শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ১৭ আষাঢ় ১৪২৯, ০১ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

শততম ম্যাচ রাঙাতে প্রস্তুত মুশফিক

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৫ মার্চ, ২০২২, ১২:০০ এএম

আফগানিস্তানের বিপক্ষে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচের আগের দিনটা ছিল খেলোয়াড়দের ঐচ্ছিক অনুশীলনের। এমন দিনে সবার মনোযোগ কেড়েছেন মুশফিকুর রহিম। প্রথম ম্যাচের আগে অনুশীলন করতে গিয়ে আঙ্গুলে চোট পাওয়া মুশফিক সুস্থ হয়েছেন কি না, সেটি নিয়ে ছিল যত কৌতূহল। তবে স্বস্তির খবর, গতকাল মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ দলের ঐচ্ছিক অনুশীলনে পুরোদমেই ব্যাটিং করেছেন মুশফিক। স্পিন ও পেসের বিপক্ষে ব্যাট চালিয়েছেন স্বাচ্ছন্দ্যে। তাই আজ আফগানদের বিপক্ষে সিরিজের শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে এই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যানের খেলায় কোনো বাধা থাকছে না। বেলা ৩টায় হোম অব ক্রিকেটে হবে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচটি।
মুশফিকের একাদশে ফেরার সম্ভাবনা নিয়ে বিসিবির ফিজিও বায়েজিদ ইসলাম বলেছেন, ‘২ তারিখে মুশফিকুর রহিমের আঙুলে বল লাগার পর এক্স-রে করানো হয়েছিল। সেখানে চিড় বা এ ধরনের কিছুর অস্তিত্ব দেখা যায়নি। আগের দিন তাঁকে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছিল। দেখা গেছে যে আঙ্গুলের ফোলা আর নেই। আজকে (গতকাল) সে ব্যাটিং করল। থ্রো ডাউন খেলল, স্পিনে ব্যাট করল, পেস বোলিংও খেলল। সব মিলিয়ে সে ভালো আছে। দ্বিতীয় ম্যাচে তাঁকে একাদশে রাখা যায় কি না, সেটা নিয়ে বিবেচনা করা হবে।’
আফগানিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ দিয়েই ২০ ওভারের খেলায় ফিরছেন মুশফিক। পাকিস্তানের বিপক্ষে সর্বশেষ টি-টোয়েন্টি সিরিজের দলে মুশফিককে রাখা হয়নি। এবার আফগানিস্তানের বিপক্ষে দ্বিতীয় ম্যাচের একাদশে সুযোগ পেলে বাংলাদেশের দ্বিতীয় ও বিশ্বের ১১তম ক্রিকেটার হিসেবে শততম আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলার মাইলফলক ছোঁবেন মুশফিক। শততম ওয়ানডেও খেলেছেন এই শেরেবাংলা স্টেডিয়ামেই। গত বছর সেপ্টেম্বরে এ মাঠেই নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের তৃতীয় ম্যাচটি ছিল বর্তমান অধিনায়কের ক্যারিয়ারে শততম টি-টোয়েন্টি।
শততম টেস্ট খেলতে আরও বেশ খানিকটা পথ পারি দিতে হবে মুশফিককে। তবে শততম ওয়ানডে খেলা হয়ে গেছে ১১ বছর আগেই। সে ম্যাচের মতো আজও মুশফিকের ব্যাট চওড়া হয়ে উঠলে সবচেয়ে বেশি লাভবান হবে বাংলাদেশ দল। মুশফিকও স্মরণীয় করে রাখতে পারবেন তার মাইলফলকসূচক ম্যাচটি। যদিও বাংলাদেশের হয়ে ৯৯ ম্যাচ খেলে মুশফিকের সার্বিক পারফরম্যান্স অবশ্য খুব ভালো নয়। ৬ ফিফটিতে ১ হাজার ৪৬৫ রান করেছেন স্রেফ ১৯.৭৯ গড় ও ১১৫.৭৫ স্ট্রাইক রেটে।
টি-টোয়েন্টিতে সর্বোচ্চ ১২৫ ম্যাচ খেলেছেন রোহিত শর্মা। ক্যারিয়ারের শততম টি-টোয়েন্টি তিনি খেলেন ২০১৯ সালে রাজকোটে বাংলাদেশের বিপক্ষে। সে ম্যাচে ৮৫ রানের ইনিংসে ভারতকে ৮ উইকেটের জয় এনে দেন রোহিত। মার্টিন গাপটিলের শততম টি-টোয়েন্টিও বাংলাদেশের বিপক্ষে। গত বছর হ্যামিল্টনে সিরিজের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশের বিপক্ষে ৩৫ রান করেন নিউজিল্যান্ড ওপেনার।
১২৪ ম্যাচ খেলা শোয়েব মালিক এ সংস্করণে ক্যারিয়ারের শততম ম্যাচটি খেলেছেন ২০১৮ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে। পাকিস্তানের ১১৬ রানে অলআউট হওয়ার সে ম্যাচে ‘আনলাকি থার্টিন’- ১৩ রান করে আউট হন পাকিস্তানি অলরাউন্ডার। আয়ারল্যান্ডের ব্যাটিং অলরাউন্ডার পল স্টার্লিং গত মাসে জার্মানির বিপক্ষে ক্যারিয়ারের শততম টি-টোয়েন্টিতে ৩৪ রান করেন। আয়ারল্যান্ডের আরেক তারকা ব্যাটসম্যান কেভিন ও’ব্রায়েন গত বছর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে শততম ম্যাচে ২৫ রানে আউট হন।
শোয়েব মালিকের মতো পাকিস্তানের আরেক অলরাউন্ডার মোহাম্মদ হাফিজও তার শততম টি-টোয়েন্টিতে ‘আনলাকি থার্টিন’- ১৩ রানে আউট হন। গত বছর সে ম্যাচে প্রতিপক্ষ ছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। আহমেদাবাদে গত বছর ভারতের বিপক্ষে শততম টি-টোয়েন্টি খেলেন ইংল্যান্ড অধিনায়ক এউইন মরগান। ইংল্যান্ড ম্যাচটা ৮ উইকেটে জেতায় তিনি ব্যাটিংয়ে নামার সুযোগ পাননি। নিউজিল্যান্ড তারকা রস টেলর তার ক্যারিয়ারের শততম ম্যাচটি খেলেন ২০২০ সালে ভারতের বিপক্ষে। ৫৩ রানের ভালো একটি ইনিংস খেললেও জিততে পারেনি তার দল। ওয়েস্ট ইন্ডিজের পেস অলরাউন্ডার কাইরন পোলার্ডও ভারতের বিপক্ষে খেলেছেন নিজের শততম ম্যাচ। ৩ রানে অপরাজিত থেকে হার নিয়ে মাঠ ছাড়েন।
অর্থাৎ ক্যারিয়ারের শততম টি-টোয়েন্টিতে সব খেলোয়াড়ই ভালো পারফর্ম করেননি। কেউ কেউ রান পেয়েছেন। টি-টোয়েন্টিতে সবশেষ চার ইনিংসে রানের মধ্যে নেই মুশফিক। পাকিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে পেয়েছিলেন বিশ্রাম। এই সংস্করণে নিশ্চয়ই রান করতে মুখিয়ে আছেন মুশফিক। তা করতে শততম ম্যাচের চেয়ে ভালো উপলক্ষ্য আর কি হতে পারে!

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps