শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৫ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

তাড়াহুড়া করে আইন প্রণয়ন পাতানো নির্বাচনের নীল নকশা

সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৬ জানুয়ারি, ২০২২, ১২:০১ এএম

নির্বাচন কমিশন গঠনে তাড়াহুড়া করে আইন করার উদ্যোগকে আরেকটা পাতানো নির্বাচনে আওয়ামী লীগের ক্ষমতায় টিকে থাকার নীলনকশা হিসেবে দেখেছে বিএনপি। দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, বিএনপি মনে করে যেহেতু এই সংসদ জনগণের ভোটে বৈধভাবে নির্বাচিত নয় সেহেতু এই সংসদের কোনো নৈতিক এখতিয়ার নেই এই ধরনের কোনো আইন প্রণয়নের। গোপনীয়তার সঙ্গে তাড়াহুড়া করে এই আইন প্রণয়নের প্রচেষ্টা আওয়ামী লীগের জনগণের সঙ্গে প্রতারনা করে আর একটি পাতানো নির্বাচন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে অবৈধভাবে ক্ষমতায় টিকে থাকার নীল নকশা মাত্র। গতকাল মঙ্গলবার গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে দলের স্থায়ী কমিটির বৈঠকের সিদ্ধান্ত জানাতে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে কোনো নির্বাচন কমিশনেই অবাধ নিরপেক্ষ সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানে সফল হবে না যদি না নির্বাচনকালীন সময়ে নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ২০১৪ ও ২০১৮ সালের এক তরফা সাজানো ভোটারবিহীন ও মধ্যরাতের ভোট ডাকাতির নির্বাচনের মধ্য দিয়ে সেই সত্য প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। বর্তমান আওয়ামী লীগের অবৈধ সরকারের পদত্যাগ, নিরপেক্ষ নির্দলীয় সরকারের নিকট ক্ষমতা হস্তান্তর, সকল রাজনৈতিক দলের মতামতের ভিত্তিতে সকলের কাছে গ্রহনযোগ্য ব্যক্তিদের সমন্বয়ে গঠিত নির্বাচন কমিশনের পরিচালনায় একটি অবাধ, সুষ্ঠু, অংশগ্রহনমূলক গ্রহনযোগ্য নির্বাচন বাংলাদেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনার এক মাত্র পথ, এর কোনো বিকল্প নেই। এই লক্ষ্যে সকল রাজনৈতিক দল, সংগঠন, ব্যক্তি ও জনগণের ঐক্যে গড়ে দূর্বার আন্দোলনের আহবানও জানান তিনি।

১২ মানবাধিকার সংগঠনের জাতিসংঘ মিশনে পাঠানো চিঠির বিষয়ে স্থায়ী কমিটির সভায় উদ্বেগের কথা তুলে ধরে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার অবৈধভাবে ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য হত্যা, খুন, গুম, বিচাবর্হিভুত হত্যাকাণ্ডের জন্য র‌্যাবসহ রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানগুলোকে ব্যবহার করে বাংলাদেশকে ভয়াবহ ঝুঁকির মধ্যে ফেলেছে। এর সূদূর প্রসারী প্রভাব বাংলাদেশের নিরাপত্তা, স্থিতিশীলতা, অর্থনীতিতে নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে। এই পরিস্থিতি সৃষ্টির সকল দায় দায়িত্ব সরকারকেই বহন করতে হবে।

সিলটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলকারীদের দাবির প্রতি একাত্মতা প্রকাশ করে মির্জা ফখরুল বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ও সরকারের স্বৈরাচারী মনোভাবের কারণেই পরিস্থিতি আরো জটিল এবং প্রায় ১০দিনেও এই সমস্যার সমাধান হয়নি। আমরা অবিলম্বে ভিসিসহ দায়ী সকল সংশ্লিষ্ট দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের অপসারণ এবং নিরপেক্ষ তদন্তের মাধ্যমে ছাত্রলীগ ও পুলিশের দায়ী ব্যক্তিদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানাচ্ছি। অযোগ্য, চাটুকার ও দলীয় শিক্ষকদের দায়িত্ব অর্পনের ফলে এই ধরনের অনাকাক্সিক্ষত ঘটনা ঘটছে এবং উচ্চশিক্ষা মারাত্মকভাবে অবনতির দিকে নিয়ে যাচ্ছে।

চাঁদুপুরের প্রস্তাবিত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনে ভূমি অধিগ্রহন বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রীর দুর্নীতির যেসব সংবাদ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে তাতে উদ্বেগ প্রকাশ করে তিনি বলেন, বিষয়টি নিয়ে অবিলম্বে নিরপেক্ষ তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত অবস্থা জনগণের সামনে তুলে ধরার আহবান জানাচ্ছি। স্থায়ী কমিটির সভায় সাংবাদিক সাগর-রুনি হত্যার তদন্তের অভিযোগপত্র ৮৫বার পেছানোর ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়। বছরের পর বছর তদন্ত রিপোর্ট দাখিল না করার সরকারের দুরভিসন্ধি ও ব্যর্থতা বলে মন্তব্য করে মামলার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও সংশ্লিষ্ট পুলিশ কর্মকর্তার অপসারণ দাবি করেন বিএনপি মহাসচিব। করোনার টীকা প্রদানের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারিত ৭০ শতাংশ থেকে ১০ শতাংশ কমিয়ে আনার স্বাস্থ্য বিভাগের সিদ্ধান্তে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে অবিলম্বে করোনা পরিস্থিতি ও টীকা প্রদানের বিষয়ে সঠিক চিত্র জনগনের সামনে প্রকাশের দাবিও জানান তিনি।

বিএনপির লবিস্ট নিয়োগ করেছে বলে পররাষ্ট্র মন্ত্রীর যে অভিযোগ করেছেন তা নাকচ করে দিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা যা কিছু করি দেশকে রক্ষার জন্য করি। দুর্বৃত্তদের হাত থেকে দেশকে রক্ষার জন্য করি। আমরা লবিস্ট নিয়োগ করেছি- এটা একেবারে সঠিক না। এটা পরিস্কার যে, বিএনপি কোনো লবিস্ট নিয়োগ করেনি।আশা করি, এ নিয়ে আপনাদের কোনো কনফিউশন থাকবে না। দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সভাপতিত্বে গত সোমবার স্থায়ী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন