শনিবার, ২৫ জুন ২০২২, ১১ আষাঢ় ১৪২৯, ২৪ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

মালদ্বীপের বিপক্ষে জয়ের ধারায় থাকতে চায় বাংলাদেশ

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৩ মার্চ, ২০২২, ৮:২১ পিএম

ফুটবলে আশির দশকে বাংলাদেশের সামনে পাত্তাই পায়নি মালদ্বীপ। তখন যতবার মালদ্বীপকে বাগে পেয়েছে ততবারই গোলবন্যায় ভাসিয়েছে লাল-সবুজরা। তবে নব্বইয়ের পর থেকে দৃশ্যপট বদলে যায়। মালদ্বীপের বিপক্ষে ফুটবল মাঠে বারবার ব্যর্থ হতে দেখা যায় বাংলাদেশকে। দীর্ঘ দেড় যুগ তো দ্বীপ দেশটির বিপক্ষে জয়হীন ছিল লাল-সবুজরা। যদিও গত বছরের নভেম্বরে শ্রীলঙ্কার মাহিন্দা রাজাপাকসে টুর্নামেন্টে অপেক্ষার অবসান ঘটে। কলম্বোতে অনুষ্ঠিত ওই টুর্নামেন্টে জামাল ভূঁইয়ার দল ২-১ গোলে দ্বীপদেশটিকে হারিয়ে ভুলে যাওয়া জয়ের স্বাদ ফিরে পেয়েছিল।

জয়ের ধারায় থাকতেই ফিফা উইন্ডোতে প্রীতি ম্যাচে বৃহস্পতিবার ফের মালদ্বীপের মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশ সময় রাত ১০টায় মালে স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় রাত ১০টায় শুরু হবে মালদ্বীপ-বাংলাদেশ ম্যাচটি। এ ম্যাচ বাংলাদেশের নতুন স্প্যানিশ কোচ হ্যাভিয়ের ক্যাবরেরার প্রথম অ্যাসাইনমেন্ট। তাই তিনি শুরুটা জয় দিয়েই করতে চান। আজ প্রীতি ম্যাচ হলেও লড়াইটা বাংলাদেশের জন্য সময় বদলানোর। কারণ মালদ্বীপে গিয়ে সর্বশেষ দুই ম্যাচেই হেরেছে লাল-সবুজরা। সর্বশেষ হারটি গত বছরের ৭ অক্টোবর সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে। মালে জাতীয় স্টেডিয়ামে ওই ম্যাচে বাংলাদেশকে ২-০ ব্যবধানে হারিয়েছিল স্বাগতিকরা। সেই হারই টুর্নামেন্টে ব্যাকফুটে ফেলে দিয়েছিল বাংলাদেশকে। এরপর তো নেপালের সঙ্গে ড্র করায় সাফ থেকে জামালদের বিদায় নিশ্চিত হয়েছিল। সেই কষ্ট ভোলার সুযোগ এখন বাংলাদেশের সামনে। কারণ মালদ্বীপের বর্তমান দলে নেই তারকা ফুটবলার আলি আশফাক। অভিজ্ঞ এ ফুটবলার না থাকলেও ঘরের মাঠে বরাবরই বিপজ্জনক তারা। কলম্বোয় জয়ের আগে এই মালদ্বীপের কাছে টানা চার ম্যাচ হেরেছিল জামাল ভূঁইয়া বাহিনী। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য ২০১৬ সালের ১ সেপ্টেম্বরের প্রীতি ম্যাচটি। মালেতে ওই প্রীতি ম্যাচে মালদ্বীপের কাছে ৫-০ গোলে বিধ্বস্ত হয়েছিল বাংলাদেশ। তবে দ্বীপ দেশের বিপক্ষে হারগুলো নিয়ে পড়ে থাকতে চান না বাংলাদেশ অধিনায়ক জামাল ভূইয়া। বরং সর্বশেষ জয় থেকে আতœবিশ্বাস পাচ্ছেন তিনি। বুধবার মালেতে ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে জামাল বলেন,‘আমি আগেও বলেছি, এখনও বলছি- মালদ্বীপে আমাদের রেকর্ড ভাল নয়। তাদের বিপক্ষে কলম্বোতে সর্বশেষ যে ম্যাচ খেলেছিলাম সেখানে জিতেছি। তাই বিশ্বাস আছে এবার মালদ্বীপের মাটিতে তাদেরকে হারাতে পারবো। আমরা জয়ের ধারায় থাকতে চাই।’

শ্রীলঙ্কার টুর্নামেন্টে পাঁচ মাস আগে খেলা বাংলাদেশ দলের বেশ কয়েকজন খেলোয়াড় নেই বৃহস্পতিবারের ম্যাচে। ওই ম্যাচের গোলদাতা তপু বর্মন নেই চোটের কারণে। ঘরোয়া লিগে বাজে পারফরম্যান্সের কারণে ক্যাবরেরার বিবেচনায় ছিলেন না রিয়াদুল হাসান রাফি, রহমত মিয়া, সুশান্ত ত্রিপুরার মতো অভিজ্ঞরা। কাকতলীয়ভাবে মালদ্বীপের বিপক্ষে আগের দুই ম্যাচে বাংলাদেশের ডাগ আউটে ছিলেন দুই কোচ। সাফে অস্কার ব্রুজোন এবং কলম্বোয় চারজাতি টুর্নামেন্টে মারিও লেমোস। তৃতীয় ম্যাচে এসে স্প্যানিশ ক্যাবরেরা দাঁড়াবেন লাল-সবুজের ডাগ আউটে। তাই কোচ বদলের খেলায় মাঠের লড়াইয়েও নিজেদের সেরা দিতে চায় লাল-সবুজের ফুটবলাররা।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps