বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ০৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৭ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

১৫ হাজারের বেশি শনাক্ত, মৃত্যু ১৫

দেশে করোনাভাইরাস

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৮ জানুয়ারি, ২০২২, ১২:০২ এএম

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ১৫ হাজারের বেশি রোগী। এ নিয়ে টানা তিন দিন ১৫ হাজারের বেশি রোগী শনাক্ত হলো। একই সময়ে করোনায় মারা গেছেন আরও ১৫ জন। এসময় করোনায় শনাক্ত হয়েছেন ১৫ হাজার ৮০৭ জন। নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ৩১ শতাংশের বেশি। গতকাল বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনাবিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। এর আগে গত বুধবার ১৫ হাজার ৫২৭ জন ও গত মঙ্গলবার ১৬ হাজার ৩৩ জন রোগী শনাক্ত হবার কথা জানিয়েছিল অধিদফতর।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তির তথ্য অনুযায়ী, সরকারি হিসেবে এখন পর্যন্ত মোট করোনাতে শনাক্ত হলেন ১৭ লাখ ৪৭ হাজার ৩৩১ জন। এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন মোট ২৮ হাজার ২৮৮ জন। করোনাতে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ৩৭ জন। মোট ১৫ লাখ ৬১ হাজার ৪৩ জন সুস্থ হয়ে উঠলেন বলেও অধিদফতর জানাচ্ছে।

স্বাস্থ্য অধিদফতর জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার নমুনা সংগৃহীত হয়েছে ৪৯ হাজার ৫৭৯টি, নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৪৯ হাজার ৪২৫টি। দেশে এখন পর্যন্ত করোনার মোট নমুনা পরীক্ষা হয়েছে এক কোটি ২৩ লাখ ১০ হাজার ৬৭৭টি। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা হয়েছে ৮৩ লাখ ৮৩ হাজার ৯৮৭টি আর বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা হয়েছে ৩৯ লাখ ২৬ হাজার ৬৯০টি।

স্বাস্থ্য অধিদফতর জানাচ্ছে, গত ২৪ ঘণ্টায় রোগী শনাক্তের হার ৩১ দশমিক ৯৮ শতাংশ, এখন পর্যন্ত রোগী শনাক্তের হার ১৪ দশমিক ১৯ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮৯ দশমিক ৩৪ শতাংশ আর মৃত্যুহার এক দশমিক ৬২ শতাংশ। একই সময়ে মারা যাওয়া ১৫ জনের মধ্যে পাঁচজন পুরুষ, ১০ জন নারী। করোনায় আক্রান্ত হয়ে মোট পুরুষ মারা গেলেন ১৮ হাজার ৮০ জন আর নারী ১০ হাজার ২০৮ জন। মৃতদের মধ্যে ৫১ থেকে ৬০ বছর বয়সী চারজন, ৬১ থেকে ৭০ বছর বয়সী তিনজন, ৪১ থেকে ৫০ আর ৭১ থেকে ৮০ বছর বয়সী দুজন, ১১ থেকে ২০, ২১ থেকে ৩০, ৩১ থেকে ৪০ এবং ৯১ থেকে ১০০ বছর বয়সী একজন করে।

অধিদফতর জানাচ্ছে, মারা যাওয়া ১৫ জনের মধ্যে সর্বোচ্চ রোগীর মৃত্যু হয়েছে ঢাকা বিভাগে। এ বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন আট জন। বাকিদের মধ্যে চট্টগ্রাম বিভাগে তিন জন, রাজশাহী বিভাগের দুজন আর বরিশাল ও রংপুর বিভাগে মারা গেছেন একজন করে। তাদের মধ্যে সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয়েছে আট জনের। বাকি সাতজনের মৃত্যু হয়েছে বেসরকারি হাসপাতালে।

 

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন