শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ১৭ আষাঢ় ১৪২৯, ০১ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

স্বামীহারা নারীকে রাতভর গণধর্ষণের অভিযোগে পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলা

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৪ এপ্রিল, ২০২২, ৩:০১ পিএম

 ফরিদপুরের ভাঙ্গায় শ্বশুর বাড়ি থেকে বাবার বাড়ি ফেরার পথে হাতমুখ বেঁধে এক বিধবা নারীকে (২৬) রাতভর গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযুক্ত পাঁচজনকে আসামি করে থানায় একটি মামলা করা হয়েছে।

সোমবার দুপুরে স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও জবানবন্দি নেয়ার জন্য ধর্ষণের শিকার ওই নারীকে ফরিদপুর আদালতে পাঠানো হয়েছে। এর আগে রোববার ভাঙ্গা থানায় মামলাটি করেন ওই নারী।



কয়েক বছর আগে স্বামী মারা যাওয়া ওই বিধবা নারীর বাবার বাড়ি উপজেলার নাসিরাবাদ ইউনিয়নের খাকান্দা গ্রামে। তিনি সেখানেই বসবাস করছিলেন। তার এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে।

মামলায় তিনি অভিযোগ করেন, গত ২৮ মার্চ বিকেলে পার্শ্ববর্তী আলেখাঁরকান্দা গ্রামে চাচা শ্বশুর লুৎফর রহমানের কাছে পাওনা টাকা আনতে যান। সন্ধ্যায় শ্বশুর বাড়ির এলাকার দুই তরুণ আসাদুল ও আলামিনকে সাথে নিয়ে বাবার বাড়ি ফিরছিলেন। পথিমধ্যে আউড়াবাগে একটি বাগানের কাছে পৌঁছলে রুবেল, শাহীন, সজিব, রাকিব ও হাসিবুল নামে কয়েক যুবক ধারালো চাকুর ভয় দেখিয়ে আসাদুল ও আলামিনকে মারধর করে এবং গৃহবধূর হাত ও মুখ বেঁধে পার্শ্ববর্তী একটি নির্জনস্থানে নিয়ে রাতভর গণধর্ষণ করে তারা। সকালের দিকে বাবার বাড়ি ফিরে নারীটি পরিবারের লোকজনের কাছে ঘটনাটি জানান।



ভাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সেলিম রেজা বলেন, রোববার ওই নারী একটি অভিযোগ দায়ের করেন। এর ভিত্তিতে থানায় একটি মামলা হয়েছে।

এ ব্যাপারে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ভাঙ্গা থানার এসআই মো: তাহসিন জানান, ওই নারীকে সোমবার দুপুরে স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও জবানবন্দি নেয়ার জন্য ফরিদপুর আদালতে পাঠানো হয়েছে।

ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ভাঙ্গা সার্কেল) ফাহিমা কাদের চৌধুরী জানান, তদন্ত সাপেক্ষে এর সত্যতা জানা যাবে। গুরুত্ব সহকারে বিষয়টি দেখা হচ্ছে।


মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টের সম্পত্তির পরিমাণ ৩৯২ কোটি টাকা
মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টের মোট সম্পত্তির পরিমাণ ৩৯১ কোটি ৭৯ লাখ টাকা। যার মধ্যে স্থায়ী সম্পদের পরিমাণ ১ কোটি ৬১ লাখ টাকা। বিনিয়োগ আছে ২৩৬ কোটি ৭৫ লাখ টাকা এবং চলতি সম্পদের পরিমাণ ১৫৩ কোটি ৪৩ লাখ টাকা।

সোমবার (৪ এপ্রিল) জাতীয় সংসদে হাবিবুল রহমান এমপির এক লিখিত প্রশ্নের জবাবে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, বিগত ২০২০-২১ অর্থ বছরে কল্যাণ ট্রাস্টের আয় হয়েছে মোট ৫২ কোটি ১৯ লাখ টাকা। আর ওই সময়ে মোট ব্যয় হয়েছে ২৭ কোটি ১৯ লাখ টাকা। অর্থাৎ ২০২০-২১ বছরে নীট মুনাফা হয়েছে ২৪ কোটি ৩৫ লাখ টাকা। ওই পরিসম্পদ থেকে প্রাপ্ত আয় দিয়ে যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের যাবতীয় সেবামূলক খরচ করা হয়। ফলে তাদের জীবন মানের উন্নতি হয়েছে।

সৈয়দ আবু হোসেন এমপির প্রশ্নের জবাবে আ ক ম মোজাম্মেল হক জানান, বর্তমানে ১ লাখ ৮৯ হাজার ২৯০ জন বীর মুক্তিযোদ্ধার অনুকূলে ২০ হাজার টাকা হারে সরাসরি তাদের ব্যাংক হিসেবে দেয়া হচ্ছে। এ ছাড়া ১০ হাজার টাকা করে ২টি উৎসব ভাতা এবং জনপ্রতি ৫ হাজার টাকা হারে বিজয় দিবস ভাতা দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া ৪১২২ কোটি ব্যয়ে ৩০ হাজার বীর নিবাস নির্মাণ করা হচ্ছে।

মন্ত্রী বলেন, যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের শ্রেণিবেদে জনপ্রতি মাসিক সর্বোচ্চ ৪৫ হাজার টাকা, সর্বনিন্ম ২৫ হাজার টাকা, এবং বীর শ্রেষ্ঠ পরিবারকে মাসিক ৬৫ হাজার টাকা, অপরদিকে শহীদ পরিবারকে মাসিক ৩০ হাজার টাকা, বীর উত্তম এবং বীর প্রতিকদের মাসিক ২০ হাজার টাকা সম্মানী ভাতা দেয়া হয়।

তিনি জানান, বীর মুক্তিযোদ্ধাদের আবাসন সমস্যা দূর করতে ও আবাসন নিশ্চিত করতে ৪ হাজার ১২২ কোটি ব্যয়ে ৩০ হাজার বীর নিবাস নির্মাণ করার কাজ শুরু হচ্ছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps