বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ২৩ আষাঢ় ১৪২৯, ০৭ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

সীমান্তে থাই মুদ্রা ব্যবহার করবে মিয়ানমার

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২০ মার্চ, ২০২২, ১২:১০ এএম

মিয়ানমার সীমান্তে লেনদেনের জন্য থাইল্যান্ডের মুদ্রা বাথ ব্যবহারের আনুষ্ঠানিক অনুমোদন দিয়েছে দেশটির সেনা শাসিত সরকার। একইভাবে ভারতের রুপি ব্যবহারের পরিকল্পনাও করা হচ্ছে। আর এর মাধ্যমে বাণিজ্যের ক্ষেত্রে ডলারের ওপর নির্ভরশীলতা কমাতে চায় মিয়ানমার। খবর এপি। চলতি সপ্তাহে এক বিবৃতিতে মিয়ানমারের স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেশন কাউন্সিল বলেছে, চীনের ইউয়ানের সাথে স্থানীয় মুদ্রা কিয়াটের সরাসরি বিনিময়ের অনুমতি দেয়া হয়েছে। মিয়ানমার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নিয়ম অনুযায়ী থাই বাথের লেনদেন চলবে অনলাইনে। মূলত ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে নির্বাচিত সরকারকে হঠিয়ে সেনাবাহিনী ক্ষমতাগ্রহণের পরই মিয়ানমারে অর্থনৈতিক সংকট শুরু হয়। সেনাশাসিত সরকারের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিতে শুরু করে বিভিন্ন দেশ ও সংগঠন। পাশাপাশি চলমান কভিড-১৯ মহামারীর কারণে দেশটির বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের পথ অনেকটা রুদ্ধ হয়ে যায়। ফলে পড়ে যায় কিয়াটের মান। এমন পরিস্থিতিতে বিভিন্ন উদ্যোগের মাধ্যমে দেশের অর্থনীতিতে গতি আনতে চাইছে সেনা নিয়ন্ত্রিত সরকার। এজন্য সীমান্তগুলোয় ব্যবসার ক্ষেত্রে অন্য দেশের মুদ্রার ব্যবহার বাড়ানো হচ্ছে। দেশটির তথ্যমন্ত্রী মং মং ওহন এবং বিনিয়োগ ও বৈদেশিক অর্থনৈতিক সম্পর্ক মন্ত্রী অং নাইং ও’র বরাত দিয়ে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ডলারের ওপর নির্ভরতা ৭০ শতাংশ কমাতে চায় মিয়ানমার। সেজন্য অন্য দেশের মুদ্রাগুলোয় সরাসরি বাণিজ্যের অনুমোদন দেয়া হচ্ছে। চীনের পর থাইল্যান্ড হলো মিয়ানমারের দ্বিতীয় বৃহত্তম বাণিজ্যিক অংশীদার। মোট পাঁচটি সীমান্তে থাইল্যান্ডের সাথে মিয়ানমারের বাণিজ্যিক সম্পর্ক রয়েছে। এগুলো দিয়ে ২০২০-২১ অর্থবছরে ৪৩০ কোটি ডলারের বাণিজ্য হয়েছে, যা এর আগের অর্থবছরের তুলনায় বেশি। বিবৃতিতে বলা হয়, প্রতিবেশী দেশগুলোর সাথে মুদ্রার লেনদেন হলে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক জোরদার হওয়ার পাশাপাশি ডলারের ওপর নির্ভরশীলতা কমবে। এছাড়া রিজিওনাল কম্প্রিহেনসিভ ইকোনমিক পার্টনারশিপ বা আরসিইপি জোটে মিয়ানমারের যুক্ত হওয়ার ক্ষেত্রে কিছু দেশ বিরোধিতা করছে বলেও অভিযোগ করা হয়। যদিও সেখানে দেশগুলোর নাম উল্লেখ করা হয়নি। এর আগে ফিলিপাইন ও নিউজিল্যান্ড জানিয়েছিল যে, বিশ্বের সবচেয়ে বড় এ মুক্ত বাণিজ্য সুবিধার জোটে মিয়ানমারকে যুক্ত করতে চায় না তারা। এপি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps