েছে। মার্কিন গণমাধ্যমগুলো প্রায় দুই মাস আগে থেকে এই খবর প্রচার করতে থাকে যে, রাশিয়া ২০২২ সালের গোড়ার দিকে ইউক্রেনে আগ্রাসন চালাবে। পরবর্তীতে এই প্রচারণায় ইউরোপীয় গণমাধ্যমগুলিও যুক্ত হয় এবং বর্তমানে গোটা পাশ্চাত্যে এই ধারনা বন্ধমূল করে দেয়া হয়েছে যে, রাশিয়া ইউক্রেন দখল করতে যাচ্ছে। রাশিয়া অবশ্য এ ধরনের দাবি কঠোরভাবে প্রত্যাখ্যান করে বলেছে, নিজ দেশের যেকোনো স্থানে সেনা মোতায়েনের অধিকার মস্কোর রয়েছে। রাশিয়া একইসাথে পূর্বদিকে ন্যাটো জোটের বিস্তার বন্ধ করার জন্য পাশ্চাত্যের প্রতি আহŸান জানিয়েছে। বিবিসি, ফ্রান্স২৪।

 

মহানবীর হিজরত পথ নিয়ে সউদীর প্রথম তথ্যচিত্র
মুসলিম উম্মাহর পথপ্রদর্শক সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ মানব হজরত মোহাম্মদ (সা:)-এর হিজরত নিয়ে একটি তথ্যচিত্র (ডকুমেন্টারি) তৈরি করা হচ্ছে। পর্যটকদের জ্ঞান ও অভিজ্ঞতা আরও সমৃদ্ধ করতে ‘রিহলাত মুহাজির’ (ইংরেজিতে অ্যান এমিগ্রান্ট জার্নি) নামে তথ্যচিত্রটি তৈরির উদ্যোগ নিয়েছে সউদী আরব সরকার। মূলত ইসলামের নবী তার বিশ্বস্ত সহচর হজরত আবুবকর (রা:)-কে সাথে নিয়ে যে পথ দিয়ে মক্কা থেকে মদিনায় হিজরত করেছিলেন সেই পথটিই এই তথ্যচিত্রের মূল বিষয়। ইতোমধ্যে তথ্যচিত্রের প্রথম ধাপের কাজ সম্পন্ন হয়েছে বলে জানিয়েছেন নির্মাতারা। পবিত্র হজের উদ্দেশ্য ছাড়াও প্রতি বছর বিশ্বের প্রত্যেক প্রান্ত থেকে লাখ লাখ পর্যটক সউদীতে আসেন। এসব পর্যটকের জন্য মক্কায় জাবাল থর কালচারাল সেন্টার নামে একটি সাংস্কৃতিক কেন্দ্র তৈরি করা হয়েছে। শিগগিরই এটি উদ্বোধন করা হবে। এর উদ্বোধনের অংশ হিসাবেই মহানবীর হিজরত পথ নিয়ে তথ্যচিত্র তৈরি করা হচ্ছে। সউদীর বিভিন্ন সাংস্কৃতিক স্থাপত্য প্রকল্প নির্মাণের কাজ করে সাময়া ইনভেস্টমেন্ট নামে একটি কোম্পানি। তারা ইতোমধ্যে জাতীয় জাদুঘর, প্রদর্শনী এবং এ ধরনের বিভিন্ন প্রকল্প নির্মাণ করেছে। জাবাল থর সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণের কাজও তারাই করছে। সামায় সিইও ফাওয়াজ আল মেরহেজ বলেন, আধুনিক প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে ‘রিহলাত মুহাজির’ তথ্যচিত্র প্রকল্পটি নির্মাণ করা হচ্ছে। এ ক্ষেত্রে এরিয়াল ডকুমেন্টেশন ও প্যানোরামিক ফটোগ্রাফি ৩৬০ প্রযুক্তি ব্যবহার করা হচ্ছে। এই কাজে সহায়তা করছে প্রায় চার হাজার ড্রোন। মেরহেজ বলেন, গত বছরের ২০ ডিসেম্বর তথ্যচিত্র নির্মাণকাজ শুরু হয়। ইতোমধ্যে প্রথম ধাপের কাজ শেষ হয়েছে। এজন্য নির্মাতা দল হিজরতের পুরো পথটিই পর্যবেক্ষণ করেছে। পথটি মক্কার থর পর্বতের থর গুহা থেকে শুরু হয়ে ৪০টি স্টেশনের মধ্য দিয়ে মদিনার কুবা মসজিদে গিয়ে শেষ হয়েছে। তিনি বলেন, জাবাল থর সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে মহানবীর হিজরতের কাহিনী কিভাবে উপস্থাপন করা যায় সেই চিন্তা থেকেই হিজরত পথটির তথ্যচিত্র নির্মাণের ধারণাটি আসে। আরব নিউজ।

 

সংলাপে গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতির খবর
অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনায় ছয় জাতিগোষ্ঠীর সাথে ইরানের পরমাণু সমঝোতা পুনরুজ্জীবনের আলোচনায় গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতির খবর দিয়েছেন ওই আলোচনায় রুশ প্রতিনিধিদলের প্রধান মিখাইল উলিয়ানোভ। তিনি বলেছেন, সোমবার দুই পক্ষ সম্ভাব্য চুক্তির খসড়ার গুরুত্বপূর্ণ অংশ চ‚ড়ান্ত করতে সক্ষম হয়েছে। উলিয়ানোভ এক টুইটার বার্তায় জানিয়েছেন, ইরানের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের লক্ষ্যে সম্ভাব্য চুক্তির খসড়ার বিষয়বস্তু নিয়ে সোমবার দিনভর আলোচনা হয়েছে। তবে এখনও চ‚ড়ান্ত চুক্তির কিছু বিষয়ে মতানৈক্য রয়ে গেছে বলে তিনি জানান।এদিকে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাঈদ খাতিবজাদে সোমবার তেহরানে জানিয়েছেন, ভিয়েনা সংলাপে অংশগ্রহণকারী সব পক্ষ এ ব্যাপারে একমত হয়েছে যে, আরেকবার কেউ আমেরিকাকে পরমাণু সমঝোতা থেকে বেরিয়ে যেতে দেখতে চায় না। তিনি বলেন, কোনো কোনো বিষয়ে আলোচনায় উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি হয়েছে এবং কোনো কোনো বিষয়ে মতপার্থক্য পুরোপুরি দূর না হলেও দৃষ্টিভঙ্গি কাছাকাছি এসেছে। আরটি।

যুক্তরাষ্ট্র ইরানের পরমাণু কর্মসূচি নিয়ে তেহরানের সাথে সরাসরি আলোচনা করতে প্রস্তুত রয়েছে। ইরান অনুরূপ একটি বিকল্প বিবেচনা করবে- তেহরান এমন কথা জানানোর পর সোমবার মার্কিন পররাষ্ট্র বিভাগ এ ব্যাপারে ওয়াশিংটনের প্রস্তুত থাকার কথা পুনঃনিশ্চিত করলো। যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র বিভাগের এক মুখপাত্র বলেন, ‘আমরা সরাসরি আলোচনা করতে প্রস্তুত রয়েছি।’ ইরান ও বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশগুলোর মধ্যে হওয়া পরমাণু চুক্তির কথা উল্লেখ করে ওই মুখপাত্র বলেন, ‘আমরা বিষয়টি নিয়ে দীর্ঘ সময় ধরে আলোচনা করেছি যে জেসিপিওএ আলোচনা ও অন্য ইস্যুগুলো নিয়ে সরাসরি ইরানের অংশগ্রহণে আলোচনা আরো ফলপ্রসূ হবে।’ মুখপাত্র বলেন, সরাসরি ওই বৈঠক ২০১৫ সালের পরমাণু চুক্তি পুনরূজ্জীবিত করার ব্যাপারে যা প্রয়োজন সে বিষয়ে সমঝোতায় পৌঁছানোর ক্ষেত্রে ‘আরো কার্যকর যোগাযোগ’ করার সুযোগ করে দেবে। ওই কর্মকর্তা বলেন, ‘ইরানের পরমাণু অগ্রগতির ক্ষেত্রে জেসিপিওএ’র সম্প‚র্ণ বাস্তবায়নে পারস্পরিক প্রত্যাবর্তন বিষয়ে সমঝোতায় পৌঁছাতে আমাদের সময় প্রায় শেষ হয়ে গেছে।’ এ চুক্তি রক্ষার লক্ষ্যে ভিয়েনায় চলমান আলোচনাকালে ইরান যুক্তরাষ্ট্রের সাথে সরাসরি আলোচনার কথা বিবেচনা করবে, তেহরান এমন কথা জানানোর পর এ মন্তব্য করা হয়। টেলিভিশনে দেয়া বক্তব্যে হোসাইন আমির-আব্দুল্লাহিয়ান বলেন, ‘ইরান বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের সাথে সরাসরি আলোচনা করছে না। তিনি বলেন, ‘তবে এ ধরনের আলোচনা করা গেলে আমরা একেবারে প্রয়োজনীয় নিশ্চয়তা নিয়ে তাদের সাথে আলোচনা মাধ্যমে একটি ভালো চুক্তিতে পৌঁছাতে পারি। আমরা এমন আলোচনার বিষয় অবজ্ঞা করবো না।’ অপর দিকে পারমাণবিক সমঝোতা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সাথে সরাসরি আলোচনা চায় ইরান। সোমবার দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী হোসেইন আমির আবদুল্লাহিয়ান তেহরানের এমন অবস্থানের কথা জানিয়েছেন। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরা। ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, পরমাণু সমঝোতা পুনরুজ্জীবিত করার আলোচনা একটি অগ্রসর পর্যায়ে পৌঁছালে ওয়াশিংটনের সাথে সরাসরি আলোচনা চায় তেহরান। এমন সময়ে তার এই বক্তব্য এলো যখন মার্কিন কর্মকর্তারা ২০১৫ সালের ওই চুক্তি পুনরুজ্জীবিত করতে সরাসরি আলোচনার আহŸান জানাচ্ছেন। আনুষ্ঠানিকভাবে চুক্তিটি জয়েন্ট কমপ্রিহেনসিভ প্ল্যান অব অ্যাকশন (জেসিপিওএ) নামে পরিচিত। সোমবার তেহরানে এক সংবাদ সম্মেলনে হোসেইন আমির আবদুল্লাহিয়ান বলেন, ‘ইরান ও যুক্তরাষ্ট্র পরস্পরের সাথে সরাসরি আলোচনা করছে বলে যে খবর বেরিয়েছে সেটি অসত্য। যাই হোক, যদি আমরা এমন একটি পর্যায়ে পৌঁছাই যেখানে শক্তিশালী গ্যারান্টিসহ একটি ভালো চুক্তিতে পৌঁছানোর জন্য যুক্তরাষ্ট্রের সাথে সরাসরি আলোচনার প্রয়োজন হয়, আমরা সেটি বিবেচনা করবো।’ সিএনএন, রয়টার্স, আল-জাজিরা।

 


পশ্চিমা নেতাদের সাথে জনসনের আলোচনা
ইউক্রেন পরিস্থিতি নিয়ে পশ্চিমা নেতাদের সাথে আলোচনা করেছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। ভার্চুয়াল বৈঠকে কথা বলেছেন যুক্তরাষ্ট্র, ইতালি, পোল্যান্ড, ফ্রান্স, জার্মানি, ইউরোপিয়ান কাউন্সিল, ইউরোপিয়ান কমিশন ও ন্যাটো নেতাদের সাথে। সোমবার ডাউনিং স্ট্রিটের এক বিবৃতিতে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর দফতরের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘নেতারা একমত হয়েছেন যে, ইউক্রেনে রাশিয়া আরও অনুপ্রবেশ ঘটালে মিত্রদের অবশ্যই নিষেধাজ্ঞার একটি অভ‚তপূর্ব প্যাকেজসহ দ্রæত প্রতিশোধমূলক প্রতিক্রিয়া তৈরি করতে হবে। এদিকে ইউক্রেন সীমান্তে রুশ সেনাদের জড়ো হওয়ার খবর পাওয়ার পরপরই পূর্ব ইউরোপে সম্ভাব্য মোতায়েনের জন্য প্রায় সাড়ে আট হাজার মার্কিন সেনাকে সতর্ক অবস্থায় থাকার নির্দেশ দিয়েছে বাইডেন প্রশাসন। রয়টার্স।

 

 

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন