শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৮ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

ডিম বিক্রেতা নিহতের ঘটনায় চালক গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৮ জানুয়ারি, ২০২২, ১২:০২ এএম

রাজধানীর বেইলিরোডে ডিম বোঝাই পর পর দুটি ভ্যানকে ধাক্কা দেওয়ার পর মালিকপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করেন ট্রাকচালক জসিম উদ্দিন (৩২)। ঘটনার পর কর্তৃপক্ষের পরামর্শেই চট্টগ্রামে বন্ধুর বাসায় আত্মগোপনে যান তিনি। বেপরোয়া গতিতে ট্রাকের ধাক্কায় ভ্যানচালক নূর আলম নিহতের ঘটনায় ট্রাকচালক জসিম উদ্দিনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। গত বুধবার চট্টগ্রামের চাঁন্দগাও এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

গতকাল রাজধানীর কারওয়ান বাজার র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা জানান সংস্থাটির লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন।
তিনি জানান, গত ২৪ জানুয়ারি ভোরে রাজধানীর বেইলি রোডে একটি সিমেন্ট কোম্পানির ট্রাক বেপরোয়া গতিতে চালানোর কারণে ডিম বহনকারী দুটি ভ্যানকে পেছন থেকে সজোরে ধাক্কা দেয়। এতে ভ্যানচালক তুহিন (৩০) রাস্তায় ছিটকে পড়ে আহত হন এবং দ্বিতীয় ভ্যানের চালক নূর আলম (৩৩) ট্রাকের নিচে চাপা পড়ে মারা যান।
নিহত নূর আলম তেজগাঁও রেলস্টেশনের পাশে স্বপরিবারে ছোট একটি রুম ভাড়া নিয়ে বসবাস করতেন। তিনি তেজগাঁওয়ের ডিমের আড়ত থেকে ডিম নিয়ে ভ্যানে করে যাত্রাবাড়ী ও জিনজিরায় দোকানে দোকানে সরবরাহ করে জীবিকা নির্বাহ করতেন। ঘটনার দিন তেজগাঁও আড়ত থেকে ডিম নিয়ে জিনজিরায় যাচ্ছিলেন। এ ঘটনায় দায়ের করা মামলার পরিপ্রেক্ষিতে র‌্যাব-৩ ও র‌্যাব-৭-এর যৌথ অভিযানে চট্টগ্রামের চাঁদগাও এলাকা থেকে ট্রাকচালক জসিম উদ্দিনকে গ্রেফতার করা হয়।
গ্রেফতার জসিমকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের ভিত্তিতে র‌্যাবের এই কর্মকর্তা বলেন, তিনি প্রায় ১০ বছর ধরে গাবতলীর ট্রাক স্ট্যান্ড থেকে ইট/বালু বহনকারী ট্রাক চালাতেন। চলতি মাসের প্রথম দিকে একটি সিমেন্ট কোম্পানিতে মাসিক ৮ হাজার টাকা বেতনে ট্রাক চালক হিসেবে যোগদান করেন। ২৩ জানুয়ারি রাতে সিমেন্ট ভর্তি ট্রাকটি নিয়ে মুন্সিগঞ্জ থেকে উত্তরায় যান। সিমেন্ট নামিয়ে ফেরার পথে ২৪ জানুয়ারি ভোরে বেইলি রোডে দুটি ডিম বোঝাই ভ্যানে সজোরে ধাক্কা দিলে নূর আলম মারা যান।
তিনি বলেন, দুর্ঘটনার পর চালক ট্রাকটি রেখে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে তার সিমেন্ট কোম্পানির সঙ্গে যোগাযোগ করেন। কর্তৃপক্ষের পরামর্শেই তিনি চট্টগ্রামে পালিয়ে বন্ধুর বাসায় আত্মগোপনে যান। এক প্রশ্নের জবাবে কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, গত ১০ বছর ধরে ট্রাক চালিয়ে আসলেও জসিম ২০১৮ সালে লাইসেন্স করেন। মামলার ভিত্তিতে ট্রাক চালককে গ্রেফতার করা হয়েছে। মামলার তদন্তে তদন্তকারী কর্মকর্তা যদি ওই কোম্পানির সংশ্লিষ্টতা পান তাহলে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নিবেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন