বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ১৬ আষাঢ় ১৪২৯, ২৯ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

রাজবাড়ীতে স্বামীর অর্থ আত্নসাতের অভিযোগে শিক্ষিকা ও ফায়ার সার্ভিস কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা

রাজবাড়ী জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২২, ১:২৪ পিএম

রাজবাড়ী সদর উপজেলার বাণিবহ গ্রামে এক সৌদি প্রবাসী স্বামীর অর্থ ও সম্পদ হাতিয়ে নিয়ে পরকীয়া প্রেমিকের সাথে সংসার করার অভিযোগ উঠেছে সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকার বিরুদ্ধে। গতকাল মঙ্গলবার (২২ ফেব্রুয়ারী) রাজবাড়ীর ১নং আমলী আদালতে মামলা দায়ের করেছেন রাজবাড়ী সদর উপজেলার বাণিবহ গ্রামের মৃত আঃ মোতালেবের ছেলে সৌদি প্রবাসী আরব আলী মিয়া। (সিআর মামলা নং ১৫২/২২, তারিখ-২২-২-২২ ইং)।

মামলার আসামীরা হলো, গাইবান্ধা জেলার সাঘাটা থানার চরপাড়া কৈচড়া গ্রামের মোঃ আব্দুল্লাহ’র ছেলে ফায়ার সার্ভিসে কর্মরত মোঃ সামছুল হক ও বাণিবহের আরব আলী মিয়ার স্ত্রী বর্তমান মুরগীর ফার্ম রিফুজিপাড়া এলাকার ভাড়াটিয়া বার্থা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা মোছাঃ লায়লা পারভীন। মামলায় ৩ সন্তানকে স্বাক্ষী হিসেবে রাখা হয়েছে।

মামলার অভিযোগে ও বাদী এবং ৩ ছেলে বলেন, মোছাঃ লায়লা পারভীনের সাথে ২৫ বছর পুর্বে আরব আলী মিয়ার বিয়ে হয়। আরব আলী মিয়া দীর্ঘ ৭-৮বছর সৌদি আরবে কর্মরত থেকে তার উপার্জিত অর্থ লায়লা পারভীনের রাজবাড়ী সোনালী ব্যাংক শাখার সঞ্চয়ী হিসাব নম্বর ২২১১১০১০১৪৪৫৩ এর মাধ্যমে গত ২০২০ সালের ২৭ জুলাই থেকে সর্বশেষ ২০২১ সালের ২২ নভেম্বর তারিখে এক লক্ষ টাকাসহ আনুমানিক প্রায় ৩৫ লক্ষ টাকা প্রেরণ করেন এবং মোঃ সামসুল হক ওই টাকা আতœসাৎ করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত থেকে ফুসলিয়ে পরকীয়া প্রেমে লিপ্ত থাকে। বাদী বাড়ীতে না থাকার সুযোগে সামসুল বাড়ীতে মাঝেমধ্যে আসে এবং বাদীর অর্জিত টাকা পয়সার প্রতি আকৃষ্ট থাকে। যেন তেন ভাবে টাকা আতœসাৎ করার ষড়যন্ত্র করে। লায়লা পরভীন বিভিন্ন কৌশলে স্বাক্ষী আমির সেখের নিকট থেকে ২০২১ সালের ১১ নভেম্বর এক লক্ষ টাকা এবং ২২ নভেম্বর এক লক্ষ টাকাসহ সোনালী ব্যাংক ফরিদপুরের মধুখালী শাখার মাধ্যমে ২লক্ষ টাকা ও নগদ টাকাসহ ৬লক্ষ টাকা গ্রহণ করে। পরে লায়লা পারভীন টাকা পরিশোধ না করে ঘুরাতে থাকে। চলতি বছরের ২৭ জানুয়ারী বাদী সৌদি আরব থেকে এসে বাড়ীতে উপস্থিত হয়ে তার স্ত্রী লায়লা পারভীন কোথায় আছে তা জানতে চাইলে স্বাক্ষীগণ বলেন, লায়লা পারভীন সামসুল হকের সাথে টাকা পয়সা চুরি করে নিয়ে পালিয়েছে। বাদী পরবর্তীতে বিভিন্ন মাধ্যমে যোগাযোগ করলে সামসুল হক হুমকি দিয়ে বলে তোমার বাড়ী থেকে আসবাবপত্র, টাকা পয়সা আনছি ও তোমার স্ত্রীকে আর ফেরত দিবো না। পরকীয়া প্রেমিকের সাথে জমি বন্ধুক রেখে ও পুকুর লীজের টাকা, নগদ টাকাসহ সমস্ত মালামাল চুরি করে নিয়ে যায়।

বাদী পক্ষের আইনজীবি এ্যাডভোকেট রেহেনাজ পারভীন সালমা মামলা দাখিলের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
এ বিষয়ে অভিযুক্ত মোঃ সামছুল হক ও মোছাঃ লায়লা পারভীনের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও ফোন রিসিপ না করায় মন্তব্য দেওয়া সম্ভব হলো না।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps