মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২২ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

‘ঘরের’ সুবিধা নিতে চায় চালেঞ্জার্স

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৭ জানুয়ারি, ২০২২, ১২:০০ এএম

বিপিএল শুরু থেকেই মিরপুরের উইকেট নিয়ে ছিল আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু। দিনে ও রাতের খেলায় ছিল ভিন্নতা। দলগুলো উইকেটের আচরণ দেখে অস্বস্তিতে ভুগছিল। ঢাকা পর্বের খেলাগুলো শেষে চট্টগ্রামের উইকেট কেমন হবে তা নিয়ে চলছে আলোচনা। এর মধ্যে দলগুলো বন্দরনগরী চট্টগ্রাম এসে পৌঁছার পর গতকাল জহুর আহমদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে অনুশীলন করেছে স্বাগতিক চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। অন্য দলগুলো না আসার সুযোগে স্বাগতিক এ দলটি চার ঘণ্টা অনুশীলন করেছে ম্যাচ ভেন্যুতে।
সকাল সাড়ে ৯টায় অনুশীলনে আসার কথা থাকলেও এ দলটি মাঠে আসে দুপুর ১২টায়। মাঠে ঢুকেই অধিনায়ক মেহেদী হাসান মিরাজসহ আরো তিন খেলোয়াড় দেখতে যান উইকেট। মিনিটখানেক উইকেট দেখার পর খেলোয়াড়রা নেমে পড়েন অনুশীলনে। ঘণ্টাখানেক ফুটবল নিয়ে খেলার পর দীর্ঘক্ষণ নেটে বোলিং ও ব্যাটিং প্র্যাকটিস করেছেন। ঢাকা পর্বের তিন খেলায় দুই জয় ও এক পরাজয় নিয়ে ভালো অবস্থানে থাকায় চট্টগ্রাম খেলোয়াড়দের প্রাণবন্ত দেখা গেছে অনুশীলনের সময়ে। তাদের দুই ওপেনার কেনাল লুইস ও উইল জেকস নেটে ব্যাটিং করেছে দীর্ঘক্ষণ। এদের সাথে বেনি হোয়েলসহ অপরাপর খেলোয়াড়রাও অনুশীলনে ছিলেন মনোযোগী।
বোলারদের মধ্যে অধিনায়ক ও অফ স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজ এবং ফাস্ট বোলার শরিফুল ইসলাম ঢাকার মাঠে ছিলেন সফল। মিরাজ তিন ম্যাচে ছয় উইকেট, সেরা ৪/১৬ এবং শরিফুল তিন ম্যাচে ছয় উইকেট, সেরা ৪/৩৪। দুজনই জাতীয় দলে প্রতিষ্ঠিত হয়ে গেলেও বয়স খুব বেশি নয়। এ দুই খেলোয়াড়সহ অপরাপর বোলাররাও দীর্ঘক্ষণ করেছে বোলিংও। অনুশীলনের ফাঁকে অধিনায়ক বলেছেন, ‘হোমগ্রাউন্ডে ভালো খেলব, চেষ্টা থাকবে ভালো ম্যাচ উপহার দিতে। ঢাকায় শেষ দুইটি ম্যাচ জিতে আমরা বেশ আত্মবিশ্বাসী। চট্টগ্রাম ভেন্যুটি হচ্ছে লাকি গ্রাউন্ড। তবে শুধু ভাগ্যের উপর ছেড়ে দিলে হবেনা, ভাগ্যকে গড়ে নিতে হবে। জিততে হলে যা করার প্রয়োজন তা মাঠে সবার দেখাতে হবে।’
মিরপুরে রান পায়নি বিপিএল, বরাবরই রানপ্রসবা চট্টগ্রামের উইকেট। তবে কিছুটা দুশ্চিন্তার কারণ হতে পারে আবহাওয়া। দিনের অধিকাংশ সময় মেঘলা থাকার পর গতকাল সন্ধ্যায় ঢাকায় হয়ে গেছে একপষলা বৃষ্টি। বর্ষণ না হলেও বেলা ১২টা থেকে ১টা এই এক ঘন্টা কেবল সূর্যের কিরণ পড়েছে সাগরিকার উইকেটে! নির্বিঘেœ খেলা হওয়া নিয়েই যেখানে শঙ্কা, সেখানে ক্রিকেটারদের কাছ থেখে রানের ফোয়ারা ছুটিয়ে উপভোগ্য ম্যাচ চাওয়া কিছুটা বিলাসিতাই বৈ-কি!

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন