বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২, ২২ আষাঢ় ১৪২৯, ০৬ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

হিন্দি না বলতে পারলে ভারত ছাড়তে হবে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১ মে, ২০২২, ১২:০২ এএম

যারা হিন্দি ভালোবাসে না তাদের বিদেশি বলে ধরে নেওয়া হবে এবং যারা হিন্দি বলতে পারে না তাদের দেশ (ভারত) ছেড়ে চলে যেতে হবে- এমনই মন্তব্য করে এবার ভাষা বিতর্কে ঘি ঢাললেন ভারতের উত্তরপ্রদেশের মৎস্যমন্ত্রী সঞ্জয় নিশাদ। উল্লেখ্য, মন্ত্রী সঞ্জয় নিশাদ ‘নির্বল ভারতীয় শোষিত হামারা আম দল’ এর প্রধান। সাধারণত তার দলকে নিশাদ দল বলে ডাকা হয়। উত্তরপ্রদেশের ক্ষমতাসীন ভারতীয় জনতা পার্টির জোটসঙ্গী এই নিশাদ। সেই সুবাদে তিনি যোগীর মন্ত্রিসভার সদস্য। সঞ্জয় নিশাদ এই প্রসঙ্গে বলেন, “যারা ভারতে থাকতে চান তাদের হিন্দি ভালোবাসতে হবে। আপনি যদি হিন্দি না ভালোবাসেন, তাহলে ধরে নেওয়া হবে আপনি একজন বিদেশি বা বিদেশি শক্তির সঙ্গে যুক্ত। আমরা আঞ্চলিক ভাষাগুলোকে সম্মান করি, কিন্তু এই দেশটি এক, এবং ভারতের সংবিধান বলে যে ভারত হল ‘হিন্দুস্তান’, যার অর্থ হিন্দি ভাষাভাষীদের জায়গা। যারা হিন্দি বলতে পারে না তাদের জন্য হিন্দুস্তানে জায়গা নেই। তাদের উচিত এই দেশ ছেড়ে অন্য কোথাও চলে যাওয়া।” উল্লেখ্য, সম্প্রতি অভিনেতা কিচ্চা সুদীপ ও অজয় দেবগণের মধ্যে হিন্দি ভাষা নিয়ে টুইট বিনিময় হয়। সেই নিয়ে প্রশ্ন করা হলে যোগীর মন্ত্রী এমন বিতর্কিত মন্তব্য করেন। এর আগে সুদীপ এক অনুষ্ঠানে বলেছিলেন, “হিন্দি আর রাষ্ট্রভাষা নেই। ওরা (বলিউড) আজকাল সর্বভারতীয় ছবি বানাচ্ছে। ওরা সাফল্য পাওয়ার জন্য তেলুগু, তামিলে ছবির ডাবিং করাচ্ছে। কিন্তু তাও লাভ হচ্ছে না।” এর জবাবে অজয় দেবগণ টুইট করে লিখেছিলেন, “হিন্দি যদি আমাদের রাষ্ট্রীয় ভাষা না হয়, তাহলে তুমি কেন তোমার মাতৃভাষায় তৈরি ছবি হিন্দিতে ডাবিং করে রিলিজ করো? হিন্দি আমার মাতৃভাষা, এবং আমাদের রাষ্ট্রীয় ভাষা এবং সেটা থাকবেই।” এই ভাষা বিতর্কে অবশ্য সুদীপের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী তথা বিজেপি নেতা বাসবরাজ বোম্মাই। তার স্পষ্ট কথা, “সুদীপের মন্তব্য এক্কেবারে সঠিক, সেই মন্তব্যকে সম্মান জানানো উচিত। কর্ণাটক তৈরি হয়েছিল ভাষার উপর নির্ভর করে। আঞ্চলিক ভাষাগুলোকে গুরুত্ব দেওয়া উচিত।” হিন্দুস্তান টাইমস, দ্য ওয়ার।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps