শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৬ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

‘রেলমন্ত্রী বিয়ে করেছেন ৯ মাস তাই ...’

ভুল স্বীকার করে টিটিই শফিকুলের বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহার

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১০ মে, ২০২২, ১২:০২ এএম

রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন দ্বিতীয় বিয়ে করেছেন মাত্র ৯ মাস আগে। স্ত্রীর পক্ষ্যের সব আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে পরিচয় হয়নি। নতুন যাকে আমি স্ত্রী হিসেবে নিলাম, আমাকে বুঝে উঠতে তারও সময় লাগবে। ভুল-ভ্রান্তি হলে মানুষ তো সেভাবেই দেখবে। এখানে যদি দেখা যায়, আমার স্ত্রী কোনো দোষ করে থাকে, ইয়ে করে থাকে, এটা কিন্তু আমার নলেজে ছিল না। সে কারণেই বিনাটিকেটে রেল ভ্রমণ করা যাত্রীর সঙ্গে আত্মীয়তার কথা অস্বীকার করেছেন। অথচ তার স্ত্রীর ফোনের নির্দেশে একজন টিটিইকে বরখাস্ত করা হয়েছিল। এই ভুল স্বীকার করে গতকাল রেলমন্ত্রী জানিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ টিকিট পরীক্ষক (টিটিই) শফিকুল ইসলামের বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহার করা হয়েছে। একইসঙ্গে মন্ত্রীর স্ত্রী শাম্মী আকতার মনির নির্দেশে শফিকুলকে বরখাস্ত করায় রেলের পাকশীর বিভাগীয় বাণিজ্যিক কর্মকর্তা (ডিসিও) নাসির উদ্দিনকে শোকজ করা হবে বলেও জানান রেলমন্ত্রী। গতকাল রোববার রেল ভবনে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে এ তথ্য জানান রেলমন্ত্রী।

নূরুল ইসলাম সুজন বলেন, একজন টিটিইর দায়িত্বই হচ্ছে, এটা দেখা কোনো যাত্রী বিনা টিকিটে ভ্রমণ করছে কি না। যাত্রীদের সহযোগিতা করা। ডিসিপ্লিন আনার ক্ষেত্রে একজন টিটিইর এটাই দায়িত্ব। আমি এই কথাটাই বলেছি। টিটিই বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহার করা হয়েছে এবং ডিসিওকে শোকজ করা হবে।
বিনা টিকিটে ট্রেনে চড়া তিনজনের সম্পর্কে জানতে চাইলে মন্ত্রী জানান, মাত্র ৯ মাস হলো আমার বিয়ে হয়েছে। নতুন যে স্ত্রীকে আমি গ্রহণ করেছি, সে ঢাকাতেই থাকে। তার মামাবাড়ি ও নানাবাড়ি হলো পাবনা। আমি শুনেছি তারা আমার আত্মীয়। এটা এখন ঠিক, যেটা আমিও এখন শুনেছি। এর আগে আমি জানতাম না এরা কারা এবং আমার জানার কথাও নয়। রেলমন্ত্রী বলেন, আমার স্ত্রী যদি কোনো ধরনের ভুল করে থাকে এতে আমার ইনভলবমেন্ট ছিল না। যেটা বলা হচ্ছে বা টার্গেট করা হচ্ছে- মন্ত্রী, এই কারণে... এটা ঠিক না। মেসেজটা যেভাবে গেছে এটা সঠিক হয়নি।

তিন যাত্রীকে জরিমানা করায় টিটিই বরখাস্ত হওয়ার ঘটনায় মন্ত্রীর স্ত্রী শাম্মী আকতার মনির নির্দেশনা ছিল বলে সংবাদমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে রেলমন্ত্রী সুজন বলেন, আমিও বিষয়টি শুনেছি। সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করার পরও টিটিই বরখাস্তের ঘটনায় নেতিবাচক প্রভাব পড়বে কি না? জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, নেতিবাচক ধারণা তো অবশ্যই হবে। এটা ভুলভ্রান্তি হলে মানুষ সেভাবে দেখবে।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, শফিকুল ইসলামকে পদোন্নতি বা অন্যান্য সুযোগ সুবিধা দেওয়া হতে পারে। তাকে পুরষ্কৃত করার কথাও ভাববে রেলপথ মন্ত্রণালয়। রেলমন্ত্রী বলেন, সংশ্লিষ্ট ঘটনায় একটি তদন্ত কমিটি করা হয়েছে। কমিটির মাধ্যমে পুরো ঘটনা বের হয়ে আসবে। টিটিই শফিকুল ইসলামের বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহার করার নির্দেশ এবং পাকশী বিভাগীয় বাণিজ্যিক কর্মকর্তা নাসির উদ্দিনকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিতে বলা হয়েছে। টিআইবির বিবৃতি প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, টিআইবি দ্রুত সময়ে একটি বিবৃতি দিয়েছে। এখানে মন্ত্রীর কোনো সংশ্লিষ্টতা আছে কি না তা দেখার আগেই তারা এটা করেছে।
গত ৪ মে রাতে খুলনা থেকে ঢাকাগামী আন্তঃনগর সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনে বিনা টিকিটে ভ্রমণ করায় ৩ যাত্রীকে জরিমানার ঘটনা ঘটে। পরে বৃহস্পতিবার রেলমন্ত্রীর স্ত্রীর টেলিফোন নির্দেশনা পেয়ে ঈশ্বরদীর পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ে বাণিজ্যিক কর্মকর্তা (ডিসিও) নাসির উদ্দিনের নির্দেশে টিটিই শফিকুল ইসলামকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। বরখাস্ত হওয়া টিটিই মো. শফিকুল ইসলাম রেলওয়ে জংশন ঈশ্বরদীর টিটিই হেডকোয়ার্টারের সঙ্গে যুক্ত।
ঘটনার পর সমালোচনার মুখে পুরো বিষয়টি তদন্তে শনিবার রেলের পক্ষ থেকে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়। ঘটনার প্রকৃত কারণ খুঁজে বের করতে পাকশীতে আজ ওই তিন যাত্রী ও টিটিইর সঙ্গে বসার কথা রয়েছে তদন্ত কমিটির সদস্যদের।

বিনা টিকেটে ভ্রমণ করা তিন যাত্রী রেলমন্ত্রীর স্ত্রী শাম্মী আক্তারের নিকটাত্মীয়। শুক্রবার টিটিইকে বরখাস্ত করার খবর প্রকাশের পর নানা মহলে সমালোচনা শুরু হয়। শনিবার রেলমন্ত্রী এক প্রশ্নের জবাবে একটি গণমাধ্যমকে বলেন, কারা তার আত্মীয় পরিচয় দিয়েছেন, তাঁদের তিনি চেনেন না। পরে এ বিষয়ে রেলমন্ত্রীর স্ত্রীর মামাতো বোন ও ওই তিন যাত্রীর একজন মো. ইমরুল কায়েসের মা ইয়াসমিন আক্তার বলেন, ‘ঘটনার পর রেলমন্ত্রী আমাদের চেনেন না বলায় কষ্ট পেয়েছিলাম। পরে তিনি রেলমন্ত্রী) নিজেই ফোন দিয়ে বলেছেন, ‘আপা, আমি যা বলেছি, এতে মন খারাপ করবেন না। রাজনীতি করি অনেক কথা বলতে হয়’। অথচ রোববার সাংবাদিকদের কাছে সেই ফোনালাপ ডাহা মিথ্যা বলে দাবি করেন রেলমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘আমার সঙ্গে ওনার কথা হয়েছে, এই কথাগুলো ডাহা মিথ্যা। তার সঙ্গে আমার টেলিফোনে কোনো কথাই হয়নি।’ মন্ত্রী আরও বলেন, রেলের সেবায় অসন্তুষ্ট হলে সাধারণ যাত্রী ও তার পরিবার হিসেবে অভিযোগ জানাতে পারে। কিন্তু মন্ত্রীর বউ হিসেবে অভিযোগ জানাতে পারে না। এ জায়গাটায় কিছু ব্যত্যয় হয়েছে বলে আমি মনে করি। অভিযোগের বিষয়ে স্ত্রীর সাথে কোনো কথা হয়নি বলেও দাবি করেছেন মন্ত্রী। তিনি বলেছেন, রেল মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব স্বচ্ছভাবে আমি পালনের চেষ্টা করেছি। এই ঘটনায় আমি বিব্রত।

এদিকে এ ঘটনায় রেলমন্ত্রীকে পদত্যাগ করার আহ্বান জানিয়েছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি), যাত্রী কল্যাণ সমিতিসহ বিভিন্ন সংগঠন।
টিআইবির পক্ষ থেকে রেলমন্ত্রীর ‘স্ত্রীর তিন আত্মীয়কে’ জরিমানার ঘটনায় সংশ্লিষ্ট টিকিট পরিদর্শককে (টিটিই) সাময়িক বরখাস্ত করাকে ন্যক্কারজনক দৃষ্টান্ত হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।

এক বিবৃতিতে গভীর উদ্বেগ ওক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, ঘটনাটি ক্ষমতার অপব্যবহারের একটি নির্লজ্জ ও নিকৃষ্টতম উদাহরণ। এখানে মূলত দুইভাবে ক্ষমতার অপব্যবহারের ঘটনা ঘটেছে, প্রথমত রেলমন্ত্রীর নিকটাত্মীয়দের বিনা টিকিটে রেল ভ্রমণ অর্থাৎ তারা ধরেই নিয়েছিলেন যে রেলের প্রচলিত আইন তাদের জন্য প্রযোজ্য নয়! ##

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (14)
Biplob Mondol ৯ মে, ২০২২, ৯:১৮ এএম says : 0
বুড়ো বয়সে বিয়ে করলে স্ত্রীর প্রতি দুর্বল থাকে আর স্ত্রী সে সুযোগটা নিয়েছে।
Total Reply(0)
Mizanur Rahman Jihan Chy ৯ মে, ২০২২, ৯:১৮ এএম says : 0
রেলমন্ত্রীর স্ত্রীর ফোনে যদি চাকরি চলে যায়,তাহলে তার স্ত্রীর ফোনে যে কত মানুষের রেলে চাকরি হয়েছে,তা আল্লাহ ভালো জানেন।কবি নজরুল ঠিক ই বলেছেন.... রাজায় শাসিতেছে রাজ্য রাজাকে শাসিতেছে রানী
Total Reply(0)
True Mia ৯ মে, ২০২২, ৫:৩৯ এএম says : 0
Did he marry a12 years girl ? this people became shameless for power
Total Reply(0)
Mominul Hoque ৯ মে, ২০২২, ৯:৫৩ এএম says : 0
রেল মন্ত্রীর মন্ত্রীত্বের দায়িত্ব তার নবাগতা স্ত্রীকে দিয়ে দিলেই হয়। তারা মামাতো-খালাতো ফুফাতো সবাই মিলে রেলের বারটা বাজিয়ে দিবে।
Total Reply(0)
Dr. Mohammad Ziaul Hoque ৯ মে, ২০২২, ৬:৫৭ এএম says : 0
সাময়িক বরখাস্তকৃত টি টি ই শফিকুলের চাকরি ফেরত দিয়ে মন্ত্রী ভালো কাজ করেছেন।
Total Reply(0)
mozibur binkalam ৯ মে, ২০২২, ৭:০৩ এএম says : 0
বিনা ভোটের সরকারী লোক গুলো বেপরোয়া।সাধারণ মানুষ আজ অসহায়।
Total Reply(0)
Yousman Ali ৯ মে, ২০২২, ৭:২৬ এএম says : 0
মুন্তীরি শাস্থি হওয়া দরকার
Total Reply(0)
Abdul Qadir ৯ মে, ২০২২, ১১:৩৩ এএম says : 0
Hon'ble Prime Minister is requested to look into the matter seriously to close the chapter. Thanks.
Total Reply(0)
Tareq Sabur ৯ মে, ২০২২, ১১:৩৮ এএম says : 0
আশ্চর্যের ব্যাপার হলো, মন্ত্রীর বউ এর কথায় সরকারী কতৃপক্ষ কিভাবে কোন সিদ্ধান্ত নেয়? মন্ত্রীর বউ বা পরিবারের অন্য সদস্যরা তো সরকারের কেউ না। এদের কথায় কিভাবে সরকারী কর্মকর্তার চাকুরী যায়? আর মন্ত্রী তো মন্ত্রী- .. মন্ত্রী- এদের কথায় রাষ্ট্রীয় কর্মকর্তারাও কেমনে তাদের সহকর্মীর চাকুরী খায়? কোথায় চলে গেছে এ দেশের রাষ্ট্রীয় ব্যবস্থা?
Total Reply(0)
md shamsul hoque ৯ মে, ২০২২, ১১:৩০ এএম says : 0
Nation will remember the role of Dr. Iftekaruzzaman.
Total Reply(0)
Abdul Qadir ৯ মে, ২০২২, ১১:৩২ এএম says : 0
Hon'ble Prime Minister is requested to look into the matter seriously to close the chapter. Thanks.
Total Reply(0)
Mohiuddin molla ৯ মে, ২০২২, ১১:৫৩ এএম says : 0
শীল-পাটায় ঘসা-ঘসি মাঝ খানে মরিচের কাম শেষ।
Total Reply(0)
M.Ferdous Chowdhury. ৯ মে, ২০২২, ১২:২৮ পিএম says : 0
রেলমন্ত্রীর স্ত্রীর ঘটনায় দেশব্যাপী তোলপাড সৃষ্টি হয়েছে! অনেকে এটাকে অনেকে রাজনৈতিক রং দেয়ার চেষ্টাও করছেন! কিন্ত বাজারে প্রচলিত গুজবে দেখা যায়,সালাম তালুকদার মন্ত্রী থাকাকালীন সময়ে সরিষাবাডির কিছু লোক এবং মন্ত্রীর ভাই ভাতিজা ও শ্বশুরবাডির লোকজন বাকিতে টিকেট নিয়ে রেলে ভ্রমন করতো!পরবর্তীতে টিকেটের টাকা উদ্ধারের জন্য ঐ ষ্টেশনের একজন ষ্টাফকে সব সময় মন্ত্রীর বাডিতে অপেক্ষা করতে হতো! ফাকে আবার কেউ কেউ বলার চেষ্টা করছে বিনাভোটের সরকারের কার্যকলাপ তো এমন হবেই! আমি তাদেরকে স্মরন করে দিতে চাই,বিনা ভোটের কার্যক্রম তো প্রথম চালু করেছিলেন গনতন্ত্রের মানষপুত শহীদ জিয়াউর রহমান ১৯৭৭ সালের হ্যা না ভোটের সময়! ঐ সময় পাকট্রেনিং প্রাপ্ত নির্বাচনী কর্মকর্তারা ১০০% ভোটের মধ্যে ১০৭% ভোট কাষ্ট করেছিলেন! পরবর্তীতে ঠিক করে ৯৭% করেছিলেন! এরপর ওনারই সাগরেদ শহীদ হাজী হু.মু.এরশাদ ভোটহীন গনভোটে ৯৩% ভোট দেখিয়ে নিজের বিজয় নিজেই ঘোষনা করেছিলেন! একটা সাধারন ঘটনাকে অসাধারন দুর্নীতি যারা বানাতে চায় তারা আসলে প্রতিহিংসায় জ্বলছে!
Total Reply(2)
Belal ৯ মে, ২০২২, ৫:০৬ পিএম says : 4
Day light ১৫ মে, ২০২২, ১০:২৭ এএম says : 0
md mizanur rahman ১২ মে, ২০২২, ১০:০২ এএম says : 0
The Railway Minister should not give so much freedom to his wife. In particular, the official work of the Minister. Those who have been fired should be fired now. They will lobby the minister's wife during the appointment and will put the incompetent person in the chair. Proof of which is railway corruption, ticket blackmail, which is now at an extreme stage.
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন