বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২, ২২ আষাঢ় ১৪২৯, ০৬ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

এক শ্রেণির মানুষের জিকির মাহফিল সহ্য হয় না : সমাপনী বয়ানে পীর সাহেব চরমোনাই

আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে মাহফিল সম্পন্ন

বরিশাল ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১ মার্চ, ২০২২, ১২:০২ এএম

পাপের কাজ পরিহার করে বেশি বেশি নেক আমলের আহবানসহ দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনা করে মুফতী সৈয়দ মুহাম্মাদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাইর আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে ফাল্গুনের বার্ষিক মাহফিল সমাপ্ত হয়েছে। গতকাল সোমবার সকালে পীর সাহেব সমাপনী বয়ান শেষে লাখ লাখ মুসুল্লিদের নিয়ে মহান আল্লাহ রাব্বুল আল আমীনের দরবারে হাত তোলেন। গত শুক্রবার বাদ জুমা পীর সাহেব চরমোনাইর উদ্বোধনী বয়ানের মাধ্যমে ৩ দিনব্যাপী ফাল্গুন মাসের বার্ষিক মাহফিল শুরু হয়।
আখেরি মোনাজাতে পীর সাহেব ভারত, কাশ্মীর, মিয়ানমার, ফিলিস্তিন ও সিরিয়াসহ বিশ্বের নির্যাতিত মুসলমানদের নিরাপত্তা এবং সমগ্র মুসলিম উম্মাহর শান্তি কামনা করে মহান আল্লাহ রাব্বুল আল আমীনের দয়া ও রহমত কামনা করেন।
বাদ ফজরের বিদায়ী বয়ানে পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, আল্লাহর ওলীরা আখেরাতের চিন্তায় ব্যস্ত থাকেন। আর কিছু মানুষ দুনিয়া, দুনিয়াবি সম্পদ ও খাবার নিয়ে ব্যস্ত থাকেন। তিনি বলেন, এক শ্রেণির মানুষ আল্লাহর জিকির না করলে তাদের ভালো লাগে না। আর এক শ্রেণির মানুষ আছে যাদের নাকি জিকির ও মাহফিল সহ্য হয় না, এরা বড়ই অদ্ভুত। পীর সাহেব বলেন, সরকারি দলের কোনো কোনো নেতার নাকি মাহফিলের আওয়াজ ভালো লাগে না। তিনি বলেন, এমন লোকদেরকে আল্লাহ রাব্বুল আল-আমীন হেদায়েত দান করুন এই দোয়াই করি।
পীর সাহেব প্রত্যেক মুসলমানের ক্বলব পরিস্কার করার তাগিদ দিয়ে এ লক্ষ্যে হক্কানী ওলামায়ে কেরাম ও পীর মাশায়েখদের স্মরণাপন্ন হবার তাগিদ দেন। ক্বলব পরিস্কার না করলে আখেরাতের জগত বড় কষ্টের হতে পারে বলেও সতর্ক করেন পীর সাহেব।
পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, যার ভেতরে তাকাব্বুরী থাকবে, আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের কথা অনুযায়ী তারা বেহেস্ত তো দূরের কথা বেহেস্তের ঘ্রাণও পাবেন না। তাই আমাদের সকলকে তাকাব্বুরী মুক্ত হতে হবে। পীর সাহেব আখেরি মোনাজাতে অংশ নেয়া প্রশাসনিক ও রাজনৈতিক ব্যক্তিসহ সম্মানিত ওলামায়ে কেরাম এবং গণমাধ্যম কর্মীদেরকে মোবারকবাদ জানান।
এবার চরমোনাই মাহফিলে আগত মুসল্লিদের মধ্যে ১৪ জন মুসল্লি ইন্তেকাল করেন। এর মধ্যে সিরাজগঞ্জ থেকে মাহফিলে আসা একটি ট্রলার দুর্ঘটনায় ৪ জনসহ ১০ জন ষাটোর্ধ্ব মুসল্লি হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মৃত্যুবরণ করেন। জানাজা শেষে তাদের প্রত্যেকের লাশ দরবার শরীফের উদ্যোগে নিজ নিজ এলাকায় পাঠানো হয়েছে।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
এস.এম শাহাদাৎ হোসেন ১ মার্চ, ২০২২, ২:৪৮ পিএম says : 0
জীবনে একবার হলেও দেখা, বুজা ও নিজেকে শোধরানোর জন্য চরমোনাই জাওয়া দরকার বলে আমি মনে করি, আর আপনি???
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps