মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২, ১৪ আষাঢ় ১৪২৯, ২৭ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

মিলিটারি কায়দায় কাজ করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

একনেকে ১২ হাজার ১৬ কোটি টাকা ব্যয়ে ১২ প্রকল্প অনুমোদন

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৬ এপ্রিল, ২০২২, ১২:০০ এএম

পানি উন্নয়ন বোর্ডকে গদাই লস্করি চালে কাজ করার সংস্কৃতি পরিহার করে মিলিটারি কায়দায় কাজ করার নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল মঙ্গলবার একনেক বৈঠকে তিনি এ নির্দেশনা দেন বলে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান সাংবাদিকদের জানিয়েছেন। বৈঠক শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান জানান, নদীর তীর রক্ষা সংক্রান্ত কয়েকটি প্রকল্প অনুমোদনের সময় প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেছেন। পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা প্রসঙ্গে তাকে উদ্ধৃত করে এম এ মান্নান বলেন, তিনি বলেছেন আপনারা একটু একটু করে কাজ করেন। এক কাজ শেষ করতে করতে আগের কাজ ভেঙে যায়। তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, অতি দ্রুত কাজ করতে, মিলিটারি কায়দায় কুইকলি করতে হবে। একই সঙ্গে যেটা করবেন সেটা যেন টিকে থাকে। যদি গদাই লস্করি চালে করেন, তাহলে এক মাইলের শেষ মাথায় যেতে যেতে শুরুর মাথা ভেঙে যাবে। এটা করা উচিত নয়, বলে উল্লেখ করেন পরিকল্পনামন্ত্রী। বৈঠকে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়েরই ৪টি প্রকল্পের অনুমোদন দেয়া হয়। গতকাল রাজধানীর শেরে বাংলানগর এনইসি সভাকক্ষে একনেক চেয়ারপার্সন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে সভায় প্রধানমন্ত্রী তাঁর সরকারি বাসভবন গণবভন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সভায় যোগদান করেন।

বৈঠক শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান ব্রিফিংয়ে জানান, একনেক সভায় ১২ হাজার ১৬ কোটি ৮৮ লাখ টাকা ব্যয় সাপেক্ষ মোট ১২টি প্রকল্পের চূড়ান্ত অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এই প্রকল্প ব্যয়ের মধ্যে ৭ হাজার ৯৯০ কোটি ১৪ লাখ টাকা সরকার ব্যয় করবে। বাকী ৫৯৪ কোটি ৪৩ লাখ টাকা সংশ্লিষ্ট সংস্থার নিজস্ব তহবিল থেকে অর্থায়ন করা হবে এবং বাকি ৩ হাজার ৪৩২ কোটি ৩১ লাখ টাকা প্রকল্প সহায়তা হিসেবে পাওয়া যাবে। এ সময় পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম, পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য ও সংশ্লিষ্ট সচিবরা উপস্থিত ছিলেন।
একনেক সভায় প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া অনুশাসন তুলে ধরে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী কক্সবাজারে মেরিন অ্যাকুরিয়াম স্থাপন প্রক্রিয়া জোরদার করতে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দিয়েছেন।

পরিকল্পনা কমিশনের সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের (জিইডি) সদস্য ড. কাওসার আহমেদ জানান, প্রধানমন্ত্রী এর আগে কক্সবাজারে একটি মেরিন অ্যাকুরিয়াম স্থাপন প্রক্রিয়া শুরু করতে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দিয়েছিলেন।

কাওসার আহমেদ বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার পর একটি সম্ভাব্যতা সমীক্ষা সম্পন্ন করা হয়েছে এবং ইতিমধ্যে এর আলোকে ডিপিপি তৈরি করা হয়েছে। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় ডিপিপিতে আরও কিছু সংশোধন করার পর, সেটি পরিকল্পনা কমিশনে জমা দেবে।

তিনি বলেন, অ্যাকুরিয়ামটি অত্যন্ত আকর্ষণীয় হবে এবং এবং দেশের মানুষ এর থেকে অনেক কিছু শিখতে পারবে।
পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান জানান, প্রধানমন্ত্রী পানিসম্পদ বিভাগকে নদী খনন ও বাঁধ নির্মাণের মত প্রকল্প আরও দ্রুত শেষ করার নির্দেশনা প্রদান করেছেন।
বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি (এডিপি) খুব বেশি উন্নয়ন প্রকল্পে অন্তর্ভুক্ত না করার বিষয়ে একটি চেম্বারের বাজেট সুপারিশ সম্পর্কে জানতে চাইলে মান্নান বলেন, যেহেতু আওয়ামী লীগ সরকার দেশ চালাচ্ছে, তাই জনগণের প্রতি তার দায়িত্ব ও কর্তব্য রয়েছে। তিনি বলেন, ট্র্যাক রেকর্ড, অভিজ্ঞতা, বৈশ্বিক বাজার পরিস্থিতি এবং উন্নয়ন সহযোগিদের মনোভাব বুঝে সরকার তার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে।

এম এ মান্নান বলেন, শেখ হাসিনার সরকার অত্যন্ত ইতিবাচক এবং জোরালোভাবে উন্নয়নের সূচনা করতে চায়। আমরা বেসরকারি খাতকে তাদের কাজ করার পূর্ণ স্বাধীনতা প্রদান করেছি এবং আমাদের মূল লক্ষ্য টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করা। তিনি জানান, ডিসিসিআই বাস্তব ভিত্তিক যেসব প্রস্তাব দিয়েছে সেগুলো আগামী বাজেটে বিবেচনা করা হবে।

শ্রীলঙ্কার সর্বশেষ আর্থিক সঙ্কট সম্পর্কিত এক প্রশ্নের উত্তরে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, আমাদের সরকার কোনো অপ্রয়োজনীয় কাজ করে না কিংবা কোন অপ্রয়োজনীয় প্রকল্প গ্রহণ করে না। তবে কতিপয় মহল শ্রীলঙ্কার বর্তমান পরিস্থিতি বাংলাদেশের সাথে মেলানোর চেষ্টা করছে, যা অর্থনৈতিক ও সামাজিক দিক বিবেচনায় মোটেই গ্রহণযোগ্য নয়।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার অর্থনীতি সম্পূর্ণ ভিন্ন এবং অর্থনীতির মৌলিক বিষয়গুলোও ভিন্ন। তবে আমরা বিশেষজ্ঞ ও গবেষকদের মতামতগুলো ব্যাপারে গভীর দৃষ্টি রাখছি। আমি মনে করি শ্রীলঙ্কার পরিস্থিতির মত কোন আশঙ্কা করার যুক্তিসঙ্গত কারন নেই।
এক প্রশ্নের উত্তরে পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য মো. মামুন-আল-রশিদ জানান, প্রকল্প বাস্তবায়নে পরামর্শকদের উপর নির্ভরতা কমানোর বিষয়ে আন্তরিক চেষ্টা চলছে। তিনি অপর এক প্রশ্নের উত্তরে বলেন, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে প্রকল্পের হার নির্ধারণের বিষয়টি অর্থ বিভাগ দেখছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত সমন্বিত হারে কর্মসূচি চালু হয়নি, বরং পৃথক হারের কর্মসূচি চালু রয়েছে।

একনেকে অনুমোদিত প্রকল্পসমূহ হলো- স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের আওতায় দেশের তিনটি সিটি কর্পোরেশন ও একটি পৌরসভার অবকাঠামোগত উন্নয়নের পাশাপাশি সেখানকার প্রশাসনিক দক্ষতা বৃদ্ধি এবং স্থানীয় জনসাধারণের জীবনযাত্রার মানোন্নয়ন নিশ্চিতকল্পে ৩৩৯৭ কোটি ৮১ লাখ টাকা ব্যয় সাপেক্ষ আরবান ডেভেলপমেন্ট এন্ড সিটি গভারন্যান্স (ইউডিসিজি) প্রকল্প, সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ শিল্পকলা একাডেমি ও আঞ্চলিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র, মিঠামইন, কিশোরগঞ্জ। প্রকল্প ব্যয় হবে ৬৯ কোটি ৫৬ লাখ টাকা। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের ৪৪৩ কোটি ৯৪ লাখ টাকা ব্যয়ে বাংলাদেশ ওশানোগ্রাফিক রিসার্চ ইনস্টিটিউট (২য় পর্যায়) প্রকল্প।

সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সরকারি শিশু পরিবার এবং ছোটমনি নিবাস হোস্টেল নির্মাণ বা পুননির্মাণ প্রকল্পে (১ম সংশোধনী) ব্যয় হবে ৩৮৫ কোটি ২১ লাখ। ব্যয় বেড়েছে ৮৮ কোটি ৪৯ লাখ টাকা। পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের ইরিগেশন ম্যানেজম্যান্ট ইমপ্রুভমেন্ট প্রকল্পে ব্যয় হবে ৫৬২ কোটি ৬৯ লাখ টাকা।
পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের ১০৯৬ কোটি ৬০ লাখ টাকা ব্যয়ে তজুমদ্দিন ও লালমোহন উপজেলায় উপকূলীয় বাঁধ পুনর্বাসন, নিস্কাশন ব্যবস্থার উন্নয়ন ও তীর সংরক্ষণ প্রকল্প (১ম পর্যায়)। পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের নেত্রকোনা জেলার পূর্বধলা উপজেলার সেচ ও নিস্কাশন ব্যবস্থার উন্নয়ন প্রকল্পে ব্যয় হবে ২০৫ কোটি ৯৪ লাখ টাকা।

পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের কিশোরগঞ্জ জেলার ১০টি উপজেলায় নদী তীর প্রতিরক্ষা কাজ, ওয়েভ প্রটেকশন এবং খাল পুনঃখনন প্রকল্পে ব্যয় হবে ৬৫৪ কোটি ২৬ লাখ টাকা। স্থানীয় সরকার বিভাগের ঝিনাইদহ জেলা গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পে ব্যয় হবে ৫০০ কোটি টাকা। বৃহত্তর পাবনা ও বগুড়া জেলার গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন (২য় পর্যায়) প্রকল্পে ব্যয় হবে ১৪০০ কোটি টাকা।

বিদ্যুৎ বিভাগের নতুন প্রকল্প ঢাকাস্থ ডেসকো এলাকায় বৈদ্যুতিক অবকাঠামো সম্প্রসারণ ও শক্তিশালীকরণ প্রকল্পে ব্যয় ধরা হয়েছে ২২৭২ কোটি ৪৭ লাখ টাকা এবং স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের এসেনসিয়াল ড্রাগস কোম্পানি লিমিটেড, মানিকগঞ্জ প্ল্যান্ট স্থাপন প্রকল্পে ব্যয় হবে ১ হাজার ৯০৫ কোটি ২৬ লাখ টাকা।##

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (6)
Tania Akter ৬ এপ্রিল, ২০২২, ৩:৪৫ এএম says : 0
বর্তমান সরকারের তৎপরতায় জনগনের জীবন মান আমূল পরিবর্তন সাধিত হয়েছে। সরকারের উন্নয়নমুখী নানা পরিকল্পনার সুফল ভোগ করছে জনগন। সরকার জনগণের কল্যাণে সদা তৎপরতার সঙ্গে কাজ করে চলেছেন।
Total Reply(0)
Md Munir Sawdagar ৬ এপ্রিল, ২০২২, ৩:৪৪ এএম says : 0
মাশাআল্লাহ। বঙ্গবন্ধুর কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, আপনার কথা মতো তারা চললে তখন বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা হতে ২০৪১ সাল পযন্ত সময় আর প্রযোন হবে না। এটা সত্য কথা। জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু।
Total Reply(0)
Farhana Hossain ৬ এপ্রিল, ২০২২, ৩:৪৪ এএম says : 0
মানব কল্যাণে নিবেদিত প্রাণ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা। সুখে দুঃখে সকল সময় জনগনের পাশে থাকেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী।আর তাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী স্থান করে নিতে পেরেছেন দেশের সকল স্তরের মানুষের হৃদয়ে।
Total Reply(0)
Lucky ৬ এপ্রিল, ২০২২, ৩:৪৫ এএম says : 0
আওয়ামী লীগ সরকার জনকল্যাণমুখী জনগণের সরকার।
Total Reply(0)
ম নাছিরউদ্দীন শাহ ৬ এপ্রিল, ২০২২, ১:৩৮ এএম says : 0
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনাকে শ্রদ্ধা ও সালাম। বাংলাদেশের বিশালাকার অর্জন উন্নয়ন অগ্রগতি। বাংলাদেশ ৪১ সালের আগেই উন্নয়নশীল দেশ হবে। সব পরিসংখ্যান যথারীতি হচ্ছে আপনি জানেন কিনা? আপনার বাংলাদেশের রাষ্ট্রীয়ভাবে সব গোয়েন্দা বাহিনী খবরাখবর রাখেনকিনা আমার সন্দেহ হচ্ছে? সরকারের গায়ের চামড়া গন্ডালের চামড়াহয়ে গেছে কিভাবে? সোশ্যাল মিডিয়া ইউটিউবের মাধ্যমে আপনার বিরুদ্ধে প্রতিদিন ভয়ানক ভয়ংকর কাল্পনিক মনগড়া মিথ্যাচারের সকল সিমানা অতিক্রম করে যাচ্ছে। রাষ্ট্রের সকল বাহিনী প্রধানের বিরুদ্ধে ফ্রি ষ্টাইলে কঠোরভাবে সমালোচনা হচ্ছে। এইগুলো সরকারের বিরুদ্ধে নয়। বাংলাদেশের বিরুদ্ধে হচ্ছে। রাষ্ট্রদ্রোহিতার চায়তে ও জঘন্যতম হচ্ছে।এরা চিহ্নিত কিছু শৃংখলা জনিত অপরাধে অবসরপ্রাপ্ত সামরিক কর্মকর্তা। কিছু বিপদগামী সাংবাদিক। আমি তীব্র ভাবে সোশ্যাল মিডিয়াই তাদের কৃতকর্মের ভাষার প্রতিবাদমুখর ক্ষুদ্র মানুষ। রাষ্ট্র কি এদের বিরুদ্ধে শক্তিশালী হতে পারে না? আপনার ডিজিটাল সুযোগের মাধ্যমে প্রতিদিন দেশের বিরুদ্ধে অপপ্রচার হচ্ছে। যদি তাদের বিরুদ্ধে ব‍্যবস্থা নিতে সরকার ব‍্যর্থ হয়। ইউটিউবের সকল কার্যক্রম বন্দের আহবান জানাচ্ছি। সরকারের সকল অর্জন সরকারের বিশালাকার অগ্রগতি উন্নয়ন শক্তিশালী বাংলাদেশের বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে ব‍্যবস্থা নেওয়া জরুরী।আপনার শারীরিক সুস্বাস্থ্য দীর্ঘায়ু কামনা করছি মহান আল্লাহর পবিত্র দরবারে। আমিন।
Total Reply(0)
মাহফুজুর রহমান (শামীম) ৬ এপ্রিল, ২০২২, ৯:১১ এএম says : 0
সত্য সংবাদ প্রচার করার জন্য ইনকিলাব আমার প্রিয়
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps